২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নড়াইলে অধিকাংশ সড়কই বেহাল ॥ দুর্ভোগ চরমে

নিজস্ব সংবাদদাতা, নড়াইল, ১৯ নবেম্বর ॥ নড়াইলে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের প্রায় ১৭০ কিলোমিটার সড়কের বেশিরভাগই বেহাল। অনেক সড়কে যানবাহন চলাচল তো দূরের কথা, হেঁটে চলাচল করাই কষ্টকর। এর মধ্যে যানবাহন চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ভাটিয়াপাড়া-গোপালগঞ্জ-কালনা-লোহাগড়া-নড়াইল-যশোর জাতীয় মহাসড়কটি। এ খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানা গেছে, নড়াইল সওজের অধীনে ১৭০ দশমিক এক কিলোমিটার নয়টি সড়ক-মহাসড়ক রয়েছে। এর মধ্যে ভাটিয়াপাড়া-গোপালগঞ্জ-কালনা-লোহাগড়া-নড়াইল-যশোর জাতীয় মহাসড়কটি ৩১ দশমিক ৫০ কিলোমিটার এবং নড়াইল-মাগুরা আঞ্চলিক মহাসড়ক ১৬ দশমিক ৫০ কিলোমিটার। অন্য সাতটি সড়ক জেলা পর্যায়ের। এর মধ্যে লোহাগড়া-নহাটা-কালিশংকরপুর-মহম্মদপুর সড়ক ২৬ দশমিক ৬০ কিলোমিটার, নড়াইল-গোবরা-ফুলতলা ও নড়াইল-কালিয়া সড়ক দুটি ২৫ কিলোমিটার করে, লোহাগড়া-নড়াগাতি সড়ক ২৩ দশমিক ৬১ কিলোমিটার, নড়াইল-তুলারামপুর-মাইজপাড়া সড়ক ১০ কিলোমিটার, তেরখাদা-বড়নাল-কালিয়া সড়ক ৮ কিলোমিটার এবং নড়াইল শহর সংযোগ সড়ক ৩ দশমিক ৮০ কিলোমিটার। এসব সড়কের বেশিরভাগই ভেঙ্গেচুরে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সরেজমিন গেছে, ১২ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে পাবনা জেলার ‘মেসার্স শফিক ট্রেডার্স’ ২০১৩ সালের ১০ মে থেকে ৭ জুলাইয়ের মধ্যে ভাটিয়াপাড়া-গোপালগঞ্জ-কালনা-লোহাগড়া-নড়াইল-যশোর জাতীয় মহাসড়কটির কালনা থেকে নড়াইল পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার এবং নড়াইল-কালিয়ার সাড়ে ১৩ কিলোমিটার সড়ক মেরামত করলেও তিন মাস ১৬ দিনের মধ্যে দুটি সড়কের পিচ উঠে যায় এবং বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত হয়। এখন কালনা-নড়াইলের ১৮ কিলোমিটার সড়কের করুণ দশার পাশাপাশি নড়াইল-কালিয়া সড়কের আটলিয়াসহ বিভিন্নস্থানে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগ নড়াইলের নির্বাহী প্রকৌশলী তাপসী দাশ বলেন, কিছু কিছু সড়ক বর্ষা মৌসুমে প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। এক্ষেত্রে লোহাগড়া-নড়াগাতি সড়ক এবং তেরখাদা-বড়নাল-কালিয়া সড়ক দুটি অনুমোদিত প্রকল্পের আওতায় আছে। এর মধ্যে লোহাগড়া-নড়াগাতি সড়কের দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। ২০১২-১৩ অর্থবছরে ভাটিয়াপাড়া-গোপালগঞ্জ-কালনা-লোহাগড়া-নড়াইল-যশোর সড়কটির ১৮ কিলোমিটার মেরামত করা হলেও ভারি যানবাহন চলাচলের কারণে তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।