২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেষটাও সার্বিয়ার জোকোভিচের

  • রজার ফেদেরারকে হারিয়ে এটিপি ট্যুর ফাইনালসের শিরোপা জিতলেন টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি রজার ফেদেরার। অসাধারণ সব পারফর্মেন্সের সৌজন্যে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। কিন্তু বর্তমানে টেনিস কোর্টে নিজেকে পুরোপুরি মেলে ধরতে ব্যর্থ হচ্ছেন। তার প্রমাণ দেখা গেল এটিপি ট্যুর ফাইনালসেও। যে জোকোভিচকে গ্রুপ পর্বে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দিয়েছিলেন ফেদেরার। সেই জোকোভিচই ওয়ার্ল্ড ট্যুর ফাইনালসের ফাইনালে পুরনো ‘শত্রু’কে ঠিকই হারিয়ে দিলেন। রবিবার টুর্নামেন্টের ফাইনালে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান তারকা জোকোভিচ ৬-৩ এবং ৬-৪ গেমে ফেদেরারকে হারিয়ে রেকর্ড বইয়ের আরও একটি শাখায় নাম লেখালেন। ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টানা চারবার এটিপি ওয়ার্ল্ড ট্যুর ফাইনালসের শিরোপা জিতলেন সার্বিয়ান এই টেনিস তারকা।

গ্রুপ পর্বে হারলেও ফাইনালে ফেদেরারকে সহজেই হারিয়ে দেন নোভাক জোকোভিচ। লন্ডনের জিরো টু এ্যারেনায় প্রথম সেটটি ৬-৩ গেমে জিতে নেন বিশ্বের এক নাম্বার খেলোয়াড়। তবে সার্বিয়ান তারকার বিপক্ষে ম্যাচে ফিরতে পরের সেটে ফেদেরার প্রতিরোধ গড়ার আপ্রাণ চেষ্টা করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হন ফেড এক্সপ্রেস। বরং সার্বিয়ান তারকা ৬-৪ গেমে সুইজারল্যান্ডের টেনিস কিংবদন্তিকে পরাজিত করে শিরোপা নিশ্চিত করেন।

২০১৫ সালটা জোকোভিচের সেরা বছর। সাফল্যে মোড়ানো এক বছর। তিনটি গ্র্যান্ডসøামসহ মোট ১১টি শিরোপা জিতে মৌসুম শেষ করলেন ২৮ বছর বয়সী এই সার্বিয়ান। চলতি বছর ৮২ ম্যাচে জয়ের বিপরীতে জোকোভিচ হেরেছেন মাত্র ৬টিতে। দুইদিন আগে ফেদেরারের কাছে হেরেছিলেন শেষবার। এই টুর্নামেন্টের রবিন রাউন্ডে এটি ছিল তার টানা ২৩ ম্যাচ জয়ের পর প্রথম হার। এ বছরই ক্যালেন্ডার গ্র্যান্ডসøাম জয়েরও হাতছানি ছিল জোকোভিচের সামনে। চারটি গ্র্যান্ডসøামের তিনটিই (অস্ট্রেলিয়ান, উইম্বলডন ও ইউএস ওপেন) জেতেন তিনি। শুধু ফ্রেঞ্চ ওপেনের ট্রফিটা উচিয়ে ধরতে পারেননি শীর্ষ তারকা। তবে দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিলেন ঠিকই। সেই টুর্নামেন্টের ফাইনালে রজার ফেদেরারেরই স্বদেশী তারকা স্টানিসøাস ওয়ারিঙ্কার কাছে শিরোপা হাতছাড়া হয়ে যায় তার। কিন্তু তাতে মোটেও আফসোস নেই সার্বিয়ান খেলোয়াড়ের। মোটকথা সব মিলিয়ে বছরটা স্মরণীয় হয়েই থাকবে নাম্বার ওয়ান তারকার।

তবে এটিপি ট্যুর ফাইনালসে খেলার স্বপ্নটা শৈশব থেকেই দেখতেন জোকোভিচ। ফেদেরারকে হারানোর পরই স্বীকার করেছেন তা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কোর্টের প্রতিটি মুহূর্তই উপভোগ করেছি। এখানে খেলার ইচ্ছেটা শৈশব থেকেই ছিল।’

মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরেলেন ব্লাটার!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মে মাস থেকে শুরু; এখনও ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে সেপ ব্লাটারকে। আর তা করতে গিয়েই প্রচ- স্নায়ুর চাপে অসুস্থ হয়ে পড়েন বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি সেপ ব্লাটার। তবে বর্তমানে কিছুটা সুস্থ সুইজারল্যান্ডের তুখোড় এই সংগঠক। তবে সেপ ব্লাটার জানিয়েছেন, তিনি নাকি মৃত্যুর খুব কাছাকাছিই চলে গিয়েছিলেন। এ বিষয়ে এক সাক্ষাতকারে সেপ ব্লাটার বলেন, ‘আমি মৃত্যুর খুবই কাছাকাছি চলে গিয়েছিলাম। আমি তখন দুই ফেরেশতার মাঝে ছিলাম যাদের একজন স্বাক্ষর করছেন এবং অন্যজন আগুন জ্বালাচ্ছেন।’ দুর্নীতির দায়ে বর্তমানে নিষেধাজ্ঞায় থাকা ৭৯ বছর বয়সী ব্লাটারকে পূর্ণ বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। ব্লাটারের মেয়ে কোরিনে জানিয়েছেন, ব্লাটারের সব কাজকর্ম এখন স্থগিত।

ব্লাটারের শরীরও নাকি আর পারছে না। এ বিষয়ে ব্লাটার নিজের মুখেই বলেছেন, ‘এই চাপের মাত্রাটা ছিল অত্যাধিক। এক পর্যায়ে শরীর শুধু না বলতে শুরু করে দিয়েছিল। যথেষ্ট হয়েছে, যথেষ্ট হয়েছে। তবে আপনি যদি শারীরিকভাবে অনেক বেশি শক্তিশালী হন তাহলে এটা প্রতিরোধ করা সম্ভব হতে পারে।’