২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিরিয়া থেকে জিহাদীরা নির্বিঘ্নে ইউরোপে

ইউরোপে বেড়ে ওঠা জিহাদীরা সিরিয়া থেকে অবাধে ইউরোপে চলাচল করতে সক্ষম হচ্ছে। কারণ কোন কোন দেশে ১০০ জনের মধ্যে একমাত্র ১ জনকে ইইউর সন্ত্রাসদমন ওয়াচলিস্টঅনুযায়ী পরীক্ষা করে দেখা হয়। ইউরোপীয় পাসপোর্ট নিয়ে তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসীরা তাদের ভ্রমণসংক্রান্ত কাগজপত্র কেবল দায়সারাভাবে দেখিয়েই সীমান্ত চেকপোস্ট পার হয়ে যেতে পারে। আর ইইউ কর্মকর্তারা বলছেন, এখন ইউরোপ যাচ্ছে এমন হাজার হাজার শরণার্থীর মধ্যে একজনকেও ওয়াচলিস্ট অনুযায়ী পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে কিনা, সে সম্পর্কে তাদের কোন ধারণা নেই। ইউরোপ মহাদেশের বাইরে থেকে আসছে এমন ইইউ নাগরিকদের মধ্যে গড়ে শতকরা মাত্র ১০-২০ ভাগের পাসপোর্ট কোন শেনজেন ডাটাবেজ অনুযায়ী পরীক্ষা করা হয়েছে। সিরিয়া ও ইরাক থেকে ফিরে আসতে পারে এমন বিদেশী যোদ্ধাদের ধরাই এ ডাটাবেজ তৈরির উদ্দেশ্য। প্যারিস হামলায় অংশ নিয়েছিল এমন আট সন্ত্রাসীর মধ্যে অন্তত তিনজন শুক্রবার নৃশংস সহিংসতা সংশ্লিষ্টদের জন্য ফিরে আসার আগে সিরিয়াতে লড়াই করেছিল বলে মনে করা হয়। এখনও পর্যন্ত শনাক্তকারী সব সন্ত্রাসই সম্ভবত ইইউরই নাগরিক। সন্দেহভাজন হোতা আবদুল হামিদ আবাউদ ব্যাপক হত্যাকা-ের ষড়যন্ত্র করার সময় কিভাবে বারবার সিরিয়া থেকে তার বেলজীয় বাসস্থানে আসা-যাওয়া করেছিল, তা গর্বের সঙ্গে জানিয়েছে। সে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) এক সাময়িকীকে জানায়, গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তার পিছু ধাওয়া এবং তার ছবি সংবাদে প্রচার করা সত্ত্বেও সীমান্তরক্ষী তাকে চিহ্নিত করতে ব্যর্থ হয়। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।