২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজধানীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, কিশোরীকে ধর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর ভাটারায় স্বামীর পুতার (শিলনোড়া) আঘাতে স্ত্রী খুন হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী মঞ্জুরুল ইসলামকে (৩০) গ্রেফতার করেছে। পুলিশ জানায়, পরকীয়ার জের ধরে এ হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটেছে। খিলক্ষেতে ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে কামরাঙ্গীরচরে হাত-পা বেঁধে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষক আব্দুর রহিমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বনানীতে হিজড়াদের টাকা তোলাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে তিনজন আহত হয়েছে। শনিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ভাটারার কাজীবাড়ি এলাকায় কুলসুম বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধূর মাথা পুতা (শিল) দিয়ে থেঁতলে দিয়ে হত্যা করেছে তার পাষ- স্বামী মঞ্জুরুল ইসলাম। শুক্রবার সকালে পুলিশ ভাটারার জোয়ার সাহারা বাজার কাজীবাড়ির ১/১২৩ নম্বর বাড়ি থেকে কুলসুমের লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠায়। ভাটারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুল মুক্তাকিন জানান, শুক্রবার রাতে কুলসুম আক্তার তার স্বামী মনজুরুলকে নিয়ে ভাটারায় বাবা মুন্নাফ আলীর বাসায় বেড়াতে যান। রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হয়। তিনি জানান, শনিবার ভোরের দিকে কুলসুমের চিৎকার শুনে বাসার সবাই দৌড়ে আসেন। প্রতিবেশীরা এগিয়ে কুলসুমের স্বামী মঞ্জুরুলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। ওসি জানান, কুলসুম স্বামী মনজুরুলকে নিয়ে গাজীপুর টঙ্গীতে থাকতেন। মনজুরুল সেখানের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। নিহতের মামা ইমান আলী জানান, মঞ্জুরুলের পরকীয়া প্রেম ছিল। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়শই ঝগড়া হতো। পারিবারিকভাবেও কয়েকবার এসব সমাধানের চেষ্টা করা হয়। নিহত কুলসুমের ৯ বছরের এক ছেলে ও ৪ বছরের এক মেয়ে রয়েছে।

ট্রেনে কাটা পড়ে এক যুবরেক মৃত্যু ॥ রাজধানীর খিলক্ষেতে ট্রেনের ধাক্কায় হুমায়ুন কবির (৩০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা রেলওয়ে থানার এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, শনিবার সকালে খিলক্ষেত রেল ক্রসিং পারাপারের সময় ওই যুবকের মাথায় আঘাত লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে সেখান গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

কিশোরীকে ধর্ষণ ॥ রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর চাঁন মসজিদ এলাকায় ঘরে নিয়ে হাত-পা বেঁধে এক কিশোরীকে (১১) ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে ধর্ষিতা কিশোরীকে ঢামেক হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। ভিকটিমের মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার গভীর রাতে প্রতিবেশী ধর্ষক আব্দুর রহিমকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি তদন্ত সাকের মোহাম্মদ জুবায়ের জানান, ভিকটিমের ফরেনসিক পরীক্ষা করার জন্য ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভিকটিমের খালা জানান, কয়েক বছর আগে ওকে কোলে রেখে তার বাবা ফেলে চলে গেছে। আর তার মা দর্জির দোকানে কাজ করেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়িতে একা পেয়ে পাশের বাড়ির আব্দুর রহিম তার কিশোরী বোনঝিকে কৌশলে তার ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তার হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে। পরে আব্দুর রহিম এই কথা কাউকে বললে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বোনঝিকে। ভিকটিমের খালা আরও জানান, ওদিন রাতে তার মা কাজ শেষে বাড়ি এলে মেয়েকে অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পায়। এক পর্যায়ে মেয়ে তার মাকে বলে, তার ব্যথা করছে। ঘটনাটি খুলে বলে। পরে গভীর রাতে তার অবস্থা আরও খারাপ হলে তাকে ডাক্তার দেখিয়ে বাসায় নিয়ে আসা হয়। পরে অবস্থায় অবনতি হলে শুক্রবার রাতে তাকে ঢামেক হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়।

হিজড়া পরিচয়কারীদের ছুরিকাঘাতে তিনজন আহত ॥ রাজধানীর বনানীতে হিজড়াদের টাকা তোলাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে ৩ জন আহত হয়েছে। পরে তাদের আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন, আলামিন (১৯), ঝুমা (২৫) ও হৃদয় (১৮)। এদের মধ্যে আলামিনের অবস্থা গুরুতর। এছাড়া আহত ঝুমা হিজড়া বলে জানিয়েছে পুলিশ। বনানী থানার উপ-পরিদর্শক নূরুল হক জানান, শনিবার দুপুরে বনানীর বেলতলা এলাকায় কড়াইল বস্তিতে টাকা তুলতে নামে হিজড়া সুমি, মাসুদা ওরফে মাসুমা, মানিকসহ কয়েকজন। এ সময় আলামিন, হৃদয় ও ওই বস্তিতে বসবাসকারী হিজড়া ঝুমা বাধা দেয়। এক পর্যায়ে তাদের ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় হিজড়া সুমি ও তার দলবল। তিনি আরও বলেন, আহতদের মধ্যে আলামিনের জখম গুরুতর। এছাড়াও ঝুমার মাথায় ও হৃদয়ের মুখে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে।