২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘বিএনপি পৌর নির্বাচনে অংশ নিতে চায় বলে গণগ্রেফতার করছে’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চায় বলে সরকার আইনশৃংখলাবাহিনী দিয়ে সারাদেশে গণগ্রেফতার অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। তিনি অভিযোগ করেছেন এ নির্বাচনের তফসিল যথাযথ নিয়মে ঘোষণা করা হয়নি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেক্লাবে ডা. শামসুল আলম খান মিলনের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ডক্টর এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ( ড্যাব ) আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, আন্দোলনের জন্য দেশের মানুষ প্রস্তুত। এখন আমাদের নেতৃত্বের বড় অভাব, চেতনার বড় অভাব, কমিটমেন্টের বড় অভাব। এগুলো যদি না থাকে আমরা এগিয়ে যেতে পারব না। আর যদি থাকে তাহলে এ সরকারের পতন আমার কাছে বড় বিষয় নয়। কারণ, সঠিক নেতৃত্বের মাধ্যমে আরেকটা আন্দোলন শুরু করলে এ সরকারের তা সহ্য করার ক্ষমতা নেই। কিন্তু আমরা আন্দোলনে নেতৃত্ব দিতে পারছি বলে মনে করছি না।

নোমান বলেন, মাথা পচে গেলে যেমন সমস্ত শরীরও পচে যায় তেমনি বর্তমান সরকারের শীর্ষ নেতারা দুর্নীতিগ্রস্থ বলেই সারাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের নেতারা দেশটাকে লুটের রাজ্যে পরিণত করেছে।

দলীয় প্রতীক দিয়ে পৌর নির্বাচন করা নিয়ে সরকার ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করে নোমান ৫ জানুয়ারির নির্বাচন এবং এর আগে অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনসহ কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়নি। দেশের জনগণ যেখানে ভোট দিতে পারে না, সেটা কোনো নির্বাচন হতে পারে না। তিনি বলেন, হাঠৎ করে অর্ডিন্যান্সের মাধ্যমে দেশে পৌর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এটি নিয়ম অনুযায়ী হচ্ছে কি না জানি না। সাধারণত: তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনের জন্য ৪৫ দিন সময় দেয়া হয়। কিন্তু এবার ৩৫ দিনের মাথায় পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

নোমান বলেন, দেশটা পুলিশী রাষ্ট্রে পরিনত হয়েছে। এ সরকার দলীয় কর্মীর চেয়ে পুলিশের ওপর বেশি নির্ভর হয়ে পড়ছে। বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন এর মাত্রাও বেড়ে গেছে। যেহেতু আমরা পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চাই সেহেতু যারা প্রার্থী হতে চান তাদের মামাল দিয়ে কারাগারে নেয়া হচ্ছে, হয়রানি করা হচ্ছে। তারা কেউ বাড়িতে থাকতে পারছে না। কিন্তু এ ধরনের সব স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করে।

ড্যাবের সহ-সভাপতি ডা. রফিকুল কবির লাবুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও ড্যাব মহাসচিব ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-তথ্য গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবীবুর রহমান হাবীব, ড্যাবের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, অধ্যাপক বায়েস ভুইয়া, শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোটের অতিরিক্ত মহাসচিব জাকির হোসেন প্রমুখ।

এদিকে আজ ২৭ নভেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় ২৫তম শাহাদাতবাষির্কী উপলক্ষে ঢাকা মেডিকেল কলেজে মিলনের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবে ড্যাব। এ তথ্য জানিয়েছেন ড্যাবের মহাসচিব ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।