২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইএস নির্মূল একমাত্র লক্ষ্য

  • পশ্চিমাপন্থী সৈন্যদের ওপর বিমান হামলা না চালাতে সম্মত পুতিন

রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন জঙ্গী দল ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে লড়াইরত পশ্চিমাপন্থী দলগুলোর ওপর বোমাবর্ষণ না করতে সম্মত হয়েছেন। সেই উদ্দেশে দলগুলো সিরিয়ার কোথায় তৎপর রয়েছে তার এক মানচিত্র এঁকে দিতে ফ্রান্সের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন পুতিন। ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী লঁরা ফাবিয়াস শুক্রবার একথা বলেন। এদিকে, শনিবার সিরীয় সেনাবাহিনী বলেছে, সম্প্রতি তাদের ভাষায় সন্ত্রাসীদের প্রতি অস্ত্র, গোলাবারুদ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ বৃদ্ধি করছে তুরস্ক। সেনাবাহিনী তাদের অবস্থানগুলোর ওপর গোলাবর্ষণের দায়েও উত্তরাঞ্চলীয় সিরীয় প্রতিবেশী তুরস্ককে অভিযুক্ত করেছে।

ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফাঁসোয়া ওলাঁদ ও পুতিন বৃহস্পতিবার মস্কো আলোচনাকালে আইএস ও অন্যান্য বিদ্রোহী দল সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করতে সম্মত হন। সিরিয়ায় ফ্রান্স ও রাশিয়ার বোমাবর্ষণ অভিযানের কার্যকারিতা বাড়ানোই এর উদ্দেশ্য। ফাবিয়াস বলেন, সন্ত্রাসী নয় এবং ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াই করছে এমন বাহিনীগুলোর এক মানচিত্র এঁকে দিতে আমাদের বলেছেন পুতিন। আমরা এটি তাকে দেয়ার পর তাদের ওপর বোমা বর্ষণ না করার প্রতিশ্রুতি তিনি আমাদের দিয়েছেন। ওলাঁদের সঙ্গে মস্কো সফরের পর ফাবিয়াস এক টেলিভিশন চ্যানেলে কথা বলছিলেন। পশ্চিমা দেশগুলো আইএসের পরিবর্তে পশ্চিমাপন্থী বিদ্রোহী দলগুলোর ওপরই বেশি হামলা চালানোর দায়ে মস্কোকে অভিযুক্ত করে থাকে। এসব বিদ্রোহী দল সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। আইএস প্যারিস হামলার দায় স্বীকার করার পর ফ্রান্স সিরিয়ায় দলটির বিভিন্ন অবস্থানের ওপর বিমান থেকে বোমাবর্ষণ জোরদার করেছে। ১৩ নবেম্বর পরিচালিত হামলায় ১৩০ জন নিহত হয়।

ফাবিয়াস বলেন, একটি বিষয়ে এখন সবাই একমত এবং সেটি হলো দায়েশকে (আইএস) ধ্বংস করার লক্ষ্য। তিনি বলেন, ওই লক্ষ্যে আমাদের অগ্রগতি হচ্ছে বলে আমি মনে করি।

তিনি আরও বলেন যে, আগামী সপ্তাহগুলোতে উভয় পক্ষের তাৎক্ষণিক অগ্রাধিকার হবে আইএসের সিরিয়ার শক্তিশালী ঘাঁটি রাকাকে মুক্ত করা এবং দলটির নিয়ন্ত্রিত তেল অবকাঠামোর ওপর হামলা চালানো। তিনি বলেন, এটি দায়েশের স্নায়ু কেন্দ্র। সেখান থেকেই বিভিন্ন হামলার বিশেষত ফ্রান্সে চালানো হামলার পরিকল্পনা করা হয়।

তবে মস্কো আলোচনায় প্রেসিডেন্ট আসাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে পুতিন ও ওলাঁদের মধ্যে মতানৈক্য থেকে যায়। এটি মস্কো ও পাশ্চাত্যের মধ্যে সহযোগিতার পথে বড় বাধা। আসাদ রাশিয়ার অন্যতম মিত্র, কিন্তু পশ্চিমা দেশগুলো তুরস্ক সৌদি আরব তাকেই সিরিয়ার পাঁচ বছরের গৃহযুদ্ধের জন্য দায়ী করে এবং তাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে চায়। সিরীয় সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, তুর্কি সরকার সম্প্রতি সন্ত্রাসীদের প্রতি এর সমর্থন এবং তাদের অপরাধমূলক তৎপরতা চালিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অস্ত্র, গোলাবারুদ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহের পরিমাণ বৃদ্ধি করেছে। এ বিষয়ে আমাদের হাতে নিশ্চিত তথ্য রয়েছে। সিরীয় সরকার চলমান গৃহযুদ্ধে প্রেসিডেন্ট আসাদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সব দলকেই সন্ত্রাসী বলে বর্ণনা করে থাকেন। ৩০ সেপ্টেম্বর বিমান হামলার মধ্য দিয়ে রাশিয়া দামেস্কোর পক্ষে সামরিক হস্তক্ষেপ করার পর যুদ্ধ আরও তীব্র রূপ নিয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ