২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিউজিল্যান্ডে ভর্তি তথ্য

  • নোটিশ বোর্ড

উচ্চশিক্ষার জন্য শিক্ষার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে এখন ওশেনিয়া মহাদেশের দেশ নিউজিল্যান্ড। উন্নত শিক্ষাব্যবস্থা, সচ্ছল অর্থনীতি ও সামাজিক নিরাপত্তার কারণে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের তরুণ শিক্ষার্থী ও পেশাজীবীরাও নিউজিল্যান্ডকে রাখছেন উচ্চশিক্ষার সম্ভাব্য গন্তব্যের তালিকায়।

শিক্ষাব্যবস্থা ॥ নিউজিল্যান্ডে উচ্চশিক্ষা বা Tertiary Education-এর জন্য মূলত তিন ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়, পলিটেকনিক এবং বেসরকারী প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রধানত গবেষণাভিত্তিক বিভিন্ন স্তরের ডিগ্রী ও সার্টিফিকেট প্রদান করে থাকে, যেমন- ডিপ্লোমা, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী। অন্যদিকে পলিটেকনিকগুলো মূলত কারিগরি ও ব্যবহারিক শিক্ষার জন্য প্রসিদ্ধ। এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো Certificate, Advanced Certificate, Diploma, Graduate Diploma, Bachelors, Post Graduate Diploma, Master ইত্যাদি ডিগ্রী প্রদান করে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রী ন্যূনতম দুই বছরের হলেও পলিটেকনিকে ছয় মাস/এক বছর মেয়াদী অনেক কোর্স থাকার কারণে সাধারণত পলিটেকনিকগুলোতে মোট খরচ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক কম হয়ে থাকে।

সল্পমেয়াদে ও সল্পখরচে উন্নত ফলিত শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে পলিটেকনিকগুলো Engineering, IT, Business, Hospitality & Tourism প্রভৃতি সেক্টরে যথেষ্ট সমাদর লাভ করেছে। যেহেতু ওই সেক্টরগুলোর কর্মক্ষেত্রে গবেষণার তেমন প্রয়োজন পড়ে না তাই ওঞচ/চঞঊ থেকে পড়াশোনা শেষ করে খুব সহজেই নামীদামী কোম্পানিতে ইন্টার্নশিপ ও চাকরির সুযোগ পায় দেশ-বিদেশের শিক্ষার্থীরা।

যোগাযোগ : ওভারসিজ এমবিশন সলিউশন লিমিটেড। সুইট-ডি-৪ (৪র্থ তলা), বিটিআই সেন্ট্রাল প্লাজা, ৯৫ গ্রীন রোড, ফার্মগেট, ঢাকা। ফোন : ০২-৯১১৫৪৪৪, ০১৭৯৩১২২২২২।

সুযোগ-সুবিধা: ১. পড়াশোনার পর মাত্র দুই বছর চাকরি করেই নিউজিল্যান্ডে পিআরের জন্য আবেদন করা যায়। ২. বিশ্বমানের উচ্চশিক্ষা ও স্থায়ী বসবাস, সেই সঙ্গে পড়াশোনা শেষে Permanent Residence-এর সুযোগ। ৩. NEW ZEALAND-এর অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয় World Ranking-এ ২০০-এর মধ্যে রয়েছে। ৪. সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা কাজের সুযোগ রয়েছে। ভ্যাকেশনের সময় একজন স্টুডেন্ট ফুলটাইম কাজ করতে পারে। ৫. পড়াশোনা শেষ হওয়ার পর কাজের অনুমতি পাওয়া যায়। কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে এরপর Permanent Residence (PR)-এর জন্য আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক