১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতে গোল্ড বন্ড বিক্রিতে ব্যাপক সাড়া

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাজারে আসার পর এখনও তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি সোনা জমা প্রকল্প। কিন্তু সম্পূর্ণ উল্টো ছবি প্রথম দফার গোল্ড বন্ড বিক্রির ক্ষেত্রে। ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই বন্ড কিনতে খুচরো লগ্নিকারীদের তরফে জমা পড়েছে প্রায় ৬৩ হাজার আবেদনপত্র। যেখানে ৯১৭ কেজি সোনা কেনার জন্য ওই আবেদনের মোট মূল্য ২৪৬.২০ কোটি টাকা। যা দেখে রিজার্ভ ব্যাংকের গবর্নর রঘুরাম রাজনের মন্তব্য, ‘এ রকম প্রতিক্রিয়া খুবই ভাল ও উৎসাহজনক।’ গত ৫ থেকে ২০ নবেম্বর প্রথম দফায় ব্যাংক ও ডাকঘর মারফত গোল্ড বন্ড বাজারে ছাড়ে রিজার্ভ ব্যাংক।

তবে সোনা জমা প্রকল্পকে চাঙ্গা করতে তাতে কিছু বদল আনা জরুরী বলে জানিয়েছেন রাজন। অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে দাবি, প্রথম ক’দিনে এ নিয়ে উৎসাহ বেশ কম বলে অভিযোগ উঠায় প্রকল্পকে আরও ছড়িয়ে দিতে উদ্যোগী হয়েছে তারা এবং সেই উদ্দেশ্যে সাতটি পদক্ষেপও করেছে। যার মধ্যে রয়েছে ব্যাংক রাজি থাকলে সোনা জমা বা পরীক্ষা কেন্দ্রকে এগিয়ে সরাসরি সোনা গলানোর কেন্দ্রে তা জমার সুযোগ, সোনা গলানোর কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়াতে ভারতীয় মানক ব্যুরো বা বিআইএসের ছাড়পত্র দেয়ার শর্ত শিথিল, সচেতনতা বাড়াতে সোশ্যাল মিডিয়া, রেডিও, টিভি, সংবাদপত্রে আরও জোরদার প্রচার ইত্যাদি।

বাজার আসার পর প্রথম ১৪ দিনে স্বর্ণ জমা প্রকল্পে সংগৃহীত হয়েছে মাত্র ৪০০ গ্রাম সোনা। ভারতের প্রায় ১৩,০০০ বিআইএস স্বীকৃত গয়না বিক্রেতাকেই সোনা জমা নেয়ার অনুমতি দিতে আর্জি জানিয়েছিল কেন্দ্রের কাছে। যা নৈতিকভাবে মেনেও নেয় অর্থ মন্ত্রণালয়।

বেদে সম্প্রদায়ের তৈরি করা পোশাক বিক্রির শো-রুম উদ্বোধন

অর্থনৈতিক রিপোর্ট ॥ সাভারের বেদে সম্প্রদায়ের তৈরি করা পোশাক বিক্রির জন্য আশুলিয়ায় ‘উত্তরণ’ নামে একটি শো-রুম উদ্বোধন করা হয়েছে। ঢাকা-১৯ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ এনামুল রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে শনিবার সকালে আশুলিয়ার জামগড়া ফ্যান্টাসি কিংডমের পাশে এ শো-রুমের উদ্বোধন করেন। শো-রুম উদ্বোধনকালে ডাঃ এনামুল বলেন, অনেক বেদে পরিবার তাদের পেশা পরিবর্তন করতে চায়। পেশা পরিবর্তন করে অনেক সময় দেখা যায় ভাল কাজ না পেয়ে তারা পুনরায় আগের পেশায় ফিরে যায়। তাই অবহেলিত ও পেশা পরিবর্তন করতে আগ্রহী বেদে পরিবারের জন্যই এই শো-রুমটি খোলা হয়েছে।