১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চিটাগংকে হেসে খেলে হারাল ঢাকা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এক ম্যাচ জয়, আরেক ম্যাচ হার; এ চলছে ঢাকা ডায়নামাইটসের ভাগ্যে। প্রথম ম্যাচে জেতার পর দ্বিতীয় ম্যাচে হেরেছে। আবার বৃহস্পতিবার জিতেছে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) তৃতীয় আসরে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে চিটাগংকে হেসে খেলে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ঢাকা।

তিন ম্যাচে যেখানে দুই জয় তুলে নিয়েছে কুমার সাঙ্গাকারার দল ঢাকা, সেখানে চার ম্যাচে করুণ অবস্থাই চিটাগংয়ের। মাত্র এক জয় পেয়েছে তামিম ইকবালের দল। তাও আবার টানা দুই ম্যাচে হারের স্বাদ মিলেছে চিটাগংয়ের। ৯২ রান করে কী আর জেতা যায়। ঢাকাও অনায়াসেই ১৭ বল বাকি থাকতেই জয় তুলে নিয়েছে।

ম্যাচে টস জেতে চিটাগং। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু সুবিধা করতে পারেনি। এমনই অবস্থা হয়েছে ১৮.৪ ওভারে ৯২ রানেই অলআউট হয়ে গেছে দলটি। নাসির হোসেন (৩/১২) ও মুস্তাফিজুর রহমান (৩/১৪) কী বোলিংই না করেছেন। এই দুজনের দুর্দান্ত বোলিংয়েই ধসে গেছে চিটাগং। তবে এখানে আম্পায়ারদের কিছু ভুলও ধরা পড়েছে। তামিম ইকবালের আউটটিই যেমন হয়নি বলেই মনে হয়েছে। দলের ২ রানের সময় এ ব্যাটসম্যান আবুল হাসান রাজুর বলে উইকেটরক্ষক কুমার সাঙ্গাকারার তালুবন্দী হন। বোঝাই গেছে ব্যাটে বল লাগেনি। সাঙ্গাকারা বলটি ধরেও খুব বেশি যে উচ্ছ্বসিত হয়েছেন এমন নয়। কিন্তু শ্রীলঙ্কান আম্পায়ার রেনমর মার্টিনেজ আউট দিয়ে দেন। তামিমের ওপেনিং সঙ্গী তিলকারতেœ দিলশানও তাতে অবাক হয়ে যান। এর পরই চিটাগং ভেঙ্গে পড়ে। ধসও নামে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ অপরাজিত ২৯ রান করেন নাঈম ইসলাম।

চিটাগং এত কম রান করার পরই বোঝা গেছে ঢাকার ঝুলিতেই এ ম্যাচের ফল যাচ্ছে। প্রথম উইকেটেই যখন সৈকত আলী ও টি২০তে অভিষেক হওয়া সাদমান ইসলাম ৪৫ রানের জুটি গড়ে ফেলেন, তখনই সবাই নিশ্চিত হয়ে যায় জয় ধরাই দিচ্ছে। ৪৫ রানে সৈকত (২৩) ও ৭৮ রানে নাসির জামশেদ (১২) আউটের পর ৬ রান যোগ হতেই নাসির (২) আউট হয়ে যান। ৯১ রানে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান নেয়া সাদমানও (৪৫) সাজঘরে ফেরেন। সাঙ্গাকারা ব্যাট হাতে নামতে যেন চাইছিলেন না। কিন্তু ৪ উইকেট পড়াতে নামতেই হল তাকে। শেষে ৫ রান করে করা অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান আবুল হাসান রাজু ও সাঙ্গাকারা খেলা শেষ করেন। জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ১৭.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৯৬ রান করে ম্যাচ জেতে ঢাকা।

স্কোর ॥

চিটাগং ভাইকিংস ৯২/১০; ১৮.৪ ওভার (নাঈম ২৯*, দিলশান ২০, ইয়াসির ১৪, জিয়াউর ৯; নাসির ৩/১২, মুস্তাফিজ ৩/১৪)।

ঢাকা ডায়নামাইটস ৯৬/৪; ১৭.১ ওভার (সাদমান ৪৫, সৈকত ২৩, জামসেদ ১২; নাঈম ৩/৭)।

ফল ॥ ঢাকা ডায়নামাইটস ৬ উইকেটে জয়ী।