২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হরতালবিরোধী মিছিল ও সমাবেশসহ দিনভর সরব আওয়ামী লীগ

হরতালবিরোধী মিছিল ও সমাবেশসহ দিনভর সরব আওয়ামী লীগ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ জামায়াতের ডাকা হরতালকে অবৈধ ও আদালত অবমাননার শামিল হিসেবে আখ্যায়িত করে সোমবার রাজধানীতে হরতালবিরোধী মিছিল, সমাবেশ, মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। হরতালবিরোধী এসব কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দিনভর রাজপথ ছিল আওয়ামী লীগের। এ সময় আওয়ামী লীগের নেতারা দুই যুদ্ধাপরাধীর রায় কার্যকর করায় সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে অন্য যুদ্ধাপরাধীদের রায় কার্যকরের দাবি জানান।

সকালে গুলিস্তানে মানববন্ধন করে আওয়ামী সমর্থক গোষ্ঠী। এ সময় হরতালবিরোধী বিভিন্ন সেøাগান দেয়া হয়। বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগও দলীয় কার্যালয়ের সামনে হরতালবিরোধী মিছিল করে। বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন এস এম মর্তুজা। বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোল্লা মোঃ আবু কাওছার, সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু প্রমুখ। পরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিলটি বের করা হয়। মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জামায়াতের ডাকা হরতালের প্রতিবাদে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু এমপি, তালুকদার মোঃ ইউনুস এমপি, শাহে আলম মুরাদ, এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিক প্রমুখ।

এখানে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, জামায়াতের মতো বিএনপিও যুদ্ধাপরাধীর দল হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে। বিএনপি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিচার প্রক্রিয়াকে রাজনৈতিক হয়রানিমূলক বলে মন্তব্য করেছিল। সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী যুদ্ধাপরাধী হিসেবে অভিযুক্ত হওয়ার পরে বিএনপি তাকে দল থেকে বাদ দেয়নি। উপরন্তু বিচার প্রক্রিয়াকে রাজনৈতিক হয়রানিমূলক বলে মন্তব্য করেছিল।

হরতালের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সামাবেশ করেছে ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ। মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি বায়েজিত আহমেদ খানের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে জিপিও,পল্টনসহ নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শষে একই স্থানে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়। সকাল পর্যন্ত দুপুর পর্যন্ত সাবিনা আখতার তুহিন এমপির নেতৃত্বে মিরপুর-১সহ বিভিন্ন এলাকায় দফায় দফায় হরতালবিরোধী মিছিল বের করা হয়।

যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষার জন্য জামায়াতের ডাকা হরতালের প্রতিবাদে সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের সভাপতিত্বে সমাবেশে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট সামছুল হক রেজার নেতৃত্বে সকালে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে একটি হরতালবিরোধী মিছিল করে। ওলামা লীগ বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেটের সামনে জামায়াত-শিবিরের ডাকা অবৈধ হরতালের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে। এছাড়া সকালে ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার উদ্যোগে বনানী, সাতরাস্তা, মিরপুর, মহাখালী, ফার্মগেট, পান্থপথ এলাকায় হরতাল বিরোধী মিছিল বের হয়।