২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নৌবাহিনীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

মহান সশস্ত্র বাহিনী দিবস ২০১৫ উদ্যাপন উপলক্ষে শনিবার নৌবাহিনীর খেতাবপ্রাপ্ত ২১ বীর সদস্যকে সংবর্ধনা দিয়েছেন নৌপ্রধান ভাইস এডমিরাল এম ফরিদ হাবিব। এ উপলক্ষে বনানীর নৌসদর সাগরিকা হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ রুহুল আমিনের পরিবারসহ পাঁচজন বীর উত্তম, সাতজন বীর বিক্রম, আটজন বীর প্রতীক মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তান ও পরিবারবর্গের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ রুহুল আমিন, ইআরএ-১ এর কন্যা নূরজাহান বেগম, মুক্তিযোদ্ধা কমোডর আব্দুল ওয়াহেদ চৌধুরী, বিএন (অব) বীর উত্তম, বীর বিক্রম, লেঃ কমান্ডার মোঃ জালাল উদ্দিন, বিএন (অব) বীর উত্তম ও মরহুম আফজাল মিয়া, ইআরএ-১ (অব) বীর উত্তমের স্ত্রী মরিয়ম আফজালসহ উপস্থিত খেতাবপ্রাপ্তদের হাতে সম্মাননা তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে একাত্তরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এক্সারসাইজ ঈগল আই সমাপ্ত ॥ বাংলাদেশ সামরিক প্রশিক্ষণ এলাকার (ভিজিডি-২৮) হলুদিয়া, বান্দরবানে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর আকাশ থেকে ভূমিতে গোলাবর্ষণ মহড়া ‘এক্সারসাইজ ঈগল আই-২০১৫-৪’ শনিবার সমাপ্ত হয়েছে। মহড়ায় বিমানবাহিনীর বিভিন্ন যুদ্ধবিমান, পরিবহন বিমান এবং এমআই সিরিজের হেলিকপ্টার অংশগ্রহণ করে। মহড়ায় আকাশ হতে ভূমিতে গোলাবর্ষণের পাশাপাশি আকাশযুদ্ধের বিভিন্ন রণকৌশল, বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর যুদ্ধ সক্ষমতা মূল্যায়ন এবং এর দুর্বলতাসমূহ চিহ্নিত করে আরও উন্নত প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার অনুশীলন করা হয়। বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর উল্লিখিত বিমানের বৈমানিকগণ ও বিভিন্ন পদবীর বিমানবাহিনীর সদস্যগণ মহড়ায় সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে। -আইএসপিআর

বিপুল সিআর কয়েলের চালান জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শুল্ক গোয়েন্দারা একটি সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে মিথ্যা ঘোষণায় বন্ডেড সুবিধার আওতায় আনা বিপুল পরিমাণ সিআর কয়েলের চালান জব্দ করে। রাজধানীর চুনকুটিয়া এলাকার তিনটি স্টিল কাটিং ফ্যাক্টরীতে অভিযান চালিয়ে এ সব জব্দ করা হয়।

জানা যায়, শুল্ক গোয়েন্দার সহকারী পরিচালক ইমাম গাজ্জালি ও তারিক মাহমুদের নেতৃত্বে শনিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় মুরসালিন কাটিং সেন্টার, টিন ঢেউ কাটিং সেন্টার ও ক্রাউন কাটিং সেন্টারে হানা দিয়ে বিপুল পরিমাণ সি আর কয়েলের সন্ধান পায় তারা। এ সব কয়েল বৈধ ভাবে আমদানি করার সাপেক্ষে কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেনি তারা। শুল্ক গোয়েন্দার মহাপরিচালক ডক্টর মইনুল খান জানান-ওই ফ্যাক্টরিগুলোতে বিপুল পরিমাণ মালামাল পাওয়া গেছে। এগুলো তাৎক্ষণিক আনার কোন সুযোগ না থাকায় আপাতত বাংলাদেশ আয়রন এ্যান্ড স্টিল ইমপোর্টার এ্যাসোসিয়েশনের জিম্মায় ওই প্রতিষ্ঠানে জব্দ রাখা হবে। অভিযানের সহায়তাকারী স্টিল ইমপোর্টার এ্যাসোসিয়েশনের দুই নেতা বলেন- আবুল খায়ের স্টিল মিল নামের একটি প্রতিষ্ঠান এসব মাল বন্ডেড সুবিধার আওতায় মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে এনে খোলাবাজারে বিক্রি করার সময় এলাকাবাসী হাতেনাতে ধরে ফেলে।