১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিবন্ধিত গাড়ির তুলনায় বৈধ চালক ১০ লাখ কম

সংসদ রিপোর্টার ॥ দেশে নিবন্ধিত মোটরযানের তুলনায় লাইসেন্সধারী চালক প্রায় ১০ লাখ কম রয়েছে। বুধবার সংসদে দেয়া সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এক তথ্য থেকে এই পরিসংখ্যান পাওয়া গেছে। তবে লাইসেন্সবিহীন গাড়িচালকদের সঠিক পরিসংখ্যান সরকারের কাছে নেই বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সারাদেশে লাইসেন্সধারী গাড়িচালকের সংখ্যা ১৫ লাখ ৪৮ হাজার ৪৬৫ জন। মোটরযানের রেজিস্ট্রেশনের সংখ্যা ২৪ লাখ ৪ হাজার ১১৪টি। তিনি আরও জানান, ভুয়া লাইসেন্সধারী চালক ও মোটরযানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের চিঠি দেয়া হয়েছে। এছাড়াও বিআরটিএ জেলা প্রশাসন এবং পুলিশের পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছে।

সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, বিআরটিএ কার্যালয়ে দালালদের দৌরাত্ম্য রয়েছে। দালালরা অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ভেতরে প্রবেশ করে নানাধরনের অপকর্ম চালায়। কখনও কখনও রাজনৈতিক প্রভাবও তারা দেখায়। যে কারণে কর্মকর্তারা অনেক সময় অসহায় হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, বিআরটিএতে থাকা সর্ষের মধ্যে ভূত তাড়ানোর চেষ্টা অবিরাম চালিয়ে যাচ্ছি। এ ব্যাপারে স্থানীয় এমপি কামাল মজুমদারেরও সহযোগিতা কামনা করে তিনি বলেন, পাঁচটি ফিটনেস পরীক্ষা কেন্দ্র ইচ্ছাকৃতভাবে বন্ধ করে রাখা হয়েছে। এগুলো চালু করার চেষ্টা করেও সম্পূর্ণ সফল হতে পারিনি।

সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য মাহজাবিন খালেদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের মধ্যে যানবাহন চলাচলের যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে তার অধীনে অবকাঠামোগত উন্নয়নের ব্যয় নিজ নিজ দেশ বহন করবে। এক্ষেত্রে সবদেশেরই নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় উন্নয়ন সহযোগী দেশসমূহের আর্থিক সহায়তা নেয়ার সুযোগ রয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সড়ক দুর্ঘটনা শূন্যের কোঠায় নিয়ে আসব, এমন দাবি আমি করবো না। তবে তা সহনীয় অবস্থায় আনতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আগে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রতিদিন মৌলভীরা বসে থাকতো দুর্ঘটনায় নিহতদের কোথায় কবর দেবে। প্রতিদিন ৫-৬টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটতো এখানে। এখন পরিস্থিতি সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে। এ মহাসড়কে এখন মাসেও একটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে না।

ওবায়দুল কাদের জানান, ২০০৯ থেকে ২০১৫ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ৮৪ হাজার ৩১৪টি মামলার মাধ্যমে ৬ কোটি ৬৬ লাখ ৮০ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এক হাজার ২৬৬ আসামিকে কারাদ- দেয়া হয়েছে এবং ২ হাজার ৮১৬টি গাড়ি ডাম্পিং স্টেশনে পাঠানো হয়েছে।