২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে লেনদেন বেড়েছে ২২ দশমিক ৬৪ শতাংশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের পাশাপাশি বেড়েছে সব ধরনের মূল্য সূচক। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২২ দশমিক ৬৪ শতাংশ। তবে প্রধান বাজারের সার্বিক সূচক ৪ হাজার ৬শ’ পয়েন্টের মনস্তাত্ত্বিক বাধা পেরোতে পারেনি। ঠিক এই জায়গায় থেকেই বাজারটি ঘুরপাক খাচ্ছে।

পুঁজিবাজার উন্নয়নে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ২ হাজার কোটি টাকা ঋণ, ভারতীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থার সঙ্গে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সহযোগিতা জোরদার এবং ওষুধ, জাহাজ নির্মাণ শিল্প ও বিভিন্ন অপ্রচলিত পণ্যের রফতানিতে নগদ প্রণোদনার মতো ইতিবাচক খবরে রবিবার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ বাড়ে ডিএসই। আগের সপ্তাহে ২ দশমিক ২১ শতাংশ বেড়েছিল সূচকটি।

তবে সোমবার থেকেই বিনিয়োগকারীদের কিছুটা সতর্ক দেখা যায়। জানা গেছে, পরিকল্পনা কমিশন চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস আগের ৭ শতাংশ থেকে ৬ দশমিক ৮ শতাংশে নামিয়ে এনেছে। বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সামষ্টিক অর্থনীতির গতি-প্রকৃতি নিয়ে এসব প্রতিবেদন বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করেছে। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাংকের বিনিয়োগ সমন্বয়ে সময় বাড়ানোর আশ্বাসকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক দরবৃদ্ধির এক পর্যায়ে পোর্টফোলিওর ঝুঁকি কমাতে শেয়ার বিক্রি করেন অনেক বিনিয়োগকারী।

জানা গেছে, আগের সপ্তাহের চেয়ে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৪০৫ কোটি ৪৬ লাখ টাকার। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ১৯৬ কোটি ৯ লাখ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৭৯০ কোটি ৬৩ লাখ টাকার।

সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৬ দশমিক ৯৩ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ২ দশমিক ৪৫ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৯ দশমিক ৮৭ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে দশমিক ৭৫ শতাংশ।

এদিকে, ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে দশমিক ৯৩ শতাংশ বা ৪২ দশমিক ১২ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই৩০ সূচক বেড়েছে দশমিক ৫০ শতাংশ বা ৮ দশমিক ৫?৮ পয়েন্ট। অপরদিকে, শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে দশমিক ৮৮ শতাংশ বা ৯ দশমিক ৬৪ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩২৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৯টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৫৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির। আর লেনদেন হয়নি ৪টি কোম্পানির শেয়ার।

ডিএসইর সাপ্তাহিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সাইফ পাওয়ার টেক, ইফাদ অটোস, বেক্সিমকো ফার্মা, আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, ফার কেমিক্যাল, তিতাস গ্যাস, কেডিএস এক্সেসরিজ, স্কয়ার ফার্মা, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন ও সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, এমআই সিমেন্ট, প্রাইম ফাস্ট মিউচুয়াল ফান্ড, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, আফতাব অটো মোবাইল, ডেল্টা লাইফ, আরএসআরএম স্টিল, ফার কেমিক্যাল, এমারেল্ড ওয়েল এবং এএফসি