২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে বন্ড সুবিধায় আনা ৪৬ কোটি টাকার কাঁচামাল খোলা বাজারে

  • আমদানিকারকের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বন্ডের আওতায় শুল্কমুক্ত সুবিধায় পণ্য আমদানি করে খোলা বাজারে বিক্রির অভিযোগে চট্টগ্রামে এক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। মেসার্স লিবার্টি এন্টারপ্রাইজ নামের এ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার মামলাটি দায়ের করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। একই মালিকের অপর একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছিল।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের উপ-পরিচালক জাকির হোসেন জানান, বন্ডের আওতায় শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ৪৬ কোটি টাকা মূল্যের ৩ হাজার ৫৬০ মেট্রিক টন কাঁচামাল আমদানি করে লিবার্টি এন্টারপ্রাইজ। বন্ডের শর্তানুযায়ী শুল্কমুক্ত সুবিধায় আমদানির কাঁচামাল দিয়ে পণ্য রফতানি করে তা পুনরায় বিদেশে রফতানির কথা। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি তা না করে সে কাঁচামাল স্থানীয় বাজারে বিক্রি করে দেয়। এতে করে সরকারের প্রায় ১১ কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি হয়েছে। এ অভিযোগে লিবার্টি এন্টারপ্রাইজের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। এদিকে, একই মালিকের সানরাইজ এক্সেসরিজ নামের অপর একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে গত সোমবার আরও একটি দায়ের হয়েছে। ওই মামলায় শুল্কমুক্ত সুবিধায় আমদানি করা ৫৮০ টন ডুপ্লেক্স বোর্ড স্থানীয় বাজারে বিক্রির অভিযোগ আনা হয়। এতে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি হয়েছে ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। পর পর দুটি অনিয়মের ঘটনা ধরা পড়ায় প্রতিষ্ঠানটির আমদানি করা অন্যান্য চালানগুলোও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর।

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত নয় এমন তহবিলে ব্যাংকের সর্বোচ্চ বিনিয়োগ ২শ’ কোটি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিএসইসি কর্তৃক নিবন্ধিত বিশেষ উদ্দেশ্যে গঠিত তবে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত নয় এধরণের কোন তহবিল বা তহবিলসমূহে (বিশেষ উদ্যেশ্যে গঠিত তহবিল, বিকল্প বিনিয়োগ ফান্ড বা সমজাতীয় কোন তহবিল) কোন তফসিলি ব্যাংকের সর্বোচ্চ বিনিয়োগ সীমা হবে ২শ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক অফ সাইট সুপারভিশন বিভাগ থেকে জারীকৃত এক সার্কুলারে এ নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নির্দেশনাটি সংল সফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ পুজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিএসইসি) কর্তৃক বিশেষ উদ্দেশ্যে গঠিত এবং পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত নয় এধরণের যে কোন তহবিল গঠনে কোন তফসিলি ব্যাংক বিনিয়োগ করলে তার উর্ধ্বসীমা হবে ২শ কোটির টাকা। এ ধরণের তহবিলে বিনিয়োগে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে পরিচালনা পর্ষদের মতামত নিয়ে তা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অপসাইট সুপারভিশন বিভাগে আবেদন পাঠাতে হবে। আবেদনের সঙ্গে তহবিল বিষয়ের সব তথ্য এবং একই সঙ্গে ব্যাংকটির মূলধন, তারল্য, সম্পদ ও দায়ের গুণগতমান ও পরিমাণের সর্বশেষ তথ্য প্রদান করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।