২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মগজ চুরি

মগজ চুরি

চুরির কথা শোনা যায় প্রায়ই। চুরি হয় নানা কায়দায়। এবার চুরি হয়েছে ব্যতিক্রমী এক জিনিস। আর সেটা হলো মানুষের মগজ। চিকিৎসা জাদুঘরে ঢুকে সংরক্ষণ করা মানুষের মগজ চুরি করেই ক্ষান্ত হয়নি ডেভিড চার্লস। আবার দ্রুত সেগুলো একটি অনলাইন সাইটে বিক্রিও করে ফেলেছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানাপোলিসে ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১৩ সালে। সে বছরের ডিসেম্বরে চার্লসকে গ্রেফতারও করা হয়। কিন্তু তখন অপরাধ স্বীকার করেনি সে। তবে দু’বছর বাদে সম্প্রতি ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অপরাধ স্বীকার করে চার্লস। তাকে এক বছর গৃহবন্দী থাকার সাজা দেন ম্যাজিস্ট্রেট।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালে একাধিকবার ইন্ডিয়ানার মেডিক্যাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামে ঢুকে সংরক্ষণ করা বেশ কয়েকটি মানুষের মগজ চুরি করে চার্লস। চুরি করে মানবদেহের টিস্যুও। একটি অনলাইন সাইটে ৬০০ ডলার খরচ করে এমনই ছটি জারবন্দী মানুষের মগজের অংশ কিনেছিলেন সানডিয়াগোর এক বাসিন্দা। কিন্তু চার্লস ধরা পড়ে ফলভাবে?

ইন্টারনেট ঘেঁটে সানডিয়াগোর ওই ব্যক্তি বুঝতে পারেন, তাঁর কেনা মগজের সঙ্গে মেডিক্যাল হিস্ট্রি মিউজিয়াম থেকে চুরি যাওয়া মগজের মিল রয়েছে। এর পরেই পুলিশে খবর দেন তিনি। ধরা পড়ে যায় চার্লস। সূত্র-ওয়েবসাইট