২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রংপুরে দুই পৌরসভায় নির্বাচন হচ্ছে না ॥ অপরটিতে তোড়জোড়

মানিক সরকার মানিক, রংপুর ॥ রংপুরের তিনটি পৌরসভার মধ্যে দুটিতেই মামলা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে বর্তমানে নির্বাচন হচ্ছে না। এ পৌরসভা দুটো হলো কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ ও প্রধানমন্ত্রীর শ্বশুরবাড়ি এবং নির্বাচনী এলাকা পীরগঞ্জ পৌরসভা। তবে অপর যে পৌরসভাটিতে নির্বাচনের তোড়জোর শুরু হয়েছে সেটি হলো বদরগঞ্জ পৌরসভা।

মঙ্গলবার নির্বাচনী তফসিল এবং মেয়র পদে দলীয় প্রার্থীদের নির্বাচন করার ঘোষণায় এখানকার প্রায় সব দলের প্রার্থীদের মাঝেই একটা অন্যরকম প্রণোদনার সৃষ্টি হয়েছে। এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ তাদের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন বর্তমান মেয়র এবং পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি উত্তম কুমার সাহাকে। আর বিএনপির প্রার্থী হিসেবে কাজ করছেন সাবেক সাংসদ উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক পরিতোষ চক্রবর্তী। এখানে স্বতন্ত্র পদ নিয়ে মেয়র পদে নির্বাচন করবেন সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা ও বদরগঞ্জ মহিলা ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আজিজুল হক। এছাড়া জাতীয় পার্টির অবস্থা এখানে অনেকটাই টালমাটাল এখন। একটা সময় অধ্যাপক পরিতোষ চক্রবর্তী এবং মোহাম্মদ আলী দলের হাল ধরে রাখলেও পরবর্তীতে তারা এখন বিএনপিতে যুক্ত।

এরপর এরশাদ আনিস ম-লকে এবং পরে অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামান সাবলু চৌধুরীকে দলের দায়িত্ব দিলে অনেকটাই নিষ্ক্রিয় এ দল। এছাড়া ৯টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন পাড়া মহল্লা।

গাইবান্ধায় শহরজুড়ে পোস্টার ॥ পাড়া-মহল্লায় যাচ্ছেন প্রার্থীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ২৬ নবেম্বর ॥ পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে গাইবান্ধায় সম্ভাব্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা জোরেশোরে তাদের প্রচারণা শুরু করেছেন। গোটা শহর প্রার্থীদের পোস্টারে ছেয়ে গেছে। সব প্রার্থীই ছোটখাটো সমাবেশ করে, বিভিন্ন মাহফিলে প্রধান অতিথি হয়ে এবং ভোটারদের ঘরে ঘরে তাদের বার্তা পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করছেন স্বশরীরে হাজির হয়ে। অবশ্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রচারণার ক্ষেত্রে আরেক ধাপ এগিয়ে। তারা পোস্টারিং ছাড়াও ঘন ঘন বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় গিয়ে ভোট প্রার্থনা করে যাচ্ছেন। তারা গরিব ভোটারদের বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতাও করছেন। চায়ের দোকানগুলোতে পৌর নির্বাচনের বিষয়টি এখন আলোচনায় প্রাধান্য পাচ্ছে। সম্ভাব্য প্রার্থীরাও পাড়া-মহল্লার দোকানগুলোতে গিয়ে ভোটারদের সঙ্গে শুভেচ্ছাবিনিময় করছেন। অপরদিকে দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি এবার গুরুত্ব পাওয়ায় দলের স্থানীয় নেতাদের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় নেতাদের সমর্থন আদায়ে বিভিন্নভাবে তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।