১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রাণভিক্ষার সিদ্ধান্ত জানতে কারাগারে দুই ম্যাজিস্ট্রেট

প্রাণভিক্ষার সিদ্ধান্ত জানতে কারাগারে দুই ম্যাজিস্ট্রেট

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত একাত্তরের আলবদর প্রধান মুজাহিদ ও চট্টগ্রাম অঞ্চলের নৃশংসতম যুদ্ধাপরাধের হোতা সাকা চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রবেশ করেছেন দু’জন ম্যাজিস্ট্রেট। দেশের এই দুই শীর্ষ দুই যুদ্ধাপরাধীকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরের সব প্রস্তুতি শেষের পথে। এর মধ্যেই কারাগারের ভেতরে ম্যাজিস্ট্রেটের প্রবেশ সেটিকে আরও একধাপ এগিয়ে নিল।

শনিবার সকাল দশটার দিকে কারাগারের ভেতরে ঢুকেছেন ঢাকা জেলা প্রশাসনের দুই ম্যাজিস্ট্রেট মুশফিক ও তানভির। তারা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানতে মুজাহিদ ও সাকা চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছে কারাসূত্র।

সাকা চৌধুরী ও মুজাহিদের ফাঁসি কার্যকর করতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই প্রস্তুত হয়ে আছে ফাঁসির মঞ্চ। আবুল, হজরত, মাসুদ, ইকবাল, রাজু, শাহজাহান ও মুক্তার নামের সাতজন জল্লাদকেও প্রস্তুত রেখেছে কারা কর্তৃপক্ষ যারা ফাঁসির আগে-পরে বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নেবেন।

তবে ফাঁসির আগে সর্বশেষ সুযোগ হিসেবে মুজাহিদ ও সাকা চৌধুরীর সামনে থাকা অপরাধ স্বীকার করে ও প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়টি নিয়ে কালক্ষেপণ করছেন তারা। ইতোমধ্যেই প্রাণভিক্ষা চাইবেন কি-না, তাদের কাছে দু’বার জানতে চেয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। তারা পরিবারের সদস্য ও আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে উল্লেখ করেছেন, যদিও চূড়ান্ত এ ক্ষণে সে ধরনের কোনো সুযোগ নেই আইনে। এ অবস্থায় তৃতীয়বারের মতো প্রাণভিক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানতে ম্যাজিস্ট্রেটদের পাঠিয়েছে প্রশাসন।