২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাফের অগ্নিপরীক্ষায় মারুফুল হক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জগতে কোন কিছুই চিরস্থায়ী নয়। আজ যে রাজা, কাল সে প্রজা। কদিন আগেও ইতালির ফ্যাবিও লোপেজ ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ। আজ তিনি নেই। না, তিনি মারা যাননি, বরখাস্ত হয়েছেন। তার জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন বাংলাদেশের মারুফুল হক। উপমহাদেশের প্রথম এবং একমাত্র উয়েফা ‘এ’ ক্যাটাগরি লাইসেন্সপ্রাপ্ত কোচ মারুফুলের জন্য জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পাওয়াটা অনেকটা অপ্রত্যাশিতই বটে। আর যে দায়িত্ব পেয়েছেন, সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বলতে গেলে একপ্রকার ‘অগ্নিপরীক্ষা’ই বটে। পরীক্ষার নাম ‘সাফ সুজুকি কাপ।’

আজ শনিবার তার সঙ্গে চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা সারবে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। দায়িত্ব বুঝে পাওয়ার পর মারুফুল সাফের জন্য প্রস্তুতি নিতে সময় পাবেন মাত্র এক মাস। মারুফুলের আগে সর্বশেষ দেশীয় কোচ ছিলেন সাইফুল বারী টিটু। মারুফুলের প্রথম পরীক্ষা সাফ ফুটবল দিয়ে। বাফুফের সঙ্গে চুক্তির আগেই শুক্রবারই চীনে খেলতে যাওয়া দলের বাইরে থাকা ৯ ফুটবলারকে নিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়তে দেখা গেছে তাকে। বাফুফে জানিয়েছে সাফে ভাল করতে মারুফুলকে দল নির্বাচনে পূর্ণ স্বাধীনতাই দেবে তারা। প্রাথমিক ক্যাম্পে ৫০ ফুটবলারকে নেবার কথা রয়েছে। মারুফুলের সঙ্গে বাফুফের আলোচনা চলছে বেশ কদিন হলো। কাদের নিয়ে সাফে ভাল করা যায় সেটা হয়তো মনে মনে ছক কষে রেখেছেন মারুফুল। তাই দলের বাইরে থাকা এমিলি-নাসিরদের ফিটনেস ধরে রাখতে নিয়মিত অনুশীলন চালিয়ে যেতে আগেই বলে রেখেছিলেন তিনি। শুক্রবার সকালে বুয়েট মাঠে জাতীয় দলের বাইরে থাকা ৯ ফুটবলারের ফিটনেসটা একটু ঝালিয়ে দেখেন ২০১২-১৩ মৌসুমে শেখ রাসেলকে কোচ হিসেবে ‘ঐতিহাসিক’ ট্রেবল জেতানো মারুফ। এ বিষয়ে মারুফুল বলেন, ‘আসলে এটা কোন অফিসিয়াল অনুশীলন না। আমার মনে হয়েছে ওদের জাতীয় দলে খেলার যোগ্যতা আছে। তাই ওদের ডেকেছি। তাদের নিয়ে আমার কিছু কাজ ছিল। এই কাজগুলো করলাম।’ রবিবার থেকে শুরু হবে জাতীয় দলের ক্যাম্প। দলের সমন্বয় আর ফিটনেসের ঘাটতিগুলো পুষিয়ে নিতে প্রথম ১৫ দিন বিল্ডআপ ট্রেনিং করাবেন মারুফুল। প্রথম এক সপ্তাহ দুই সেশন করে শুরু হবে। তারপর দল ছোট করে আনা হবে। এরপর থেকে এক সেশন করে সাফের আগ পর্যন্ত অনুশীলন চলবে বলে জানিয়েছেন মারুফুল। পেটে টিউমারের অপারেশন হওয়াতে ডাক পেয়েও বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দলে থাকতে পারেননি ফরোয়ার্ড জাহিদ হাসান এমিলি। তবে চট্টগ্রামে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলে খেলেছেন।