২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তারকাময় বিপিএল শুরু আজ

মিথুন আশরাফ ॥ এর আগে দুইবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল-টি২০) হয়েছে। কিন্তু এত তারকা ক্রিকেটার কখনই দেখা যায়নি। যতটা আজ সাকিবের দল রংপুর রাইডার্স ও তামিমের দল চিটাগাং ভাইকিংসের ম্যাচ দিয়ে শুরু হতে যাওয়া বিপিএলের তৃতীয় আসরে দেখা যাবে। দ্বিতীয় আসরে তো কোন পাকিস্তানী ক্রিকেটারই ছিলেন না। এবার শুধু পাকিস্তানই নয়, টেস্ট খেলুড়ে সব দেশের

সঙ্গে আইসিসির সহযোগী দেশের ক্রিকেটাররাও আছেন। সবচেয়ে বড় বিষয়, শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা এর আগে কখনই বিপিএলে খেলেননি। এবার প্রথমবারের মতো খেলবেন। এর সঙ্গে টি২০তে দানবীয় ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল, শহীদ আফ্রিদি, শোয়েব মালিক, মিসবাহ-উল হক, কাইরন পোলার্ডরাও আছেন। তারকাময়ই হতে যাচ্ছে এবারের বিপিএল।

আজ দুই বন্ধু সাকিব-তামিমের দলের লড়াই শেষে সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় আরেকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। যেটিতে সাঙ্গাকারার ঢাকা ডায়নামাইটস ও মাশরাফি বিন মর্তুজার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স মুখোমুখি হবে। ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে বিপিএলের তৃতীয় আসরটি শেষ হবে ১৫ ডিসেম্বর। ভারতের তারকা অভিনেতা হৃত্বিক রোশান ও অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজের পারফর্মেন্সে টুর্নামেন্টের জমকালো উদ্বোধন শুক্রবারই হয়ে গেছে। আজ শুরু হচ্ছে মাঠের লড়াই। পুরো টুর্নামেন্ট বেসরকারী টেলিভিশন ‘চ্যানেল-৯’ সরাসরি দেখাবে।

নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফর স্থগিত করেছে, খেলতে আসেনি। বিপিএলে ব্রাড হজের মতো অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররাও খেলবেন। বিপিএল সফলভাবে আয়োজন হয়ে গেলে নিরাপত্তা নিয়ে কোন সমস্যা যে নেই বাংলাদেশে, তাও বিশ্ববাসীর কাছে বোঝানো যাবে। এত বড়মাপের তারকা ক্রিকেটাররা কোন সমস্যা ছাড়া খেলে যেতে পারলে নিরাপত্তা নিয়ে আর কোন অজুহাতই কোন দলের থাকবে না। এ বিপিএলে এটাই বড় চ্যালেঞ্জ। অবশ্য বাংলাদেশে খেলতে সব বড় তারকা ক্রিকেটার কিংবা বিদেশী ক্রিকেটারই উন্মুখ হয়ে আছেন।

বিপিএলে ৬টি দল অংশ নিচ্ছেÑ ঢাকা ডায়নামাইটস, চিটাগাং ভাইকিংস, রংপুর রাইডার্স, সিলেট সুপার স্টারস, বরিশাল বুলস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। সব দলই বিদেশী তারকা ক্রিকেটার দলে ভিড়িয়েছে। তবে সবার দৃষ্টি রংপুর রাইডার্সের দিকেই আছে। এ দলটিতে যে বিশ্বসেরা টি২০ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান রয়েছেন।

এবার ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজে’ যে পদ্ধতিতে ক্রিকেটার দলে ভেড়ানো হয়েছে, তাতে কোন দলই বেশি শক্তিশালী নয়। এক দল দেশী ক্রিকেটারদের নিয়ে শক্তিশালী, আরেক দল বিদেশীদের দিয়ে শক্তিশালী। তবে বিদেশী ক্রিকেটার দিয়েই ২৩ দিনের টুর্নামেন্টে একেক দল বাজিমাত করে নিতে পারে। ডাবল লীগ পদ্ধতির এ টুর্নামেন্টে ফাইনালসহ মোট ৩৪টি ম্যাচ হবে।

ঢাকা ডায়নামাইটসে দেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে আইকন ক্রিকেটার নাসির হোসেন, শামসুর রহমান শুভ, মুস্তাফিজুর রহমান আর বিদেশী ক্রিকেটার অধিনায়ক সাঙ্গাকারা, নাসির জামশেদ, জেমস ফ্রাঙ্কলিন, রায়ান টেন ডয়েশচেট আছেন। বরিশাল বুলসে দেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে আইকন ক্রিকেটার ও অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে সাব্বির রহমান রুম্মন, শাহরিয়ার নাফীস, নাদিফ চৌধুরী, সোহাগ গাজী, তাইজুল ইসলাম, আল আমিন হোসেন আর বিদেশীদের মধ্যে ক্রিস গেইল, ব্রেন্ডন টেইলর, সেকুগু প্রসন্ন, মোহাম্মদ সামি, কেভন কুপার আছেন। চিটাগাং ভাইকিংসে আইকন ক্রিকেটার ও অধিনায়ক তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, জিয়াউর রহমান, তাসকিন আহমেদ আর বিদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে উমর আকমল, কামরান আকমল, চামারা কাপুগেদারা, এলটন চিগুম্বুরা, সাঈদ আজমল, জীবন মেন্ডিস, মোহাম্মদ আমির আছেন।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে আইকন ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, ইমরুল কায়েস, লিটন কুমার দাস, কামরুল ইসলাম রাব্বি আর বিদেশীদের মধ্যে আহমেদ শেহজাদ, লাহিরু থিরিমান্নে, আন্দ্রে রাসেল, মারলন স্যামুয়েলস, নুয়ান কুলাসেকারা, সুনীল নারিন আছেন। রংপুর রাইডার্সে দেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে আইকন ও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, মোঃ মিঠুন, আরাফাত সানি, মুক্তার আলী আর বিদেশীদের মধ্যে লেন্ডল সিমন্স, কুইনটন ডি কক, ড্যারেন সামি, থিসারা পেরেরা, সচিত্র সেনানায়েকে, ওয়াহাব রিয়াজ, কেভিন ও ব্রায়েন আছেন। সিলেট সুপারস্টারসে আইকন ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম, জুনায়েদ সিদ্দিকী, রুবেল হোসেন, মুমিনুল হক আর বিদেশীদের মধ্যে শহীদ আফ্রিদি, কাইরন পোলার্ড, ব্রাড হজ, জসুয়া কব, রবি বোপারা, ক্রিস জর্ডান, সোহেল তানভির, অজন্থা মেন্ডিস, ফিদেল এডওয়ার্ডস আছেন। দেশী তারকা ক্রিকেটার যেমন আছেন, তেমনি বিদেশী তারকা ক্রিকেটারও প্রতিটি দলে আছেন। এখন দেখা যাক, শেষপর্যন্ত শিরোপা কোন দল জিতে।

বিপিএলের প্রথম দুই আসরে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এবার তৃতীয় আসরে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স নামে কোন দল থাকছে না। ম্যাচ গড়াপেটায় দলটির ফ্র্যাঞ্চাইজি বহিষ্কার হয়েছে। আর তাই নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি নেয়া হয়েছে। এবার বিপিএল সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে, ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক সময়মতো বুঝিয়ে দিতে আগেই দলগুলো থেকে ১ কোটি টাকা পে-অর্ডার ও সাড়ে ৪ কোটি টাকা ব্যাংক গ্যারান্টি নেয়া হয়েছে। এবার বিপিএলে নতুন তিন ফ্র্যাঞ্চাইজি ও পুরনো তিন ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকছে। নতুন-পুরনো সব ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মধ্যেই শিরোপা জয়ের আকাক্সক্ষা থাকছে। সেই আকাক্সক্ষা কোন ফ্র্যাঞ্চাইজির পূর্ণ হয়, শেষ হাসি কোন ফ্র্যাঞ্চাইজির মুখে ফুটে- তা আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া বিপিএলের তৃতীয় আসর শেষ হতেই বোঝা যাবে।

নির্বাচিত সংবাদ