১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নতুন মৌসুমে চমকের অপেক্ষায় শারাপোভা

  • মাহমুদা সুবর্ণা

২০০৪ সালে প্রথম আর গত মৌসুমে ক্যারিয়ারের পঞ্চম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতেন মারিয়া শারাপোভা। এই তথ্যটাই সুস্পষ্টভাবে প্রমাণ করে দেয় এক দশকেরও বেশি সময়ে রাশিয়ান তারকার পারফর্মেন্স। প্রকৃতপক্ষেই কোন মৌসুমে ধারাবাহিকভাবে সফল ছিলেন না তিনি। দুই বছর কিংবা চার বছর পর গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জেতাটাই তার স্বভাব। যে কারণেই চলতি মৌসুমে নিষ্প্রভ থাকা মারিয়া শারাপোভার পরিসংখ্যান বলছে, আসছে মৌসুমে আবারও গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পাবেন তিনি।

এক দশকেরও বেশি সময় আগে ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জিতেছিলেন শারাপোভা। উইম্বল্ডনে সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম মেজর শিরোপা জিতেছিলেন রুশ সুুন্দরী। সেই সঙ্গে চমকে দেন টেনিস বিশ্বকেও। কিন্তু পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেননি তিনি। দুই বছর পর ২০০৬ সালে ইউএস ওপেনে জেতেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় শিরোপা। তার দুই বছর পর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। আর চার বছর পর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে ক্যারিয়ারে সøাম জয়ের রেকর্ড গড়েন মাশা। তারও দুই বছর পর গত মৌসুমে ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা নিজের শোকেসে তোলেন তিনি। আর এখন পর্যন্ত সেটাই তার ক্যারিয়ারের শেষ মেজর কোন টুর্নামেন্টের শিরোপা।

তবে দুর্ভাগ্য রুশ সুন্দরীর। ফেড কাপের ট্রফিটাই জিততে পারলেন না তিনি। এবারও শিরোপা নিজেদের শোকেসে রেখে দিল চেক প্রজাতন্ত্র। ফেড কাপের ফাইনালে শক্তিশালী রাশিয়াকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে তারা। স্বপ্নের খুব কাছাকাছি গিয়েও এবার শূন্য হাতে ফিরলেন মারিয়া শারাপোভা। তবে ফেড কাপের ফাইনালে রাশিয়াকে ঠিকই এগিয়ে রেখেছিলেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাংকিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা শারাপোভা। কিন্তু মাশা পারলেও নিজেকে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হন তারই স্বদেশী এ্যানাস্তাসিয়া পাভলিউচেঙ্কোভা। ক্যারোলিনা পিসকোভার কাছে হার মানেন তিনি। এর ফলে ফেড কাপের ট্রফিটাকে আবারও উঁচিয়ে ধরার সৌভাগ্য হলো চেক প্রজাতন্ত্রের মেয়েদের।

এটা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই যে, ফেড কাপে গত কয়েক মৌসুম ধরেই এককভাবে রাজত্ব করছে চেক প্রজাতন্ত্র। এবারও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ফেবারিট ছিল তারা। কিন্তু শারাপোভাকে নিয়ে গড়া রাশিয়ার দলটিও ছিল বেশ শক্তিশালী। প্রাগে অনুষ্ঠিত ফেড কাপের ফাইনালের প্রথম দিনে দুই দলই দারুণ খেলে। প্রথম দিনের ফলাফলে দুই দলই সমতায় ছিল। আর দ্বিতীয় দিনে শারাপোভা ফেবারিট পেত্রা কেভিতোভাকে পরাজিত করেন। রুশ সুন্দরী শারাপোভা নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৩-৬, ৬-৪ এবং ৬-২ গেমে পরাজয়ের স্বাদ দেন কেভিতোভাকে। এর ফলে রাশিয়াকে ২-১ ব্যবধানে লিড এনে দেন। কিন্তু কেভিতোভার স্বদেশী ক্যারোলিনা পিসকোভা পরের ম্যাচে এ্যানাস্তাসিয়া পাভলিউচেঙ্কোভাকে হারালেই শিরোপা উচ্ছ্বাসে মাতে চেকরা। বর্তমান টেনিস র‌্যাংকিংয়ের ১১ নম্বরে থাকা পিসকোভা কঠিন লড়াইয়ে ৬-৩ এবং ৬-৪ গেমে হারান পাভলিউচেঙ্কোভাকে। এরপর দ্বৈতে স্ট্রিকোভাকে নিয়ে পিসকোভা ৪-৬, ৬-৩ এবং ৬-২ গেমে হারান এ্যানাস্তাসিয়া পাভলিউচেঙ্কোভা ও এলিনা ভেসনিনাকে। এরপরও ২ হার্ডকোর্ট এ্যারিনায় শিরোপা জয়ের উল্লাসে ভাসে চেক প্রজাতন্ত্রের মেয়েরা।

ফেড কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই খেলতে নেমেছিলে চেক প্রজাতন্ত্র। গত সপ্তাহে চেক প্রজাতন্ত্রকে হারিয়ে সর্বশেষ পাঁচ বছরের মধ্যে চারবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করল কেভিতোভা-পিসকোভারা। তবে পিসকোভার জন্য এটাই প্রথমবার ফেড কাপের শিরোপা উল্লাস। ম্যাচ শেষে তাই দারুণ রোমাঞ্চিত তিনি। এ বিষয়ে এক সাক্ষাতকারে পিসকোভা বলেন, ‘ফেড কাপে এটাই আমার প্রথম শিরোপা জয়ের অভিজ্ঞতা। তাই আমি খুবই আনন্দিত। দারুণ খেলেই শিরোপা জিতেছি। আসলে দুই জনের দুর্দান্ত পারফর্মেন্সেরই ফলাফল এটা।’ এ সময় পিসকোভা আরও বলেন, ‘এটা নিশ্চিতভাবেই আমার ক্যারিয়ারের সেরা জয়গুলোর মধ্যে একটি। ম্যাচের পুরোটা সময়ই আমার সার্ভিংয়ে দৃষ্টি রেখেছি আমি এবং সেটা খুব ভালভাবেই কাজে লেগেছে।’ স্ট্রিকোভার কাছে তো এটা রীতিমতো অবিশ্বাস্যই মনে হচ্ছে। এখনও যেন তিনি বিশ্বাস করতে পারছেন না। ম্যাচ শেষ হওয়ার পরই তিনি বলেন, ‘আমি বাকরুদ্ধ, আসলেই এটা অবিশ্বাস্য।’

এদিকে, সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে চারটি গ্র্যান্ডসøামের সবকটিতেই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন মারিয়া শারাপোভা। ২৮ বছর বয়সী এই রুশ সুন্দরী ইতোমধ্যেই জিতেছেন টোকিও, স্টুটগার্ট, রোম, মাদ্রিদ, ইন্ডিয়ান ওয়েলস, সিনসিনাত্তি এবং দোহাসহ আরও অনেক শিরোপাই। কিন্তু দুর্ভাগ্য এই গ্ল্যামারগার্লের, এখন পর্যন্ত ফেড কাপের ট্রফিটাই ছোঁয়া হলো না তার। এবার খুব কাছাকাছি পৌঁছেও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হওয়ায় হতাশ মাশা। চলতি বছরের পুরোটা সময়ই বাজেভাবে কেটেছে তার, যে কারণে ফেড কাপ জিতে মৌসুমের শেষটা রঙ্গিন করার ইচ্ছা ছিল তার। যে কারণে হতাশা নিয়ে বছর শেষ করতে হচ্ছে তাকে। শুধু শারাপোভা নয়, পুরো রাশিয়াই শিরোপা হাতছাড়া করে হতাশ। হতাশা নিয়ন্ত্রণ করতে না পারা দেশটির অধিনায়ক এ্যানাস্তাসিয়া মিসকিনা বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করেছি। আমাদের সর্বোচ্চটাই খেলেছি তাদের বিপক্ষে। আমাদের মেয়েদের নিয়ে আমি খুবই গর্বিত। আমি মনে করি, তারা খুবই ভাল পারফর্মেন্স করেছে।’ শুধু ফেড কাপে নয়, এবার সব ধরনের টুর্নামেন্টেই নিষ্প্রভ ছিলেন বর্তমান টেনিস র‌্যাংকিংয়ের চার নম্বরে থাকা শারাপোভা। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট থেকে শেষ পর্যন্ত কোনটিতেই নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি তিনি। পারফর্মেন্সের নিষ্প্রভতার সঙ্গে ছিল ইনজুরির হানাও। তবে এই ব্যর্থতা থেকে বেরিয়ে নতুন মৌসুমে নতুন উদ্যমেই শুরু করতে চান ২৮ বছর বয়সী শারাপোভা। তবে নতুন মৌসুমে রাশিয়ান গ্ল্যামারগার্ল পারবেন কি নিজেকে মেলে ধরতে? ভক্ত-অনুরাগীদের সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।