২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুষ্ঠু পরিবেশেই দেশব্যাপী প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা শুরু

সুষ্ঠু পরিবেশেই দেশব্যাপী প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা শুরু
  • আজকের পরীক্ষা অনিবার্য কারণে ৩০ নবেম্বর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কোনরকম জটিলতা ছাড়া সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই দেশব্যাপী শুরু হলো প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা। দেশের সর্ববৃহৎ এ পাবলিক পরীক্ষায় গত দুই বছর প্রশ্ন ফাঁসসহ নানা বিষয় নিয়ে বিতর্ক উঠলেও এবার সে অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এদিকে যুদ্ধাপরাধী মুজাহিদের জন্য জামায়াতের ডাকা হরতালে আজকের বাংলা পরীক্ষা পিছিয়ে গেছে। এ পরীক্ষা আগামী ৩০ নবেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এবার বিশেষ ব্যবস্থায় প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, মুদ্রণ ও বিতরণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় রেকর্ডসংখ্যক ৩২ লাখ ৫৪ হাজার ৫১৪ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। তবে নিবন্ধন করেও পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছিল এক লাখ ৪৯ হাজার ৮৯৬ জন।

রবিবার প্রথম দিন হয়েছে ইংরেজী পরীক্ষা। প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শনকালে বলেছেন, প্রাথমিক শিক্ষার স্তর অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত হওয়ার পর এ সমাপনী পরীক্ষা থাকবে কিনা, তা ভেবে দেখা হবে। কেন্দ্র পরিদর্শন করে মন্ত্রী নতুন প্রজন্মের কথা চিন্তা করে পরীক্ষার মাঝে হরতালের মতো কোন ধ্বংসাত্মক কর্মসূচী পরিহারের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি সকালে মতিঝিলে আইডিয়াল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং খিলগাঁও সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ও খিলগাঁও গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় তার সঙ্গে ছিলেনÑ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মেছবাহ উল আলম, অতিরিক্ত সচিব জ্ঞানেন্দ্র নাথ বিশ্বাস ও নজরুল ইসলাম খান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ আলমগীর এবং ঢাকা বিভাগীয় উপ-পরিচালক শাহ সুফি মোঃ আলী রেজা প্রমুখ।

পরিদর্শনকালে মন্ত্রী কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষমাণ অভিভাবকদের সঙ্গে কুশলবিনিময় করেন। মন্ত্রী কোন কেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করেননি। বাইরে দাঁড়িয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, পরিদর্শক ও কর্তব্যরত কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরীক্ষার সার্বিক বিষয় নিয়ে কথা বলেন। এসময় সাংবাদিকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, সমাপনী পরীক্ষা সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পন্নের জন্য ৬৪ জেলাকে আটটি গ্রুপে বিভক্ত করে লটারীর মাধ্যমে প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হয়েছে। প্রতিবছরই পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ পরীক্ষার সময় দেশ উৎসবে পরিণত হয়। মাঠ পর্যায়ের প্রশাসন ও প্রাথমিক শিক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তারা আনন্দঘন পরিবেশে এ পরীক্ষা দক্ষতা ও স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পন্ন করে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, বিগত বছরের ন্যায় এবারও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও শিক্ষকরা এ বিশাল পরীক্ষা সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পন্ন করবে।

এক প্রশ্নের জবাবে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আগে কিছু দুষ্ট মানুষের দুষ্টবুদ্ধির কারণে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা ঘটেছিল। তাদের দুষ্টবুদ্ধি অকার্যকর করতে এবার ৮টি প্রশ্নের সেট তৈরি এবং সেগুলো সুকৌশলে আটটি ভাগে ভাগ করে বিতরণ করা হয়েছে। দেশে রাজনৈতিক কোন অস্থিরতা নেই, শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা চলছে। হরতালে কিছু দুষ্ট লোক ছোটখাটো ঝামেলা করলে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই আগামীকালের (আজ সোমবার) পরীক্ষা পিছিয়ে ৩০ নবেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।

এদিকে বরাবরের মতো এবারও রাজধানী থেকে শুরু করে গ্রামপর্যন্ত স্কুলকে কেন্দ্র করে ছিল একই আমেজ। জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কেন্দ্রগুলোতে অভিভাবকদের ভিড় তুলনামূলক কম হলেও রাজধানীসহ শহরের কেন্দ্রজুড়ে ছিল অভিভাবক, বিশেষত মায়েদের ভিড়। দুপুরে খিলগাঁও গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেল অভিভাবকরা বসে আছেন সন্তানের পরীক্ষার উৎকণ্ঠা নিয়ে। স্কুলের বাইরে রীতিমতো যানজট লেগে গিয়েছিল। সন্তানের অপেক্ষায় বাইরে দাঁড়িয়েছিলেন শত শত অভিভাবক। ফার্মগেটে হলিক্রস ও বটমলী স্কুলের সামনেও ছিল একই অবস্থা।

এবার সমাপনীর প্রতিটি পরীক্ষা বেলা এগারোটা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। তবে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন পরীক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় বেশি রাখা হয়েছে। পরীক্ষা শেষ হবে ২৯ নবেম্বর। সাত হাজার ৫২ কেন্দ্রে পরীক্ষা হচ্ছে। প্রাথমিক সমাপনীর জন্য দেশের বাইরে ১১ কেন্দ্র্রে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। মোট ছয় বিষয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে। প্রতি বিষয়ে ১০০ করে মোট ৬০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এ বছর সাধারণ পঞ্চম শ্রেণীর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ২৯ লাখ ৪৯ হাজার ৬৩ ও মাদ্রাসার ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনীতে তিন লাখ পাঁচ হাজার ৪৫১ ছাত্রছাত্রী অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষায় ছাত্রের চেয়ে ছাত্রীর সংখ্যা দুই লাখ ৩৫ হাজার ৯৫৩ বেশি। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ১৩ লাখ ৫৬ হাজার ৫৫৫ ছাত্র এবং ১৫ লাখ ৯২ হাজার ৫০৮ ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। ইবতেদায়ীতে এক লাখ ৬০ হাজার ৫৬১ ছাত্র এবং এক লাখ ৪৪ হাজার ৮৯০ ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

পরীক্ষার সময়সূচী ॥ প্রাথমিক সমাপনীতে ২২ নবেম্বর ইংরেজী, ২৪ নবেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, ২৫ নবেম্বর প্রাথমিক বিজ্ঞান, ২৬ নবেম্বর ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এবং ২৯ নবেম্বর গণিত, ৩০ নবেম্বর বাংলা পরীক্ষা হবে। ইবতেদায়ী সমাপনীতে ২২ নবেম্বর ইংরেজী, ২৪ নবেম্বর পরিবেশ পরিচিতি সমাজ ও পরিবেশ পরিচিতি বিজ্ঞান, ২৫ নবেম্বর আরবী, ২৬ নবেম্বর কুরআন ও তাজবীদ এবং আকাঈদ ও ফিকহ্, ২৯ নবেম্বর গণিত ও ৩০ নবেম্বর বাংলা পরীক্ষা হবে।