২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে সবার আগে গেল বরিশাল বুলস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) তৃতীয় আসরের প্রথম ধাপ শেষ হচ্ছে আজ। সিলেট সুপার স্টারস ও ঢাকা ডায়নামাইটসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়েই ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ধাপ শেষ হচ্ছে। সেই সঙ্গে ১২টি ম্যাচও হয়ে যাচ্ছে। সোমবার শুরু হবে দ্বিতীয় ধাপ। চিটাগাং ভাইকিংস ও বরিশাল বুলসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে চট্টগ্রামে দ্বিতীয় ধাপ শুরু হবে। সবার আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে পৌঁছে গেছে বরিশাল বুলসের ক্রিকেটাররা। তবে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের আজ দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার কথা রয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তৃতীয় আসরের পর্দা উঠেছে গত শুক্রবার। টুর্নামেন্টের খেলা শুরু হয়েছে রবিবার। প্রতিদিন দু’টি করে ম্যাচ হচ্ছে। দুপুর ২টায় একটা, সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় আরেকটা ম্যাচ হচ্ছে। টুর্নামেন্টের দল হচ্ছে ৬টি। প্রথম ধাপে প্রতিটি দলই কম করে হলেও ৩টি করে ম্যাচ খেলে ফেলেছে। ফাইনাল দিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১৫ ডিসেম্বর। ডাবল লীগ পদ্ধতিতে খেলা হচ্ছে। প্রতিটি দল একেক দলের বিপক্ষে দু’টি করে ম্যাচ খেলবে। এখনও ফিরতি লেগে খেলা গড়ায়নি।

এবার পাঁচ ধাপে শেষ হবে বিপিএল। প্রথম ধাপ হয়ে যাচ্ছে ঢাকায়। দ্বিতীয় ধাপ হবে চট্টগ্রামে। আবার তৃতীয় থেকে পঞ্চম ধাপ ঢাকাতেই হবে। প্রথম থেকে তৃতীয় ধাপ লীগ পদ্ধতির খেলা। চতুর্থ ধাপ সেমিফাইনালের খেলা। পঞ্চম ধাপ ফাইনাল।

আজ পর্যন্ত বিপিএলের প্রথম ধাপ চলবে ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে। এরপর ২৮ ও ২৯ নবেম্বর দু’দিন বিরতি দিয়ে ৩০ থেকে ৩ ডিসেম্বর টানা চারদিন চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ধাপের খেলা হবে। ৪ ও ৫ ডিসেম্বর আবার দু’দিন টুর্নামেন্টে বিরতি থাকবে। ৬ থেকে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত মিরপুরে টুর্নামেন্টের তৃতীয় ধাপ অনুষ্ঠিত হবে। এ ধাপ শেষে কোয়ালিফায়ার ও এলিমিনেট পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। ১১ ডিসেম্বর একদিন বিরতি থাকবে টুর্নামেন্টে। এ পর্বে তিনটি ম্যাচ হবে। প্রথম কোয়ালিফায়ার, এলিমিনেটর ও দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। প্রথম কোয়ালিফায়ার ও এলিমিনেটর ম্যাচ হবে ১২ ডিসেম্বর। দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচটি ১৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ১৪ ডিসেম্বর একদিন বিরতি থাকবে। ১৫ ডিসেম্বর হবে বিপিএলের তৃতীয় আসরের ফাইনাল। পর্দা নামবে বিপিএলের তৃতীয় আসরের।

লীগ পর্ব শেষে সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। তবে এবার সেমিফাইনাল হবে ভারতের আইপিএলের (ইনডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ) আদলে। লীগ পর্বে পয়েন্ট তালিকার সেরা চারে থাকা চারটি দল পরের রাউন্ডে উঠবে। অর্থাৎ সেমিফাইনাল খেলার রাউন্ডে উঠবে। এ পর্বে লীগ পর্বের পয়েন্ট তালিকায় এক নম্বর ও দুই নম্বরে থাকা দল মুখোমুখি হবে। এ ম্যাচটিকে কোয়ালিফায়ার-১ হিসেবে ধরা হচ্ছে। আবার প্রথম সেমিফাইনালও ধরা হচ্ছে। আরেকটি ম্যাচে পয়েন্ট তালিকায় তৃতীয় ও চতুর্থ নম্বর দলটি লড়াই করবে। এ ম্যাচটিকে ধরা হচ্ছে এলিমিনেট রাউন্ড হিসেবে। কোয়ালিফায়ার-১ এ যে দল জিতবে সরাসরি ফাইনালে খেলবে। হারা দল টিকে থাকবে। আর এলিমিনেট ম্যাচে যে দল হারবে বিদায় নেবে। জয়ী দল টিকে থাকবে। এরপর আরেকটি ম্যাচ হবে। সেটিকে কোয়ালিফায়ার-২ বা দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ধরা হচ্ছে। সেটিতে মুখোমুখি হবে কোয়ালিফায়ার-১ এর হারা দল ও এলিমিনেট ম্যাচের জয়ী দল। যে দল ম্যাচটিতে জিতবে তারা ফাইনালে খেলবে। ১৫ ডিসেম্বর মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে কোয়ালিফায়ার-১ বা প্রথম সেমিফাইনালের জয়ী ও কোয়ালিফায়ার-২ বা দ্বিতীয় সেমিফাইনালের জয়ী দল মুখোমুখি হবে। যে দল জিতবে তারাই চ্যাম্পিয়ন হবে। তৃতীয় আসরের শিরোপা জিতে নেবে।