২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দিল্লীতে আকাশ পথে হামলার ছক কষেছে জঙ্গীরা!

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ভারতের রাজধানী দিল্লীর গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি জায়গায় আকাশপথে হামলার ছক কষেছে জঙ্গী সংগঠনগুলো? আইএস, লস্কর-ই-তৈয়বা ও হুজির মতো কয়েকটি জঙ্গী সংগঠন হামলা চালাতে পারে বলে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে খবর রয়েছে? হামলার জন্য তারা বেছে নিতে পারে ২৫ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারির মধ্যে যে কোন দিনকে? কারণ, সে সময় একদিকে যেমন পর্যটকদের সমাগম হয়, তেমনই বড়দিন উপলক্ষে আয়োজন হয় নানা অনুষ্ঠানের? খবর ওয়েবসাইটের।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে জঙ্গী নাশকতার খবর আসার পরই শনিবার সকালে জরুরী বৈঠকের নির্দেশ দেয়া হয়েছে? স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন দিল্লী পুলিশ এবং সিআইএসএফের শীর্ষ কর্মকর্তারা? মাসখানেক আগেই আইএস হুমকি দিয়েছিল, ভারতে তারা নাশকতা চালাবে? এরপরই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়? এই মুহূর্তে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা? বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যেই কড়া পদক্ষেপের কথা বলেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়? এমনকি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন, যে কোনভাবেই হোক জঙ্গী নাশকতার মোকাবেলা করবে সরকার? কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের কাছে জঙ্গী হামলার খবর আসার পরই বিষয়টিকে আরও গুরুত্ব দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা? মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র মতে, রাজধানীর মূলত ১৫ বিশেষ স্পর্শকাতর জায়গা বেছে নিয়েছে জঙ্গীরা? এর মধ্যে রয়েছে সংসদ ভবন, ইন্ডিয়া গেট, প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির ভবনও। এমনকি বিমানবন্দর এবং রেলস্টেশনে নাশকতার খবরও রয়েছে গোয়েন্দাদের কাছে? এই খবর পাওয়ার পরই বিমানবন্দর এবং রেলস্টেশনে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে?

রাজধানীর বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে? দেশের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ শহরে জঙ্গী নাশকতার খবর রয়েছে? স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নির্দেশ দিয়েছে, যে কোন সন্দেহভাজন পরিস্থিতির খবর তৈরি হলেই যেন কেন্দ্রীয় সরকারকে জানানো হয়। পরিস্থিতি মোকাবেলায় তৈরি থাকতে বলা হয়েছে সেনাবাহিনীকে। গোয়েন্দাদের মতে, সড়কপথে হামলা চালানো, জঙ্গী অনুপ্রবেশ ঘটানোয় অনেক ক্ষেত্রেই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে জঙ্গী সংগঠনগুলোকে? আর তাই আকাশ পথকেই বেছে নিয়েছে তারা? কারণ, সেক্ষেত্রে আত্মঘাতী হামলা চালানো সহজ বলে গোয়েন্দাদের খবর? আকাশপথে হামলার জন্য ড্রোন অথবা প্যারা-মোটর ব্যবহার করা হতে পারে। এজন্য ভারতীয় বিমানবাহিনী সন্দেহজনক আখ্যা দিলেই এ ধরনের উড়ন্ত বস্তুকে গুলি করে নামানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে নিরাপত্তাকর্মীদের।

এ বিষয়ে নর্থ ব্লকে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। এতে সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফোর্স, কেন্দ্রীয় বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয় এবং ভারতীয় বিমানবাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এতে সম্ভাব্য হামলা মোকাবেলা নিয়ে উপায় সম্পর্কে আলোচনা হয়।

সরকারী এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বলেন, দেশের শহরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে স্পর্শকাতর হলো দিল্লী। বেশ কয়েকটি জঙ্গী সংগঠনের টার্গেটে রয়েছে শহরটি। এসব সংগঠনের মধ্যে আইএসও রয়েছে। এখন আকাশপথে হামলার বিষয়টি নতুন। তাই কোন আকাশে সন্দেহজনক বস্তু দেখা গেলেই গুলি করে নামানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।