২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সোনারগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ ॥ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩০

  • বালু মহাল নিয়ে বিরোধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ২৫ নবেম্বর ॥ সোনারগাঁওয়ে আধিপত্য বিস্তার ও বালু মহালের নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৫ জন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্র ও নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। বুধবার বিকেলে উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের চরকিশোরগঞ্জ চরহোগলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় অন্তত ২০টি বাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনার সময় কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণেরও ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনার পর ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, সোনারগাঁওয়ের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় বালু মহালের ইজারা পায় আওয়ামী লীগ সমর্থক ঈমান আলী ও হারুন শেখ গ্রুপ। উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছিরউদ্দিন মেম্বার মুন্সীগঞ্জ জেলায় বালু মহালের ইজারা পায়। বালু মহালের বালু উত্তোলন ও এলাকায় আধিপত্য নিয়ে এ দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে বুধবার সকালে নাছির উদ্দিন মেম্বার গ্রুপ ও স্থানীয় গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে নদী ভাঙ্গনের ঠেকানোর অজুহাত তুলে হারুন গ্রুপের বালু উত্তোলনে বাধা দেয়। এই নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। নাছির উদ্দিন মেম্বার গ্রুপ অস্ত্রশস্ত্র সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুর চালায় বলে অভিযোগ করা হয়। এ সময় কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। এতে ১০ জন আহত হয়। পুলিশ দুই গ্রুপকে শান্ত থাকার নির্দেশ দিয়ে চলে আসলে বিকেলে হারুন গ্রুপের লোকজন অস্ত্রশস্ত্র সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষ নাছির উদ্দিন মেম্বার গ্রুপের লোকজনের ওপর হামলা চালায়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোঃ মঞ্জুর কাদের জানান, বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে সকালে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নির্বাচিত সংবাদ