২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সর্বোচ্চ লেনদেনে আকস্মিক দরপতন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। সোমবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অঙ্কে আগের দিনের তুলনায় উভয় বাজারে বেড়েছে লেনদেন। দিনটিতে ডিএসইতে গত তিন মাসের সর্বোচ্চ ৫৮৬ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। তবে সকালে সূচকের বড় ধরনের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরু হলেও বেলা ১২টার দিকে আকস্মিকভাবে ডিএসই’র ওয়েবসাইটে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়। ডিএসই’র সার্ভারের বাইরের ইন্টারনেটে ওয়েবসাইট না আসায় বিভ্রান্তিতে পড়ে বিনিয়োগকারিরা। কোন কারণ ছাড়াই বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমতে থাকে। বিভিন্ন ব্রোকারিজ হাউজের কর্মকর্তা ও বাজার সংশ্লিষ্টরা জানান, মূলত ডিএসই’র ওয়েবসাইটের যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই বাজারে দরপতন ঘটেছে। বিনিয়োগকারিদের মনে অজানা আতংক কাজ করায় অনেকেই হাতে থাকা শেয়ার বিক্রি করে মুনাফা তুলে নিয়েছেন। এদিকে ডিএসই’র ওয়েবসাইটের যান্ত্রিক ত্রুটি নিয়ে সঠিক ব্যাখ্যা দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে সূচকের বড় ধরনের উর্ধগতির পর দিনশেষে শেয়ার বিক্রির চাপ বেড়ে যায়। দিনশেষে ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৫৮৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ১০৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৭৪৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৪টির, কমেছে ১৮৬টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

তবে সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হলেও আগের দিনের চেয়ে শেয়ার বেচা-কেনার পরিমাণ বেড়েছে। দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৮৬ কোটি ২৮ লাখ ৬৮ হাজার টাকা, যা গত তিন মাসের সর্বোচ্চ। এর আগে গত ২০ আগস্ট ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৫৯৬ কোটি ৯৬ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। এদিকে ডিএসইতে দিনটিতে টপটেন লুজার তালিকায় উঠে এসেছে বস্ত্র খাতের কোম্পানি। তালিকায় থাকা ১০ কোম্পানির মধ্যে ৩টি রয়েছে বস্ত্র খাতের। কোম্পানি ৩টি হলো : হামিদ ফেব্রিকস লিমিটেড, মডার্ন ডায়িং এ্যান্ড স্ক্রিন প্রিন্টিং লিমিটেড এবং জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস লিমিটেড।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, সোমবার হামিদ ফেব্রিকস লিমিটেড লুজারের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। শেয়ারটির দর কমেছে ২ টাকা ২ পয়সা বা ৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ। শেয়ারটি সর্বশেষ লেনদেন হয় ২০ টাকা ৩০ পয়সা দরে। এদিন কোম্পানির ৫ লাখ ১ হাজার ৫১৩টি শেয়ার ৪৮৪ বারে লেনদেন হয়।

বস্ত্র খাতের মডার্ন ডায়িং এ্যান্ড স্ক্রিন প্রিন্টিং লিমিটেড ১০ টাকা ৪ পয়সা বা ৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ দর কমে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে। এদিন কোম্পানির ৫ হাজার ৫৮১টি শেয়ার ১০৭ বারে লেনদেন হয়। জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস লিমিটেড ৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ০৫ শতাংশ কমে লুজারের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। এছাড়া লুজারে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, বিডি অটোকারস, জেমিনি সি ফুড, কে এ্যান্ড কিউ, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, এ্যাপেক্স ফুডস এবং হাক্কানী পাল্প এ্যান্ড পেপার।