১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ায় একটি বিল প্রত্যাহার

সংসদ রিপোর্টার ॥ বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ার আশঙ্কায় মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে আরও একটি বিল প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। তিনটি বন্দরের যন্ত্রপাতি কেনা নিয়ে বিদ্যমান সরকারী ক্রয় আইনের বাইরে আলাদা বিধান রেখে সংসদে উত্থাপিত পোর্টস (সংশোধিত) বিল-২০১৫ প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বিলটি প্রত্যাহারের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এ ছাড়া সংসদে ট্রেডমার্ক সুরক্ষা বিল পাস হয়েছে। এর আগে সোমবার স্থানীয় সরকার (জেলা পরিষদ) (সংশোধনী) বিলটি প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। ফলে গত দু’দিনে সংসদে দুটি বিল প্রত্যাহার করে নেয়া হলো। সংসদ সচিবালয় সূত্র বলছে, এ ধরনের ঘটনা আগে সচরাচর ঘটেনি। মঙ্গলবার প্রত্যাহারের আগে পোর্টস বিল প্রত্যাহারের সমালোচনা করেন কয়েক এমপি।

ট্রেডমার্ক সুরক্ষা বিল পাস ॥ ট্রেডমার্ক উইংকে ট্রেডমার্ক ইউনিট হিসেবে গঠন, পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ে ভোক্তা ও বিক্রেতার স্বার্থ সংরক্ষণসহ বাংলাদেশে নিবন্ধিত ট্রেডমার্ককে সুরক্ষা দিয়ে ট্রেডমার্ক (সংশোধন) আইন-২০১৫ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বিলটি উত্থাপন করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। বিলটির ওপর কয়েকজন সংসদ সদস্য জনমত যাচাই-বাছাই ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলেও তা কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।