২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাগপুরেও ঘূর্ণি পিচ

  • বুধবার শুরু ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা তৃতীয় টেস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভারতের মাটিতে ক্রিকেট, আর পিচ নিয়ে আলোচনা হবে না, তা কি হয়? সেই মোহালির প্রথম টেস্ট থেকে শুরু, ক্রমশ আলোচনাটা যেন বিশাল এক সভায় রূপ নিয়েছে! ব্যাঙ্গালুরুতে বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্টেও আকর্ষণের কেন্দ্র ছিল উইকেট। যেখানে ৫৯ ওভারে ২১৪ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। সফরকারীদের ১০ উইকেটের ৮টিই ভাগাভাগি করে নেন দুই স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন আর রবিন্দ্র জাদেজা। বৃষ্টির জন্য পরের চারদিন ভেস্তে গেলে ম্যাচটি অবশ্য ড্র হয়। তার আগে মোহালিতে ১০৮ রানের বড় জয়ে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে বিরাট কোহলির দল। সেখানেও দু’দলের ৪০ উইকেটের ৩৪টিই নেন স্পিনাররা! ম্যাচসেরা জাদেজা। বুধবার থেকে নাগপুরে শুরু তৃতীয় টেস্ট। সিরিজের এ পর্যায়ে ম্যাচটি মহাগুরুত্বপূর্ণ।

এখানেও সবার আগে আলোচনায় পিচ। স্বাগতিক ভারত অধিনায়ক কোহলি যেমন বলেছেন, নিজেদের মাটিতে নিজেদের মতো স্পিন-বান্ধব পিচই চাইবেন তিনি। অন্যদিকে অতিথি তারকা জেপি ডুমিনির বক্তব্য, স্বাগতিক স্পিন সামলে সাফল্য তুলে নেয়ার সামর্থ্য ঠিকই দক্ষিণ আফ্রিকার রয়েছে। খুব বাড়িয়ে বলেননি। টেস্ট শুরুর আগে এই স্পিন সামলেই টি২০ আর ওয়ানডে দু’টি সিরিজ পকেটে পোরে প্রোটিয়ারা। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বেঙ্গালুরুর মতো নাগপুরে বৃষ্টির শঙ্কা নেই বলে কোহলি সিরিজটাকে ২-০তে এগিয়ে যেতে চাইছেন। সুতরাং প্রতিপক্ষ ব্যাটিংলাইন দুমড়ে-মুচড়ে দিতে এখানেও যে স্পিন-বান্ধব পিচই চাইবেন, সেটি বলার অপেক্ষা রাখে না। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অধিনায়কের চাওয়া মতোই তৈরি হচ্ছে তৃতীয় টেস্টের পিচ।

আরও একবার অশ্বিন-জাদেজার স্পিন জুটির সাহায্যে অতিথি ব্যাটসম্যানদের বিপদে ফেলতে চাইছেন কোহলি। ‘পৃথিবীর সব দেশই টেস্টে নিজেদের পছন্দ মতো পিচ বানায়, তবে আমরা কেন নয়? আমি চাইব নাগপুরের প্রথমদিন থেকেই যেন পিচে স্পিন ধরে। কারণ আমাদের হাতে একাধিক বিশ্বমানের স্পিনার রয়েছে।’ বৃষ্টিতে ভেস্তে গেলেও দ্বিতীয় টেস্টের একটি মাত্র ইনিংস তাকে আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে। কোহলি যেমন বলেন, ‘ব্যাঙ্গালুুরুর ঐতিহ্য ভেঙ্গে আমি যখন ফিল্ডিং বেছে নেই, অনেকেই অবাক হন। কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে বোলারদের ওপর আমার আস্থা ছিল। জানতাম ওরা কি করতে পারে। যেটা প্রথম ম্যাচেও করে দেখিয়েছিল। দুই ঘূর্ণিবোলার অশ্বিন-জাদেজা দু’জনই দুরন্ত বল করেছে। তবে নাগপুরে কেন নয়? আমরা সুবিধা মতো স্পিন পিচই চাইছি। মোহালি থেকে ব্যাঙ্গালুরু- মাঠে প্রতিটি দিন ছিল আমাদের দখলে। দু’টি ম্যাচ থেকেই ছেলেরা বাড়তি আত্মবিশ্বাস পেয়েছে। যা তৃতীয় টেস্টে কাজে লাগবে।’

অন্যদিকে পিচ যে স্পিন সহায়কই হতে চলেছে, সেটি জেনেই লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হাসিম আমলার সাদা পোশাকের দক্ষিণ আফ্রিকা শিবির। তবে টি২০-ওয়ানডে জয়ের পর প্রথম ও দ্বিতীয় টেস্টের একমাত্র ইনিংসে প্রোটিয়াদের ব্যাটিং ব্যর্থতা অধিনায়কের জন্য চিন্তার বিষয়। অতিথিরা ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। ‘টেস্টে আমরা এ পর্যন্ত মোটেই ভাল ব্যাটিং করিনি। তার অর্থ এই নয় ম্যাচটা হাতছাড়া হয়ে গিয়েছিল। পাশাপাশি চার টেস্টের সিরিজে ১-০তে পিছিয়ে থাকার মানেও হেরে যাওয়া নয়। এখনও আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ রয়েছে। আমরা সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে সেটাই করতে চাই।’ বলেন আমলা।