২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লস্করের যোগসাজশে আইএস ভারতে হামলা চালাতে পারে

  • সেনাকর্মকর্তার আশঙ্কা

ইসলামিক স্টেট (আইএস) পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গী সংগঠন লস্কর-ই-তৈয়বার সঙ্গে মিলে ভারতে আক্রমণ চালাতে পারে বলে আশঙ্কা ব্যক্ত করেছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন শীর্ষ কর্মকর্তা। তিনি বলেছেন, স্থানীয় গ্রুপগুলোর যোগসাজশে আইএস ভারতে সন্ত্রাসী হামলা চালাতে পারে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর সিক্সটিন কোরের কমান্ডিং অফিসার লে. জেনারেল আরআর নিমভোরকর বৃহস্পতিবার কাশ্মীরের জম্মুতে বলেন, ‘জিহাদী প্রচারণা ছড়িয়ে দিতে আইএস ভারতে হামলা করতে পারে। নিজেদের নাম প্রচারের জন্য তারা যে কোন কিছুই করতে পারে। ভারতেও প্যারিসের অনুরূপ হামলা চালাতে পারে।’ জঙ্গীরা প্যারিস ধাঁচের হামলা ভারতেও করতে পারে কিনাÑ সে বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্লের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘তারা নিজেদের নাম প্রচারের জন্য যেকোন কিছুই করতে পারে। কাজেই লস্করের সঙ্গে হাত মিলিয়ে আইএস ভারতে হামলা করতে পারেÑ এমন ঝুঁকি উড়িয়ে দেয়া যায় না।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নিমভোরকর বলেন, পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরে প্রায় ৭শ’ সক্রিয় সন্ত্রাসী রয়েছে। এদের প্রায় অর্ধেকসংখ্যক ভারতে অনুপ্রবেশের জন্য তৈরি হয়ে আছে। যেকোন উপলক্ষে তারা ঢুকে পড়তে পারে। কাশ্মীরের ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সীমানা নির্দেশক নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে ৩৭ জঙ্গী প্রশিক্ষণ ক্যাম্প থাকতে পারে। জায়গা উন্মুক্ত হওয়ায় প্রায়ই নতুন নতুন ক্যাম্প খোলা হচ্ছে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে সচেতন রয়েছি, তবে এখন সেখানে ঠিক কতগুলো ক্যাম্প রয়েছে সেটি আমি বলতে পারব না।’ কিছুদিন আগে নাভিদ নামে ধরা পড়া এক জঙ্গীর সূত্র উল্লেখ করে নিমভোরকর জানান যে, পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরে ৩৫ থেকে ৩৭টি জঙ্গী প্রশিক্ষণ ক্যাম্প থাকতে পারে। প্রতিটি ক্যাম্পে ২০ থেকে ৩০ জন করে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। এ হিসাবে প্রায় ৭শ’ সক্রিয় সন্ত্রাসী রয়েছে। তবে এই সংখ্যা বেশিও হতে পারে কমও হতে পারে। আইএস সেখানে আছে কিনা, সে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি নিমভোরকর।

তিনি বলেন, এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা। তিনি মনে করেন, ইন্টারনেট ও সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্কগুলো থাকায় আইএসের পক্ষে নিজেদের মতাদর্শ ছড়িয়ে দেয়া সহজ হচ্ছে।