২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শুরু হয়েছে ৩য় লেদারটেক বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ স্থানীয় শিল্পের দোরগোড়ায় বিশ্বমানের প্রযুক্তি তুলে ধরার উদ্দেশে রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে শুরু হয়েছে ‘৩য় লেদারটেক বাংলাদেশ-২০১৫’।

বৃহস্পতিবার সকালে ৩ দিনব্যাপী চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড় ট্রেড শো’র উদ্বোধন করেন শিল্প সচিব মোঃ মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতের কাউন্সিল ফর লেদার এক্সপোর্টাসের চেয়ারম্যান এম. রফিক আহমেদ। আসক ট্রেড এ্যান্ড এক্সিবিশন্স প্রাইভেট লিমিটেড আয়োজিত এ মেলায় বাংলাদেশের চামড়া, চামড়াজাত পণ্য এবং ফুটওয়্যার শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় মেশিনারিজ, কম্পোনেন্ট, কেমিক্যাল এবং এ্যাকসেসরিজ প্রদর্শন করা হচ্ছে।

মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া বলেন, তৈরি পোশাক খাত প্রধান ও অন্যতম হলেও চামড়া খাতও কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। এখন রফতানি পণ্যের মধ্যে চামড়া তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। তবে, ভবিষ্যতে চামড়া শিল্প দেশের রফতানি আয়ের প্রধান উৎস হয়ে উঠতে পারে।

তিনি বলেন, চামড়া শিল্পের বিকাশের জন্য সরকার বিশেষ নজর রেখেছে। তাই চামড়া শিল্পকে হাজারীবাগ থেকে সরিয়ে একটি যথাযথ পরিবেশে নিয়ে যেতে সাভারের হেমায়েতপুরে চামড়া শিল্পনগরী গড়ে তুলছে।

এম. রফিক আহমেদ বলেন, চামড়া শিল্পের আন্তর্জাতিক বাজারে নিজেদের অবস্থান আরও সুদৃঢ় করতে ভারত ও বাংলাদেশের যৌথভাবে কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। আর এ সুযোগকে কাজে লাগাতে এ ধরনের মেলা আধুনিক প্রযুক্তি বিনিময়, পরিকল্পনা উন্নয়ন ও কারিগরি সক্ষমতার বৃদ্ধিতে যৌথভাবে কাজ করতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারীদের পরিচিত করবে।

মেলায় বাংলাদেশ, ভারত, চীন, তুরস্ক, মিশর, শ্রীলঙ্কা, ইতালি, সিঙ্গাপুর, জাপান, তাইওয়ান, হংকংসহ ১৩টি দেশের ১৪০টি প্যাভিলিয়ন এবং ৩০টি স্টল অংশ নিয়েছে।

অংশগ্রহণকারীরা চামড়া শিল্প খাতের উন্নয়নে প্রয়োজনীয় টেনিং লেদারের মেশিনারি, ম্যানুফ্যাকচারিং ফুটওয়্যার, চামড়াজাত পণ্য, কম্পোনেন্টস, ডাই কেমিক্যাল, একসেসরিজ এবং সংশ্লিষ্ট পণ্য তুলে ধরছেন। প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এ মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলা চলবে ২৮ নবেম্বর পর্যন্ত।

আনুষ্ঠানিকভাবে বগুড়ায় আয়কর জরিপ শুরু

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ বুধবার সকালে কর অঞ্চল বগুড়ার উদ্যোগে ‘আয়কর জরিপ-২০১৫’ উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। কর অঞ্চল বগুড়ার কর কমিশনার আব্দুল মজিদ, সহকারী কর কমিশনার মোঃ হাবিবুর রহমানসহ উর্ধতন কর্মকর্তা, বগুড়ার ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, আয়কর আইনজীবীসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। বগুড়া চেম্বার ভবন হতে র‌্যালিটি শুরু হয়ে কবি নজরুল ইসলাম সড়ক ধরে শহরের কেন্দ্রস্থল সাতমাথায় বীরশ্রেষ্ঠ স্কোয়ারে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে আয়কর জরিপ কর্মসূচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে বলা হয়, সরকারী এই কার্যক্রমে নতুন করদাতা চিহ্নিত করাই প্রধান লক্ষ্য। ২০১৫-১৬ করবর্ষে বগুড়া কর অঞ্চলে আয়কর আদায়ের টার্গেট করা হয়েছে ২ দশমিক ১০ কোটি টাকা। এর সঙ্গে ১৮ হাজার নতুন করদাতা শনাক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তারই আলোকে বগুড়ায় আয়কর জরিপ কর্মসূচী শুরু হয়েছে।