২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে কথা বলে তোপের মুখে আমির খান

ভারতের অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে কথা বলে এবার বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকারের তোপের মুখে পড়লেন আমির খান। বিজেপি মুখপাত্র শাহনেওয়াজ হোসেন, শিক্ষামন্ত্রী স্মৃতি ইরানীসহ চিত্রজগতের অনেকেই তার সমালোচনা করেছেন। সোমবার দিল্লীর রামনাথ গোয়েঙ্কা পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ভারতের ক্রমবর্ধমান অসহিষ্ণুতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি। খবর এনডিটিভি অনলাইনের।

ভারতে অসহিষ্ণুতা নিয়ে কথা বলে বলিউড কাঁপানো অভিনেতা শাহরুখ খান, সালমান খান ও প্রবীণ সরোদশিল্পী আমজাদ আলি খানের পর এবার আমির খান মুখ খুললেন। তিনি বলেন, এভাবে চলতে থাকলে আমরা কয়েক দিনের মধ্যেই অন্ধকার যুগে ফিরে যাব। দেশের বিভিন্ন অংশে যা হচ্ছে দৈনিক খবরের কাগজ পড়লে তা বোঝা যায়। এসব খবরে আমি খুবই চিন্তিত। দেশের চলমান অসহিষ্ণুতা নিয়ে তিনি এবং তার পরিবার কতটা উদ্বিগ্ন তা বোঝাতে স্ত্রী কিরণ রাওয়ের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে বলেন, কিরণের সঙ্গে যখন এই বিষয়ে কথা বলি তখন ও আমাকে বলে আমাদের দেশ ছেড়ে চলে যেতে হবে না তো? ও ওর বাচ্চার নিরাপত্তার জন্য ভীত। আমাদের আশপাশের পরিবেশ কী হবে তা ভেবে ও ভয় পাচ্ছে। এমনকি দৈনিক খবরের কাগজও খুলতে ভয় পাচ্ছে কিরণ। আমির খানের এ ধরনের বক্তব্যের পর দেশজুড়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। এমনকি তা দেশের সীমানা ছাড়িয়ে চলে গেছে বিদেশেও। বিজেপি মুখপাত্র শাহনেওয়াজ হোসেন বলেন, এমন কথা বলে আমির দেশের বদনাম করেছেন। আমির ভুলে যাচ্ছেন, কারা ওকে হিরো বানিয়েছে! স্মৃতি ইরানি বলেন, আমির প্রমাণ করতে চাইছেন ভারত অসহিষ্ণু। বিজেপি সমর্থক হিসেবে পরিচিত অভিনেতা কেন্দ্রীয় পর্যটনের মুখ অনুপম খের আমির খানের মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, আপনি কিরণকে জিজ্ঞাসা করেছেন সে কোন দেশে যেতে চায়? আপনি কি তাকে বলেছেন এই দেশ আমাকে আমির খান বানিয়েছে? আপনি কি তাকে বলেছেন, এদেশে এর চেয়েও খারাপ সময় দেখলেও দেশ ছাড়ার কথা কখনও আপনার মনে আসেনি? গত ৭-৮ মাসে? যদি মেনেই নেয়া হয় যে ভারত অসহিষ্ণু দেশ তবে কোটি কোটি দেশবাসীকে কী পরামর্শ দেবেন অমির? দেশ ছাড়ার পরামর্শ? নাকি পালাবদলের অপেক্ষা? তবে প্রত্যাশিতভাবেই, আমির খানের পাশে দাঁড়িয়েছেন কংগ্রেসের সহ-সভাপতি সভাপতি রাহুল গান্ধী।

তিনি বলেন, সরকারের বোঝা উচিত মানুষ কীসে বিব্রত বোধ করছেন। আর তার জন্য মানুষের কাছে যাওয়া উচিত সরকারের। দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল আমির খানের পাশেই দাঁড়িয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমির খানের বিবৃতির প্রতিটি শব্দই সত্যি এবং সঠিক।