২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিতর্ক- নাটক ছাপিয়ে উত্তেজনা

  • বিউটি পারভীন

তিন বছর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেটের দারুণ একটা বছর কেটেছিল। প্রথমবারের মতো এশিয়ার বিশ্বকাপ বিবেচিত এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। ঘোষণা করে বিশ্ব ক্রিকেটে নিজেদের শক্তভাবে অবস্থান। আর এমন সাফল্যের পেছনে ছিল এশিয়া কাপের ঠিক আগমুহূর্তে ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি২০ ক্রিকেট আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) আয়োজনের মাধ্যমে। অনেকেই দাবি করেন দেশ-বিদেশের তারকা ক্রিকেটারদের একই মঞ্চে প্রতিযোগিতায় উপস্থিত থাকার কারণে উদীয়মান তরুণ পারফর্মার উঠে আসে। সেই সুফলটা ২০১২ সালের এশিয়া কাপ। তবে পরের আসরে হয়েছে অনেক বিতর্ক। ম্যাচ ফিক্সিংয়ের বিষ এবং ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক পরিশোধ না করায় কলঙ্কিত হয়েছে জনপ্রিয় এ টি২০ আসর। সেই ধাক্কা সামলাতে গিয়ে গত বছর আর আয়োজিত হয়নি বিপিএল। তবে এবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বেশ কড়া পদক্ষেপ নিয়ে, নতুন মালিকানার ৬ ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে শুরু করেছে নতুন করে বিপিএল। গত ২০ নবেম্বর মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জাঁকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে বিপিএলের তৃতীয় আসর যাত্রা শুরু করে। কিন্তু এবারও বিসিবি ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকের ৫০ ভাগ টুর্নামেন্ট শুরুর আগে পরিশোধের কথা বলেও তা পুরোপুরি করেনি। বিতর্কিত হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও। যদিও প্রথম দিন থেকেই মাঠের জমজমাট প্রতিযোগিতা এবং দর্শক ভরপুর স্টেডিয়াম দারুণ এক বিপিএলের ইঙ্গিত দিচ্ছিল। তবে দ্বিতীয় দিনেই আরও বড় সমালোচনার মুখে পড়েছে বিপিএল। সিলেট সুপারস্টারস ও চিটাগাং ভাইকিংস ম্যাচটি দুই ইংলিশ ক্রিকেটার জশুয়া কব ও রবি বোপারার অনাপত্তি পত্র (এনওসি) সমস্যায় ১ ঘণ্টা বিলম্বে শুরু হয়। প্রতি ম্যাচে চার বিদেশী খেলানো বাধ্যতামূলক হলেও বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল সে নিয়ম ভেঙ্গে সুপারস্টারসকে দুই বিদেশী নিয়েই খেলার অনুমোদন দেয়। তবে প্রথমদিন থেকেই মাঠের ব্যাট-বলের লড়াই হয়েছে দারুণ হাড্ডাহাড্ডি এবং ঠাসা উত্তেজনায় ভরপুর।

বিপিএলের মতো টি২০ আসরগুলো তরুণ উদীয়মান ক্রিকেটার খুঁজে বের করার দারুণ উপায়। এমনি করে নতুন মেধাবী তারকা খুঁজে পেয়েছে ভারত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) এবং অস্ট্রেলিয়া বিগব্যাশ লীগ আয়োজন করে। আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার এসব ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক আসরগুলোয় বিদেশী তারকা ক্রিকেটারই শুধু নয় নামীদামী কোচদের আগমন ঘটে। সবমিলিয়ে স্থানীয় ক্রিকেটাররা হয় দারুণ লাভবান। মানসিকতা এবং দক্ষতার উন্নতি ঘটে। আর সেটাই যেন ২০১২ সালে প্রথম বিপিএল দেখিয়েছে। সেবার বিপিএলের পরই দেশের মাটিতে আয়োজিত এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলে বাংলাদেশ দল। এবারও ৫৮ বিদেশী ক্রিকেটার এবং ৪ জন হাইপ্রোফাইল বিদেশী কোচ এসেছেন বিপিএলে। ঢাকা ডায়নামাইটসের দায়িত্বে সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার কোচ মিকি আর্থার, শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার ও কোচ মারভান আতাপাত্তু প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়েছেন চিটাগাং ভাইকিংসের, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার সাবেক কোচ গ্রাহাম ফোর্ড বরিশাল বুলসের প্রধান কোচ এবং বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক কোচ শেন জার্গেনশন দায়িত্ব নিয়েছেন রংপুর রাইডার্সের। এছাড়া দলগুলোতে আছেন কুমার সাঙ্গাকারার মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কার সদ্য সাবেক হওয়া এ ব্যাটসম্যান যোগ দিয়েছেন ডায়নামাইটসে।

এছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অনেক বড় তারকা আছেন যার তালিকা বেশ লম্বা। শহীদ আফ্রিদি, মিসবাহ-উল-হক, ইয়াসির শাহ, সাঈদ আজমল, ওয়াহাব রিয়াজ, শোয়েব মালিক, সোহেল তানভীর, ক্রিস গেইল, মারলন স্যামুয়েলস, কাইরন পোলার্ড, সুনীল নারাইন, ড্যারেন সামি, লেন্ডল সিমন্স, ফিদেল এ্যাডওয়ার্ডস, তিলকারতেœ দিলশান, নুয়ান কুলাসেকারা, লাহিরু থিরিমান্নে, অজন্থা মেন্ডিস, কুইন্টন ডি কক, রবিন পিটারসেন, রবি বোপারা, ক্রিস জর্ডান, জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন, এলটন চিগুম্বুরা ও ব্রেন্ডন টেইলরদের মতো ক্রিকেট তারকারা আছেন এবারের আসরে। আর এ বিষয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার ড্যারেন সামি বলেন,‘অনেক খেলোয়াড় বিভিন্ন দেশ থেকে খেলতে এসেছে। বিশ্বের বিভিন্ন খেলোয়াড় বাংলাদেশে এসে খেলতে আগ্রহী, এটা খুব ভাল একটি দিক। শুধু ভারতে না বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টি২০ টুর্নামেন্টের মাধ্যমে তরুণ ক্রিকেটাররা উঠে এসেছে। আশা করছি এটা এখানেও হবে। বিশ্বকাপ খুব কাছেই। তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের জন্যে বিপিএল বড় একটি সুযোগ। এখান থেকেই ভালো একটা সমন্বয় তৈরি করা যেতে পারে যা ভারতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে বাংলাদেশেকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারে। একই সঙ্গে যারা এখন বাইরে আছে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারছে না তাদের জন্যে এটা একটা সুযোগ।’ এবারের বিপিএল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মঞ্চ আলোকিত করেছেন দুই বলিউড তারকা হৃত্বিক রোশন ও জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ এবং জনপ্রিয় গায়ক কেকে।

আগামী বছরের শুরু থেকেই বাংলাদেশ দল প্রবেশ করবে টি২০ ক্রিকেট দুনিয়ায়। ফেব্রুয়ারিতে প্রথমবারের মতো টি২০ ফরমেটে এশিয়া কাপ আসর এবং এরপরই ভারতে টি২০ বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে। আর এ দুটি টুর্নামেন্টের আগে বিপিএল বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের জন্য দারুণ প্রস্তুতি নেয়ার মঞ্চ হবে। দারুণ এক সময়েই বিপিএল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবার আসর শুরুর আগে নিজ দায়িত্বে ক্রিকেটারদের বকেয়া পরিশোধ দায়িত্ব নেয় বিসিবি। এছাড়াও চলতি আসরে ক্রিকেটারদের অর্থ প্রাপ্তিতে কোন সমস্যায় পড়তে না হয়, সেজন্য বিসিবি সাড়ে ৪ কোটি টাকা করে ৬ ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে ২৭ কোটি টাকা অগ্রিম নেয়। এই অর্থ থেকে তিন কিস্তিতে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক পরিশোধ করার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথম কিস্তিতে ৫০ শতাংশ, পরের দুই কিস্তিতে ২৫ শতাংশ করে অর্থ পরিশোধ করার কথা। প্রথম কিস্তি টুর্নামেন্ট শুরুর আগে, দ্বিতীয় কিস্তি প্রথম পর্বের খেলা শেষ হওয়ার পর এবং শেষ কিস্তি টুর্নামেন্ট শেষের এক মাসের মধ্যে দেয়ার কথা ক্রিকেটারদের। কিন্তু এখনও প্রথম কিস্তির টাকাই পাননি অনেক ক্রিকেটার। আর এটা নতুন করে পুরনো আশঙ্কার জন্ম দিয়েছে।

বিপিএলের প্রথম আসর থেকেই বিপত্তির শুরু হয়েছে দুর্বল ব্যবস্থাপনার গবর্নিং কাউন্সিল থাকায়। সেবার প্রাথমিক পর্ব থেকে সেমিফাইনালে কোন দল উঠবে (বরিশাল বার্নার্স নাকি চিটাগাং কিংস) সেটা নিয়ে এক নাটকীয়তার সৃষ্টি হয়। আর দ্বিতীয় বিপিএলে ক্রিকেটারদের পাওনা পরিশোধ এবং ফিক্সিংয়ের বিতর্ক টালমাটাল করে দেয় পুরো দেশের ক্রিকেটকেই। সেই কলঙ্কগুলো ঢেকেই এবার বিপিএল আয়োজনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিসিবি ও বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল। কিন্তু এবার জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সময়ই নিরাপত্তার শিথিলতা সবাইকে হতবাক করে দেয়। গত অক্টোবরে নিরাপত্তা শঙ্কার কারণে বাংলাদেশ সফর বাতিল করেছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। সেই নিরাপত্তা ব্যবস্থার অবনতি দেখা গেল প্রথম ম্যাচের দিনও। এবার শুরু থেকে বিসিবি অনেক তোড়জোড় এবং কড়া থাকার বিষয়ে নিজেদের শক্ত অবস্থানের কথা জানিয়েছে। আর বিপিএলের দ্বিতীয় দিনেই যা ঘটলো তা বিশ্বব্যাপী ক্রিকেটপ্রেমীরাই দেখেছেন। কারণ বিপিএলের ম্যাচগুলো সারাবিশ্বের আরও ৯ চ্যানেলের কাছে সম্প্রচারের স্বত্ব দিয়েছে। তাই সুপারস্টারস-ভাইকিংস ম্যাচের নাটকীয়তাও দেখেছে ক্রিকেটপ্রেমীরা। দিনের প্রথম এ ম্যাচটির টস অনুষ্ঠিত হয় ২৫ মিনিট বিলম্বে। কারণ নিয়ম অনুসারে একাদশে চার বিদেশী থাকার কথা, কিন্তু সুপারস্টারসের ছিল দুইজন- অজন্থা মেন্ডিস ও দিলশান মুনাবিরা। এ বিষয়টি নিয়ে আপত্তি করে চিটাগাং। পরে কব ও বোপারার অনাপত্তি পত্র (এনওসি) পাওয়া নিয়ে ঝামেলার কারণে নামকে পারেনি সিলেট সে কারণে টস করতে রাজি হয় ভাইকিংস। কিন্তু টসের পরই খেলার ছাড়পত্র পেয়ে যান এ দুই ইংলিশ ক্রিকেটার। ভাইকিংসের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও তিলকারতেœ দিলশান ব্যাট করতে মাঠে নেমেও আবার ফিরে যান। কারণ সুপারস্টারস নতুন করে একাদশে নিয়েছে কব ও বোপারাকে। এ কারণে তামিম খেলতে অস্বীকৃতি জানালে ১ ঘণ্টা খেলা বন্ধ থাকে। মাঠজুড়ে চলে চরম নাটকীয়তা। শেষ পর্যন্ত বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল নিয়ম ভেঙ্গেই খেলা শুরু করে ঘণ্টাখানেক পর।