২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিয়া ঝড়ে চিটাগং ভাইকিংস ১৭৬

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ব্যাট হাতে চেনা বিধ্বংসী চেহারায় দেখা গেল জিয়াউর রহমানকে। রান পেয়েছেন তার সতীর্থরাও। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে চিটাগং ভাইকিংস করেছে ৪ উইকেটে ১৭৬।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে বরাবরই জিয়ার পরিচয় বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান হিসেবে। তবে গত কিছু দিন তার সেই পরিচয় পাওয়া যাচ্ছিল না। রান পেলেও ঠিক নিজের মত খেলতে পারছিলেন না এই অলরাউন্ডার। পারলেন মঙ্গলবার কুমিল্লার বিপক্ষে, বিপিএলের তৃতীয় দিনে।

একটা সময় চিটাগংয়ের রান দেড়শ’ হওয়া নিয়েই ছিল খানিকটা শঙ্কা। জিয়ার ঝড়ে শেষ পর্যন্ত দলের রান গিয়েছে দেড়শ’ ছাড়িয়ে আরও অনেক দূর! ১৬ বলে অপরাজিত ৩৯ জিয়া। বাঁহাতি পেসার আবু হায়দার রনির টানা চার বলেই তিন ছক্কা ও এক চারে নিয়েছেন ২২ রান! শেষ ওভারে ছক্কা মেরেছেন সুনিল নারাইনকেও।

এ নিয়ে টানা তৃতীয় দিন প্রথম ম্যাচটি খেলতে নামল চিটাগং। প্রথম ম্যাচের মতো এ দিনও দলকে দারুণ শুরু এনে দেন তামিম ও তিলকরত্নে দিলশান। অফ স্পিনার মাহমুদুল ইসলামকে দিয়ে বোলিং শুরু করেছিল কুমিল্লা; তবে কাজে লাগেনি ফাটকা। প্রথম ওভারেই টানা তিন বলে চার মারেন দিলশান। কুমিল্লা অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার প্রথম ওভারেও তামিম-দিলশান মারেন তিনটি চার। নারাইনকে ছক্কায় স্বাগত জানান তামিম।

৬৩ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে দিলশানের আউটে। আশার জাইদির বাঁহাতি স্পিনে সুইচ হিট খেলে দিলশান (২১ বলে ৩৬) ক্যাচ তুলে দেন পয়েন্টে, সুইচ হিটে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হয়ে যাওয়া দিলশানের জন্য যেটি ছিল আসলে স্কয়ার লেগ!

টানা তৃতীয় অর্ধশতকের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন তামিম। তাকেও ফেরান জাইদি। তিন ছক্কায় ৩৩ করা তামিম আরেকটি ছক্কা মারতে গিয়ে ধরা পড়েছেন লং অফে।

তিনে নেমে এনামুল হক খেলেছেন নিজের মত করেই। এবারের বিপিএলে প্রথমবার মাঠে নামা শ্রীলঙ্কার চামারা কাপুগেদারা ২ রান করে বোল্ড হয়েছে মাশরাফির স্লোয়ারে। তবে আরেকটি কার্যকর ইনিংস খেলেছেন তরুণ ইয়াসির আলি চৌধুরি (১৮ বলে ২২)।

এরপরই দৃশ্যপটে জিয়া, মুহূর্তেই বদলে দেন খেলার মোড়। খারাপ করেননি এনামুলও। ৩৯ রানে অপরাজিত ছিলেন ৩০ বলে। শেষ ২ ওভারে চিটাগং তুলে নেয় ৩৮ রান!

২৯ রানে ২ উইকেট নিয়ে কুমিল্লার সেরা বোলার জাইদি। একটি করে নিয়েছেন মাশরাফি ও নারাইন।

নির্বাচিত সংবাদ