১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘এখনই তুমি দক্ষিণ দিকে মুখ ঘোরাও’

অনলাইন ডেস্ক ॥ তুরস্কের সামরিক বাহিনী একটি অডিও রেকর্ড প্রকাশ করে তা রুশ বিমানকে গুলি করার আগে জানানো সতর্ক সঙ্কেত বলে দাবি করেছে । অডিওটিতে একটি কণ্ঠস্বরকে ইংরেজিতে বলতে শোনা গেছে, “এখনই তুমি দক্ষিণ দিকে মুখ ঘোরাও।” খবর বিবিসির।

তুরস্কের আকাশ সীমায় রুশ বিমানটিকে গুলি করার আগে ১০ বার সতর্ক করা হয়েছে বলে দাবি করে তুর্কি সামরিক বাহিনী বলেছে, এসইউ-২৪ বোমারু বিমানটিকে রক্ষার চেষ্টাও করা হয়েছিল।

তবে রাশিয়া আকাশসীমা লঙ্ঘণের অভিযোগ অস্বীকার করে সিরিয়ার আকাশে বিমানটিকে গুলি করা হয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছে। ওই ঘটনায় উদ্ধার পাওয়া রুশ পাইলট তুরস্কের পক্ষ থেকে কোনো সতর্কতা দেওয়ার কথা প্রত্যাখ্যান করেছেন।

বুধবার তুর্কি সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, কী পরিস্থিতিতে ঘটনাটি ঘটেছে তা এবং রুশ পাইলটদের উদ্ধার করার চেষ্টার বিষয়ে তুরস্কে নিযুক্ত রুশ সামরিক অ্যাটাশেদের ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। এবং এই বিষয়ে মস্কোকে ‘সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত’ বলেও জানিয়েছে তুরস্ক।

মঙ্গলবার তুর্কি আকাশসীমা লঙ্ঘণ করার অভিযোগে ওই রুশ বিমানটিকে গুলি করে ভূপাতিত করে তুর্কি বিমান বাহিনীর জঙ্গিবিমানগুলো।

গুলি লাগার পর জ্বলন্ত বিমানটির দুই রুশ পাইলট প্যারাসুট দিয়ে নামার চেষ্টা করার সময় তুরস্কপন্থি সিরীয় বিদ্রোহীদের গুলিতে একজন নিহত হন। অন্য পাইলটকে উদ্ধার করে সিরিয়ার সেনাবাহিনী।

এর আগে প্যারাসুটে করে নামা পাইলটদের উদ্ধারে দুটি রুশ এম-৮ হেলিকপ্টার পাঠানো হলে সেগুলোকে লক্ষ্য করে গুলি করে ওই বিদ্রোহীরা। গুলিতে একটি হেলিকপ্টারের আরোহী একজন রুশ মেরিন সেনা নিহত হন ও একটি হেলিকপ্টার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ক্ষতিগ্রস্ত হেলিকপ্টারটি সিরীয়-তুর্কি সীমান্তের বিদ্রোহী অধ্যুষিত পার্বত্য এলাকায় জরুরি অবতরণে বাধ্য হলে বিদ্রোহীর ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ভূমিতে দাঁড়িয়ে থাকা হেলিকপ্টারটি উড়িয়ে দেয়। পরে উদ্ধার পাওয়া রুশ পাইলট তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘণের দাবি খারিজ করে কোনো সতকর্তা জানানো হয়নি বলে দাবি করেছেন।

এ ঘটনা নিয়ে তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘটনাটিকে ‘পেছন থেকে ছুরি মারার’ শামিল মন্তব্য করে এর পরিণতি ‘গুরুতর’ হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন।

ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় আঙ্কারার সঙ্গে সব ধরনের সামরিক যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে মস্কো এবং রাশিয়ার জঙ্গিবিমানগুলোর জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে এ ধরনের যে কোনো লক্ষ্যকে ধ্বংস করার জন্য সিরিয়ায় রাশিয়ার সর্বাধুনিক বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে। এছাড়া এখন থেকে সিরিয়ায় রুশ বোমারু বিমানগুলো রুশ যুদ্ধবিমানের পাহারায় থাকবে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন উভয়পক্ষকে শান্ত থেকে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানিয়েছে।