১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সামাজিক অনুষ্ঠানে ভোটারদের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রচার চালাচ্ছেন প্রার্থীরা

  • চট্টগ্রামের মীরসরাই ও বারইয়ারহাট

চট্টগ্রাম অফিস/মীরসরাই সংবাদদাতা ॥ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে প্রার্থীরা স্বস্ব দলের সমর্থন আদায়ে তদ্বির শুরু করে দিয়েছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠানে গিয়ে এবং পোস্টারের মাধ্যমে জনগণকে শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। দুই দলের মধ্যে মেয়র পদে সম্ভাব্য একাধিক প্রার্থী থাকায় প্রার্থী নির্বাচনে দলের মধ্যে দ্বন্দ্বের আশঙ্কা রয়েছে। পৌরসভায় মেয়র পদে আগ্রহীদের নিয়ে ভোটারদের মধ্যে আলাপ আলোচনা শুরু হয়েছে। এখনকার প্রধান আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে কে পাচ্ছে প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন।

মীরসরাই ও বারইয়ারহাট প্রার্থী ভোটার সকলের মধ্যে দিনে দিনে বেড়ে যাচ্ছে উৎসাহ উদ্দীপনা। সব মিলিয়ে আসন্ন বারইয়ারহাট ও মীরসরাই পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে গ্রামগঞ্জে সর্বত্র চলছে আলোচনার ঝড়। চায়ের আসর, গ্রামের বটতলা, হাটখোলাসহ বাড়িঘরে, অফিসপাড়ায় সর্বত্র আলোচনা এখন ‘কোন এলাকায় কে বর্তমান প্রধান দল আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন’। আবার বিএনপি ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন না করলে প্রার্থীদের গতিপথ অন্যদিকে প্রবাহিত হবে কিনা তা আলোচনা চলছে।

মীরসরাই ॥ মীরসরাই পৌরসভায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইবেন বর্তমান মেয়র এম শাহজাহান। একই দলের মনোনয়ন প্রার্থী রয়েছেন গত নির্বাচনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার এনামুল হক, এছাড়া মনোনয়ন প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সিরাজ উদ্দৌল্লাহ। মনোনয়ন নিয়ে নানাভাবে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির। আওয়ামী লীগের আরো মনোনয়ন প্রত্যাশী মীরসরাই পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শেখ শহিদুন্নবীও মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে। মীরসরাই পৌরসভায় বিএনপির সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রার্থী রয়েছেন মীরসরাই কলেজের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম লতিফী। মনোনয়ন প্রার্থী মীরসরাই পৌর বিএনপির বর্তমান সভাপতি ফকির আহাম্মদ। এছাড়া বিএনপি থেকে আরও মনোনয়ন প্রার্থী রয়েছেন উপজেলা ও পৌর বিএনপির সদস্য আনোয়ার হোসেন সুজন। বিএনপির সকল প্রার্থীগণ ধর্ণা দিচ্ছেন বর্তমান জেলা বিএনপির অভিভাবক উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর কাছে।

বারইয়ারহাট ॥ বারইয়ারহাট পৌরসভায় দীর্ঘদিন থেকে আওয়ামী লীগের প্রধান মনোনয়ন প্রার্থী ভিপি নিজাম উদ্দিন ও রেজাউল করিম খোকন। দুজনই এখন বারইয়ারহাট পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় এখানে তাদের বাইরে কাউকে মনোনয়ন দিতে পারে বলে প্রচার আছে। আর সেই প্রশ্নে সাবেক উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল করিম লিটনের নাম সাম্প্রতিক সময়ে বেশ আলোচিত হচ্ছে। আবার মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের চাচাতো ভাই মীর আলম মাসুকের নামও শোনা যাচ্ছে। এছাড়া সোনা মিয়া ও মহিউদ্দিন সওদাগরসহ অনেকেই আলোচনা আছে। আবার বর্তমান মেয়র উপজেলা ও আওয়ামী লীগ নেতা এসএম তাহের ভূঁঞা মনোনয়নে জোর প্রত্যাশী। এখানে বিএনপির মনোনয়ন প্রার্থী গত নির্বাচনের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা যুবদল ও পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি মাঈন উদ্দিন লিটন এছাড়া দিদারুল আলমের নাম নানাভাবে প্রচারণায় আবার দলিল লিখক সমিতির সভাপতি জসিম উদ্দিন ও বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে জানা গেছে। এছাড়া সাবেক মেয়র জালাল উদ্দিনের নামও শোনা যাচ্ছে।