১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাস্টার্সে ভর্তির আবেদন করতে পারছে না লক্ষাধিক শিক্ষার্থী

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সফটওয়্যারে ত্রুটি

মাকসুদ আহমদ, চট্টগ্রাম অফিস ॥ ত্রুটিপূর্ণ সফটওয়্যারের কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স প্রথম পর্ব (নিয়মিত) কোর্সের ভর্তির আবেদন করতে পারছে না লক্ষাধিক শিক্ষার্থী। অথচ, বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে গত ১১ নবেম্বর। আগামী ২৫ নবেম্বরের মধ্যে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আবেদন করার জন্য ভর্তি নির্দেশিকাও প্রকাশ করা হয়েছে ওয়েবসাইটে। কিন্তু অন লাইনে এ কোর্সে ভর্তির আবেদনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে যে সফটওয়্যার সম্বলিত ওয়েবসাইটও খুলে দেয়া হয়েছে তা ত্রুটিপূর্ণ। ফলে গত দশ দিনেও শিক্ষার্থীরা অন লাইনে আবেদন করতে পারেনি লক্ষাধিক শিক্ষার্থী। এদিকে, ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আর মাত্র ৫ দিন বাকি রয়েছে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ত্রুটিপূর্ণ ওয়েবসাইটের সফটওয়্যারের সমাধান না করে শিক্ষার্থীদের স্বল্প সময়ের মধ্যে ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিরেক্টর পাবলিক রিলেশন ফয়জুল করিমের পক্ষ থেকে। প্রশ্ন উঠেছে, অন লাইনে ভর্তির নির্দেশিকা দিয়ে ত্রুটিপূর্ণ সফটওয়্যারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের হয়রানি করা কতটুকু যৌক্তিক। এ ছাড়াও ওয়েবসাইট প্রস্তুতকারক ও নির্দেশদাতা ওয়েবসাইটের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও কার্যকারিতা সম্পন্ন না করে কিসের ভিত্তিতে ভর্তি নির্দেশিকা দিয়েছেন তাও প্রশ্নবিদ্ধ।

এ ব্যাপারে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দফতরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মোঃ ফয়জুল করিম শুক্রবার সন্ধ্যায় জনকণ্ঠকে জানান, ইনভেলিড রোল নম্বরটির বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার পর রেজিস্ট্রেশন নম্বরের পূর্বে একটি শূন্য সন্নিবেশিত করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি প্রতিবেদককে আরও দুটি মোবাইল নম্বর দিয়েছেন।

অভিযোগ রয়েছে, গত ১১ নবেম্বর থেকে ২০ নবেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের নির্দেশিকা অনুযায়ী কোন শিক্ষার্থী মাস্টার্স প্রথম পর্বের আবেদন পূরণ করতে পারেনি। কারণ, ওয়েবসাইটে সন্নিবেশিত ৬টি ধাপের মধ্যে প্রথম ধাপে শিক্ষার্থী স্নাতক (সম্মান) অথবা স্নাতক (পাস) শ্রেণীর কিনা সে অনুযায়ী সিলেক্ট করতে বলা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে যাওয়ার পর অর্জিত ডিগ্রী অনুযায়ী রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও পাসের সন দেয়ার পর পরবর্তী ধাপে যাওয়ার চেষ্টা করা হলে রোল নম্বরটি অকার্যকর (ইবভেলিড) বলে দেখানো হচ্ছে। অথচ, এই রোল নম্বর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত ২০১৩ সালের প্রবেশপত্র অনুযায়ী ডিগ্রী পাস কোর্সের।

আরও অভিযোগ রয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত এ ওয়েবসাইটের পেইজের ওপরে যে কোন তথ্যের জন্য ৭টি মোবাইল নম্বর দেয়া হয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের এবং এই নম্বরে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত যে কোন জিজ্ঞাসা জানার সুযোগ রয়েছে বলেও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্রের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) ও সদস্য সচিব স্নাতকোত্তর কোর্সসমূহের ভর্তি পরিচালনা কমিটির প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন ও উপ-রেজিস্ট্রার (মাস্টার্স) কর্তৃক স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষে মাস্টার্স প্রথম পর্ব (নিয়মিত) কোর্সে ভর্তির জন্য সারাদেশের ৬৪টি জেলার স্নাতক (পাস) কোর্সের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী গত ১১ নবেম্বর বিকেল ৪টা থেকে আগামী ২৫ নবেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট থেকে প্রার্থীদের আবেদন পূরণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ওয়েবসাইটে আবেদন পূরণের পর ৩শ’ টাকা ফি বাবদ সংশ্লিষ্ট কলেজে ২৬ নবেম্বরের মধ্যে অবশ্যই জমা দেয়ার কথা বলা হয়েছে।