২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেসি-সুয়ারেজের জোড়া গোলে নকআউট পর্বে বার্সিলোনা

  • উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবল, পেনাল্টি মিসে গোলবঞ্চিত নেইমার বার্সিলোনা ৬-১ রোমা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রতিপক্ষের জালে যেন গোলের নেশা পেয়ে বসেছে বার্সিলোনার ফুটবলাদের। লা লিগায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের জালে এক হালি গোল করার পর এবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে প্রতিপক্ষের জালে হাফডজন গোল করেছেন ক্যাটালান ফুটবলাররা। মঙ্গলবার রাতে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে বার্সিলোনা ৬-১ গোলে উড়িয়ে দেয় ইতালিয়ান ক্লাব এ এস রোমাকে।

বার্সার হয়ে দুটি করে গোল করেন অধিনায়ক ও প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি এবং লুইস সুয়ারেজ। একটি করে গোল করেন জেরার্ড পিকে ও আদ্রিয়ানো। দীর্ঘ ইনজুরি কাটিয়ে রিয়ালের বিরুদ্ধে মাঠে ফেরেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। ওই ম্যাচে গোল না পেলেও চ্যাম্পিয়ন্স লীগে প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে দুই গোল করে স্বরূপে ফিরেছেন সাবেক রেকর্ড টানা চারবারের ফিফা সেরা ফুটবলার। তবে আফসোস করতেই পারেন নেইমার। ব্রাজিলিয়ান অধিনায়কও গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু পেনাল্টি থেকে লক্ষ্যভেদ করতে ব্যর্থ হন তিনি। লক্ষ্যভেদ করতে পারলে একই ম্যাচে মেসি ও সুয়ারেজের সঙ্গে গোল করার গৌরবে ভাসতেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। অপ্রতিরোধ্য এই জয়ে নিজেদের গ্রুপ থেকে সবার আগে শেষ ষোলোতে পৌঁছে গেছে বার্সিলোনা। প্রথম লেগের ম্যাচে ইতালি থেকে ১-১ গোলের ড্র নিয়ে ফিরেছিল আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের শুরু থেকেই দাপুটে খেলতে থাকা বার্সা ১৫ মিনিটে এগিয়ে যায়। নেইমারের বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে পাস দেন দানি আলভেস। তা থেকে নিখুঁত শটে গোল করেন সুয়ারেজ। তিন মিনিট পরই ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা মেসি গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। সম্মিলিত আক্রমণ থেকে দারুণ শটে গোল করেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। ৪৪ মিনিটে সুয়ারেজ দারুণ ভলিতে লক্ষ্যভেদ করলে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বার্সা। বিরতির পর ৫৬ মিনিটে পিকে ও ৫৯ মিনিটে মেসি গোল করলে বড় জয় নিশ্চিত হয় এনরিকের দলের। মেসি ও সুয়ারেজের মতো ৭৭ মিনিটে গোলদাতার তালিকায় নাম ওঠার সুযোগ এসেছিল নেইমারেরও। ডি বক্সের মধ্যে নেইমার ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় বার্সিলোনা। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান তারকার দুর্র্বল শট ফিরিয়ে দেন রোমা গোলরক্ষক। তবে ফিরতি শটে গোল করেন নেইমারের জাতীয় দলের সতীর্থ আদ্রিয়ানো। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে (৯১ মিনিট) বার্সিলোনা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনকে পরাস্ত করে রোমার পক্ষে সান্ত¡নার একমাত্র গোলটি করেন এডিন জেকো। গ্রুপের অন্য ম্যাচে বাটে বরিসভের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করে বেয়ার লেভারকুসেন।

প্রায় দুই মাস মাঠের বাইরে থাকায় মেসির গোলক্ষুধা যেন আরও বেড়ে গেছে। রিয়ালের বিরুদ্ধে গোল না পেলেও পরশু তিনি পেয়েছেন জোড়া গোলের দেখা। গত দুই মাস দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে মেসির অনুপস্থিতি বুঝতে দেননি নেইমার ও সুয়ারেজ। রোমার বিরুদ্ধেও তারা দেখিয়েছেন দারুণ পারফর্মেন্স। সেই সঙ্গে মেসিও জ্বলে ওঠায় রোমাকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে বিধ্বস্ত হয়ে। লম্বা সময় মাঠের বাইরে থাকায় লা লীগা ও চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সর্বোচ্চ গোলদাতার লড়াই থেকে কিছুটা ছিটকেই পড়েছিলেন মেসি। কিন্তু জোড়া গোল করে আবার অন্যদের সতর্কবার্তা দিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন তারকা। পাঁচ গোল করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও লুইস সুয়ারেজ। দুটি করে গোল করেছেন মেসি ও নেইমার।

পুরো ৯০ মিনিট ম্যাচটি খেলতে পারায় সন্তুষ্টি জানিয়েছেন মেসি। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ৯০ মিনিট খেলতে পেরে ভাল লেগেছে। ধীরে ধীরে আমি ভাল অনুভব করছি। মাঠের বাইরে থাকা প্রসঙ্গে মেসি বলেন, আমরা নিজেরা এটা কখনওই বলিনি এবং এটা প্রমাণিত হয়েছে। মাঠে না থাকায় আমার একটা খারাপ সময় গেছে। কিন্তু আমার সতীর্থরা প্রত্যেক ম্যাচে যা করেছে তা উপভোগ করেছি আমি। হ্যাটট্রিকের সামনে দাঁড়িয়ে থেকেও ম্যাচে নিজে পেনাল্টি কিক না নিয়ে নেইমারকে সুযোগ দিয়েছেন মেসি। ম্যাচ শেষে তিনি জানিয়েছেন, শটটি নেইমারেরই নেয়ার কথা ছিল। এ প্রসঙ্গে মেসি বলেন, নেইমারের পেনাল্টি নেয়ার কথা ছিল এবং এ কারণে এটা সে নিয়েছে।