২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৭৫ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের দুই পুঁজিবাজারে (সিএসই) রবিবার সূচকের উত্থানে শেষ হয়েছে লেনদেন। একইসঙ্গে গত কার্যদিবসের তুলনায় দুই বাজারেই লেনদেনের পরিমাণ বেড়েছে। তবে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) মোট ৭৫ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সেখানে সব ধরনের সূচকই বেড়েছে ১ দশমিক ৪০ শতাংশ।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, রবিবারে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে আবারও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে চতুর্থবারের মতো দেরিতে লেনদেন শুরু হয়। বেলা বারোটায় লেনদেন শুরুর পর তা চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত। তবে পুরো চার ঘণ্টাই লেনদেন সম্পন্ন হয়েছে।

অন্যদিকে দিনটিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে দুই দেশের নিয়ন্ত্রক সংস্থার মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা সমঝোতা চুক্তিতে সই করেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন ও ভারতের পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার (সেবি) চেয়ারম্যান উপেন্দ্র কুমার সিনহা। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সহায়তা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন।

দেরিতে লেনদেন শুরু হলেও সূচক ও লেনদেনের গতি কিছুটা ভাল ছিল। দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৩০ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার, যা আগের দিনের তুলনায় ২৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪০৩ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৩৫টির, কমেছে ৪৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির শেয়ার দর।

সারাদিন সূচক বৃদ্ধির শেষে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ৬৫ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৫৯৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১০৭ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৪৫ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো : সাইফ পাওয়ারটেক, ইফাদ অটোস, বেক্সিমকো ফার্মা, ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, এএফসি এ্যাগ্রো বায়োটেক লি:, কেডিএস অ্যাক্সেসরিজ, স্কয়ার ফার্মা, বিএসআরএম স্টিলস লি:, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবউশন কোম্পানি এবং খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আফতাব অটোস, ডেল্টা লাইফ, ফার কেমিক্যাল, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন, বঙ্গজ, আল আরাফাহ ব্যাংক, সায়হাম কটন, সি এ্যান্ড এ টেক্সটাইল, সালভো কেমিক্যাল ও আরএসআরএম স্টিল।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ফু-ওয়াং ফুড, ন্যাশনাল পলিমার, মডার্ন ডাইং, সায়হাম টেক্সটাইল, ফিক্সড বাংলাদেশ ১ম ইনকাম ফান্ড, বারাকা পাওয়ার, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স, সেন্ট্রাল ফার্মা, দেশ গার্মেন্টস ও বিডি কম।

একইসঙ্গে চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে (সিএসই) ৩১ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ১৩৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৯৭২ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬০টির, কমেছে ৪৩টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

ডিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইফাদ অটোস, সাইফ পাওয়ার, ফার কেমিক্যাল, কেডিএস এক্সেসরিজ, সি এ্যান্ড এ টেক্সটাইল, বেক্সিমকো ফার্মা, বিএসআরএম লিমিটেড, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন, তিতাস গ্যাস ও আমান ফিড।