২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বই বিতর্কে সঙ্গী পেলেন ক্লার্ক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এক সময়ের কোচ জন বুকাননকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কের ঢেউ তুলেছেন মাইকেল ক্লার্ক। ঠিক মন্তব্য নয়, গত এ্যাশেজ সফর (ইংল্যান্ডে) নিয়ে লেখা বই ‘এ্যাশেজ ডায়েরি -২০১৫‘তে বুকাননকে ধুয়ে দিয়েছেন সদ্য সাবেক হওয়া অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক। ক্লার্কের মতো সুবোধ ছেলের লেখা থেকে এভাবে ‘আগুন’ বেরোতে পারে, অনেকই তা কল্পনা করেন নি। আধুনিক অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান তার বইয়ে সতীর্থ এন্ড্রু সাইমন্ডসের আচরণ, এমন কি এ্যাশেজেই অভিজ্ঞ ব্র্যাড হ্যাডিনকে পাশ কাটিয়ে উইকেটরক্ষক পিটার নেভিলের দলভূক্তি নিয়ে আলোচনা করেছেন। বিষ্ফোরক মন্তব্যে ক্লার্ককে সমর্থন দিয়েছেন আরেক সতীর্থ স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল। সাবেক তারকা স্পিনারও বুকাননের কঠোর সমালোচনা করেছেন। অবশ্য ক্লার্কেরই আরেক সতীর্থ শেন ওয়াটসন আবার কোচের হয়ে ওকালতি করেছেন।

সব মিলিয়ে ভালই ঝড় তুলেছে ‘এ্যাশেজ ডায়েরি-২০১৫’। ইতিহাসের দুর্ভাগা ক্রিকেটারদের তালিকা করলে ম্যাকগিলের নাম ওপরের দিকেই থাকবে। অন্য কোনো দলে, কিংবা অন্য কোনো যুগে জন্মালে হয়ত ক্রিকেটের সেরা স্পিনারদের তালিকায় থাকতেন। দুর্ভাগ্য শেন ওয়ার্নের সময়ে জন্ম নেয়ায় এই লেগস্পিনারের ছায়ায় ঢাকা পড়ে ছিলেন ম্যাকগিল। বুকাননের অধীনে খেলার অভিজ্ঞতা থেকেই তিনি বলেছেন,‘ক্লার্কের কুকুরের সঙ্গে আমার দেখা হয়নি, কিন্তু বুকাননকে আমি ভালই চিনি। আমার মনে হয় তার এমন কোনো বাড়তি ক্ষমতা আছে, যা তাকে অন্যদের চেয়ে আলাদা করতে পারে। তবে তার যে ভাল প্রশাসনিক দক্ষতা ছিল, এমনটা বলতে পারছি না। কপাল ভাল যে ওই দলে ম্যাকগ্রা, ওয়ার্নের মতো ক্রিকেটার আর অধিনায়ক হিসেবে স্টিভ ওয়াহ ছিলেন, যাঁরা সম্ভবত নিজ নিজ ক্ষেত্রে সর্বকালের সেরা।’

অবশ্য ক্লার্কের দীর্ঘ দিনের সতীর্থ ওয়াটসন বুকাননের এমন সমালোচনাটা মোটেই ভালভাবে নেননি। তাঁর মতে, ক্লার্ক একটু বেশিই কড়া ভাষা ব্যবহার করে ফেলেছেন। তিনি বলেন,‘বুকানন হয়তো খেলোয়াড়দের খেলা শেখাতেন না, কিন্তু বিখ্যাত সব তারকাদের সামলে ঠিকই দলকে এগিয়ে নিয়েছেন। আলাদা আলাদা বলিষ্ঠ ব্যক্তিত্বসম্পন্ন এতগুলো ক্রিকেটারকে সামলাতে আপনার দক্ষতা থাকতেই হবে।’ এক সঙ্গে খেলার সময় ক্লার্ক ও ওয়াটসনের মধ্যে একটা দ্বন্দ ছিল। একাধিকবার সেটি মিডিয়াতেও এসেছে। বুকাননের পক্ষ নিয়ে ওয়াটসন কি সেটিই বোঝাতে চাইছেন! গত ইংল্যান্ড সফরে ৩-২এ এ্যাশেজ সিরিজে হারে অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক ক্লার্কের কঠোর সমালোচনা করেন বুকানন। তিনি বলেন, ক্লার্ক আসলে পুরো দলটাকেই ধ্বংস করছে! এ্যাশেজেই অবসর নিয়ে নেন ক্লার্ক। এবার বইয়ে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বুকাননকে ধুয়ে দিলেন তিনি।

‘এ্যাশেজ ডায়েরি’তে সাবেক কোচ বুকাননকে নিয়ে ক্লার্ক লেখেন,‘যে লোকটা একবারও জাতীয় দলে খেলেনি সে ব্যগি গ্রিন (অস্ট্রেলিয়া ক্যাপ) সম্পর্কে কী জানে। সে এখনো এই জিনিসটা বুঝল না যে, সে এমন একটা দলকে কোচিং করিয়েছে যে দলের কোচ হিসেবে যে কেউ সাফল্য পেত। এমনকি আমার কুকুর জেরিকে কোচ বানিয়ে দিলেও অস্ট্রেলিয়া বিশ্বসেরা দলই থাকত!’ এ্যাশেজ ভরাডুবির সূত্রে ক্লার্ক, ওয়াটসন, ক্রিস রজার্স, ব্র্যাড হ্যাডিনসহ এক ঝাঁক অস্ট্রেলিয়ান তারকা অবসর নেন। হ্যাডিন দলে থাকা সত্বেও সিরিজে পিটার নেভিলকে অভিষেকের সুযোগ করে দেয়া হয়। সতীর্থরা বিষয়টা ভালভাবে নেননি বলে উল্লেখ করেন ক্লার্ক।