১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামের ১০ পৌরসভায় প্রচার শুরু

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ তফসিল ঘোষণার পর চট্টগ্রামের ১০টি পৌর এলাকায় পুরোদমে এসে গেছে নির্বাচনী আমেজ। আগামী ৩ ডিসেম্বরের মধ্যেই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিতে হবে। এবার দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হবে বিধায় দীর্ঘদিনের নির্দলীয় এ নির্বাচনকে ঘিরে চলছে জমজমাট রাজনৈতিক কর্মকা-ও। দলীয় সমর্থন পেতে তৃণমূল পর্যায়ের নেতারা বড় নেতাদের মন জয়ের চেষ্টা করছেন। তবে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার সুযোগ না থাকায় মেয়র পদে প্রার্থী সংখ্যা কম হতে পারেÑ এমনই ধারণা করা হচ্ছে মাঠ পর্যায় থেকে।

চট্টগ্রাম জেলার দশটি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তফসিল ঘোষণার পরদিন থেকেই বিরাজ করছে ভোটের আবহ। তবে বুধবার পর্যন্ত কোন পৌরসভাতেই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি সম্ভাব্য প্রার্থীরা। দলীয় সমর্থন পাওয়ার হিসাব-নিকাশ থাকায় এক্ষেত্রে কিছুটা বিলম্ব ঘটছে বলে জানা যায়।

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা আবদুল বাতেন জানান, তফসিল ঘোষণার পরদিন অর্থাৎ গত মঙ্গলবার থেকেই নির্বাচন অফিস মনোনয়নপত্র নিয়ে প্রস্তুত ছিল। কিন্তু প্রথম দুদিন কেউ মনোনয়নপত্র কেনেননি। আগামী ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র গ্রহণ ও জমা দেয়ার সময় রয়েছে। তিনি জানান, মনোনয়নপত্র সংগ্রহের জন্য কোন ফি নেই। তবে নির্বাচনী এলাকার প্রতি ওয়ার্ডের ভোটার তালিকার সিডি ক্রয় করতে হবে। আর সেই সিডির মূল্য পরিশোধ করতে হবে ব্যাংকে। তিনি আরও জানান, উপজেলা পর্যায়ে যেখানে রিটার্নিং অফিসার রয়েছেন সেখান থেকেই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামের যে ১০টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেগুলো হচ্ছে মীরসরাই, বারৈয়ারহাট, সীতাকু-, সন্দ্বীপ, বাঁশখালি, চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, পটিয়া, রাউজান ও রাঙ্গুনীয়া । এছাড়া তিন পার্বত্য জেলার আরও ৫টি পৌরসভায় একই দিনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেগুলো হচ্ছেÑ বান্দরবান, লামা, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও মাটিরাঙ্গা। ভোটের জন্য ভোটার তালিকা, ভোট কেন্দ্র, নির্বাচন কর্মকর্তা এবং প্রয়োজনীয় সকল সরঞ্জাম প্রস্তুত করা হয়েছে।

পৌরসভাগুলোর নির্বাচনের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে সহকারী রিটার্নিং অফিসার করা হয়েছে। তবে পটিয়া পৌর নির্বাচনের জন্য সিনিয়র জেলা কর্মকর্তাকে রিটার্নিং অফিসার করা হয়েছে। মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হবে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে পৌরসভার নির্বাচন।