২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পেনাল্টি শূট আউটে বাংলাদেশ হারাল ওমানকে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মালয়েশিয়ার কুয়ানটানে চলমান জুনিয়র এশিয়া কাপ হকির পঞ্চম-ষষ্ঠ স্থান নির্ধারণী ম্যাচে বাংলাদেশ শনিবার টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে হারিয়েছে ওমানকে। নির্ধারিত সময়ে খেলাটি ২-২ গোলে ড্র হয়। দিনটি বাংলাদেশের জন্য ছিল সৌভাগ্যময়। কেননা, নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হবার ঠিক আগে ফরোয়ার্ড মিলন হোসেন গোল করলে বাংলাদেশ স্কোর ২-২ করতে সক্ষম হয়।

খেলার ৩১ মিনিটে রোমান সরকার পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেন (১-০)। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছিল বাংলাদেশই। কিন্তু তিন মিনিটের এক ওমান-ঝড়ে সবকিছু শেষ হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। ৬৪ মিনিটে সালমিন আল নোফালি পেনাল্টি কর্নার থেকে করেন ওমানের পক্ষে সমতাসূচক গোলটি (১-১)। ৬৭ মিনিটে শাফি আল শাতারি ফিল্ড গোল করে ওমানকে নিয়ে যান জয়ের দ্বারপ্রান্তে (২-১)। খেলার শেষ দিকে ৭০ মিনিটে বাংলাদেশের ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভূত হন মিলন হোসেন। একেবারে শেষ মিনিটে করা তার ফিল্ড গোলটি বাংলাদেশকে বাঁচিয়ে দেয় (২-২। উজ্জীবিত বাংলাদেশকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

পেনাল্টি শূট আউটে প্রথম আর শেষটিতে গোল করতে সক্ষম হয় ওমান। প্রথম, তৃতীয় ও পঞ্চমটিতে গোল করে বাংলাদেশ হাসে জয়ের হাসি। বাংলাদেশের পক্ষে পেনাল্টিতে গোল করেন ফরহাদ শিটুল, সাব্বির হোসেন এবং ফজলে রাব্বি। আর মিস করেন রোমান সরকার এবং আশরাফুল ইসলাম। ওমানের পক্ষে গোল করেন শাফি আল শাতারি এবং মুহান্না আল হাসনি। মিস করেন আম্মার আল শাইবি, মোহাম্মদ আল লাওয়াতি এবং সালমিন আল নোফালি।

রবিবার মালয়েশিয়ার বিপক্ষে পঞ্চম-ষষ্ঠ স্থান নির্ধারণী ম্যাচটি খেলবে লাল সবুজরা। মালয়েশিয়া চীনকে ৫-১ গোলে হারিয়ে দেয় দিনের প্রথম ম্যাচে।

এর আগে কোয়ার্টার ফাইনালে জাপানের কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয় বাংলাদেশের যুবাদের। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে তারা ৩-০ গোলে হেরে যায় জাপানের কাছে। এই জয়ে জাপান জায়গা করে নেয় সেমিফাইনালে। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ভারত। এই হারের ফলে সেমিতে খেলার যে সুনীল স্বপ্ন নিয়ে দেশ ছেড়েছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা, সেটি আর হয়ে ওঠেনি। যদিও টুর্নামেন্টের শুরুটা খুব ভাল হয়নি বাংলাদেশের। প্রথম ম্যাচেই তারা ৩-১ গোলে হেরে যায় পাকিস্তানের কাছে। তবে পরের দুই ম্যাচে ওমান (৫-৪) ও শক্তিধর দক্ষিণ কোরিয়াকে (২-০) হারিয়ে কোয়ার্টারের টিকেট পায় লাল-সবুজরা। স্বল্প সময়ের প্রস্তুতিতে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হয় বাংলাদেশকে। অথচ এই ম্যাচ জিতে সেমিতে যেতে পারলে নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশ যুব বিশ্বকাপ হকিতে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারত। সেটি আর হয়নি! আগামী বছর ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে যুব হকি বিশ্বকাপ। ভারত স্বাগতিক হওয়ায় যুব এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে পৌঁছায়, অপর ৩টি দল এই আসরের ছাড়পত্র পাবে। সেই হিসেবে জাপানকে হারাতে পারলেই বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নটা পূরণ হত বাংলাদেশের। কিন্তু জাপানের কাছে হেরে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন চুরমার হয়ে যায় মাহবুব হারুনের শিষ্যদের।

এখন মালয়েশিয়াকে হারিয়ে পঞ্চম হয়ে সান্তনার জয় কুড়িয়ে নিয়ে দেশে ফিরতে হবে বাংলাদেশকে। আজ সেটা তারা পারবে কি?