১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে কর্মসূচী প্রত্যাহার

  • এমপিওভুক্তির আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এমপিওভুক্তির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসের প্রেক্ষিতে টানা ২৬ দিন ধরে চলা অবস্থান কর্মসূচী প্রত্যাহার করেছেন নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা। রবিবার নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করলে সেখানে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর ইতিবাচক অবস্থানের কথা জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আবুল কালাম আজাদ। এরপরই কর্মসূচী প্রত্যাহার করে চলে গেছেন আন্দোলনকারীরা।

রবিবার সকাল ১০টা থেকে কয়েক শ’ শিক্ষক প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে অবস্থান নেন। ফলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এমন অবস্থায় সেখানে আসেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আবুল কালাম আজাদ এমপি। তার বক্তব্যের পরই আন্দোলন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেন শিক্ষকরা। এর আগে এমপিওভুক্ত করার ঘোষণা ছাড়া জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে কোথাও যাবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন শিক্ষক কর্মচারীরা। শনিবারও লাগাতার অবস্থান কর্মসূচীর ২৫তম দিনে এমপিওর দাবিতে কাফনের কাপড় মাথায় বেঁধে আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন। শিক্ষকরা বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আশ্বাস না পাওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন থেকে নড়বেন না। শিক্ষকরা তাদের সমস্যার কথা উল্লেখ করে বলেছেন, নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় এক লাখ ২০ হাজার শিক্ষক কর্মচারী ১০Ñ১৫ বছর ধরে বিনা বেতনে চাকরি করায় তাদের মানবেতর জীবনযাপন করতে হচ্ছে। গত ৫ বছর ধরে আন্দোলন চললেও সরকার তাদের দাবি বাস্তবায়ন করছে না। শিক্ষকরা জানান, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদ্রাসার প্রায় ৮ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারী স্বীকৃতিপ্রাপ্ত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা বছরের পর বছর ধরে বিনা বেতনে চাকরি করে আসছেন। অর্থবরাদ্দ না থাকার অজুহাত দেখিয়ে সরকার স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করছে না। শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেও আশ্বাস ছাড়া কোন অগ্রগতি জানাতে পারেননি তিনি। আন্দোলনে যোগ দিতে আসা বরিশাল বাবুগঞ্জ রাকুদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক সোহরাব হোসেন বলেন, ১৩ বছর ধরে শিক্ষকতা করছি কিন্তু বিনিময়ে কিছুই পাইনি। এখন সংসারে ছেলেমেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। একই দাবি করেছেন যশোরের জিসিবি আদর্শ কলেজের অধ্যক্ষ আবু জাফর। তিনিও ১৫ বছর ধরে শিক্ষকতা করছেন এমপিওর আশায়। শিক্ষক ও কর্মচারীরা এর আগে ২৬ ও ২৭ অক্টোবর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ও ২৮Ñ২৯ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেন। এরপর ৩০ অক্টোবর থেকে ৪ নবেম্বর পর্যন্ত লাগাতার অনশন কর্মসূচী পালন করেন তারা। অনশন কর্মসূচীতে কয়েকজন শিক্ষক ও কর্মচারী অসুস্থ হয়ে পড়ায় অনশন কর্মসূচী সাময়িক প্রত্যাহার করে ৫ নবেম্বর থেকে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেন তারা। সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ এশারত আলী

কর্মসূচী প্রত্যাহারের বিষয়ে বলেন, কর্মসূচী চলাকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আবুল কালাম আজাদ এমপি এসেছিলেন। তিনি আমাদের বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এমপিওভুক্ত করার আশ্বাস দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীই তাকে পাঠিয়েছেন বলে জানান আবুল কালাম আজাদ। আমরা কর্মসূচী প্রত্যাহার করে সোমবার থেকেই ক্লাসে যোগ দিব।