২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মিরপুরের উইকেট নিয়ে অসন্তুষ্ট বোপারা

  • টি২০ ক্রিকেটে জিততে টপঅর্ডারদের রান করা জরুরী বলে দাবি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের মাটিতে আগেও খেলেছেন রবি বোপারা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে (বিপিএল) টি২০ আসরে নিয়মিত এ ইংলিশ অলরাউন্ডার। তবে এবার তৃতীয় আসরের শুরুতেই ঝামেলায় পড়তে হয়েছে তাকে। তার দল সিলেট সুপার স্টারসের প্রথম ম্যাচ ছিল চিটাগাং ভাইকিংসের বিরুদ্ধে। তবে অনাপত্তি পত্র (এনওসি) না থাকায় খেলতে পারেননি তিনি। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সেই ম্যাচ শুরু হয়েছিল এক ঘণ্টা পর। তবে ইতোমধ্যেই দুই ম্যাচ খেলেছেন তিনি। আর দুই ম্যাচেই তার দল হেরেছে ১ ও ৬ রানের ন্যূনতম ব্যবধানে। এর কারণ হিসেবে বোপারা দেখছেন উইকেটের দ্বিমুখী নীতি। যেখানে প্রথম ইনিংসে রান হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে রান করাটা কঠিন। কিন্তু টি২০ ক্রিকেটে ভাল উইকেট হওয়া অপরিহার্য, ঢাকায় অনেক ভাল উইকেট আছে বলে জানান বোপারা। তবে তিনি মনে করেন টি২০ ক্রিকেটে কোন দলের সফল হওয়ার জন্য টপঅর্ডারদের রান পাওয়া জরুরী। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বোপারা।

টানা তিন ম্যাচ হেরেছে সিলেট সুপার স্টারস। আগের দুটি ১ রানের ব্যবধানে এবং বৃহস্পতিবার নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ৬ রানে। এ বিষয়ে বোপারা বলেন, ‘এটা খুবই হতাশাজনক। যখন তিন খেলায় মাত্র ১ রান কিংবা এর সামান্য কিছু বেশি রানে হারতে হয় তখন সেটাকে হালকাভাবে দেখাটা কঠিন। সত্যি বলতে কি, আমাদের আরও পেশাদারী মনোভাব দেখিয়ে রান তাড়া করতে হবে।’ এত কম ব্যবধানে টানা ৩ ম্যাচ হারা সত্যি বিস্ময়কর। এমন কি কারণে হচ্ছে? এ বিষয়ে বোপারা বলেন, ‘আমি কাউকে দোষ দিতে চাই না। অনেক খারাপ শট খেলা হচ্ছে। কিন্তু একই সঙ্গে আমি বলতে চাই এ উইকেটে রান করাটাও অনেক কঠিন। সাধারণত টি২০ ক্রিকেটে ওভারপ্রতি ৮ রান করে করতেই হয়, তা এখানে হচ্ছে না। এটা খুব ভয়ানক ব্যাপার। সবগুলো দলই বেশকিছু ম্যাচে এমন সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে। কারণ উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসছে বিষয়টি শুধু তাই নয়, এর পেছনে উইকেটেরও যথেষ্ট দোষ রয়েছে।’

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামের উইকেট এবার বিপিএলে বেশ বিচিত্র আচরণ করছে। অবশ্য অতীতেও এমন বৈচিত্র্যময় আচরণ করার অনেক রেকর্ড আছে। যা ভাবা হয় তেমন আচরণ পাওয়া যায় না । আর এবারের বিপিএলের প্রথম ম্যাচগুলোয় রান উঠলেও দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মোটেও রান হয় না। এ বিষয়ে বোপারা বলেন, ‘নিচু হয়ে আসে বল এবং আরও নিচু হতে থাকে সময়ের সাথে। উইকেটগুলো দ্বিমুখী নীতির। আর সে কারণেই ব্যাটসম্যানদের বুঝতে সমস্যা হচ্ছে। আমি ঢাকার অনেক ভাল পিচে খেলেছি। কিন্তু এখনকার উইকেট বুঝে উঠতে হবে দ্রুতই। ভাল করার জন্য ওপরের সারির ব্যাটসম্যানদেরই রান করতে হবে। কোনভাবেই ৭, ৮, ৯, ১০ কিংবা ১১ নম্বর ব্যাটসম্যানের ওপর নির্ভর করা যৌক্তক নয়। শীর্ষ ৬ ব্যাটসম্যানকেই ভাল করতে হবে সফলতা পাওয়ার জন্য।’

নির্বাচিত সংবাদ