১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চোরাচালান ও মানব পাচার বন্ধে ঢাকা দিল্লীর অঙ্গীকার

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর ও সিলেট অফিস ॥ বাংলাদেশ ও ভারতের জেলা প্রশাসক পর্যায়ের সীমান্ত সম্মেলন রবিবার যশোরে এবং মৌলভীবাজারে শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ৯টায় শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত যশোর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সম্মেলনে উভয় দেশের মাঠ পর্যায়ের প্রশাসনের কর্মকর্তারা বেশকিছু বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে একমত হয়েছেন। দুই দেশের মধ্যে বন্দী বিনিময়, যৌথ সীমান্ত জরিপ এবং অন্যান্য বেশকিছু বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার পর উভয় পক্ষ এসব বিষয়ে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার বিষয়ে একমত পোষণ করেন। সম্মেলনে সীমান্তের ইছামতি ও কালিন্দী নদীর সীমানা চিহ্নিতকরণ, নষ্ট ও হারানো পিলার পুনঃস্থাপনের বিষয়েও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহত্তর সিলেটের মৌলভীবাজারে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় শনিবার। খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আব্দুস সামাদের উপস্থিতিতে যশোরের সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর। সম্মেলনে ভারতের পক্ষে অংশগ্রহণ করেন ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগনার ডিস্ট্রিক কালেক্টর মন্মিত নন্দা ও পুলিশ সুপার তন্ময় রায় চৌধুরী। বাংলাদেশের পক্ষে যশোর জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, ২৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল জাহাঙ্গীর হোসেন, সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক নাজমুল হাসান, পুলিশ সুপার চৌধুরী মঞ্জুরুল কবীর, ৩৮ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আরমান হোসেন এবং ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক মাহাবুব আলম তালুকদার ও পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন এ সম্মেলনে অংশ নেন।

সম্মেলন শেষে বিকেল ৪টায় যৌথ প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। যৌথ ব্রিফিংয়ে যশোর জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর ও উত্তর চব্বিশ পরগনার ডিস্ট্রিক কালেক্টর মন্মিত নন্দা জানান, আলোচনায় দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য আরও বৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে বাধাসমূহ দূর করার লক্ষ্যে একসঙ্গে কাজ করার বিষয়ে একমত হয়েছেন বাংলাদেশ ও ভারতের কর্মকর্তারা। এছাড়া সীমান্তে চোরাচালান, মাদক পাচার এবং মানবপাচার বন্ধে দুই দেশের কর্মকর্তারা যৌথভাবে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

এর আগে গত বছর ভারতে পশ্চিমবঙ্গে প্রথম বাংলাদেশ-ভারত জেলা প্রশাসক-জেলা ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। রবিবারের বৈঠকে ভারতে অনুষ্ঠিত সীমান্ত বৈঠকের গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

নিজস্ব সংবাদদাতা মৌলভীবাজার থেকে জানান, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সীমান্ত সমস্যা সমাধান এবং সম্পর্ক উন্নয়নে জেলা প্রশাসক পর্যায়ের সম্মেলন (ডিসি-ডিএম সম্মেলন) শনিবার মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের গ্র্যান্ড সুলতান হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বাংলাদেশের সিলেট ও মৌলভীবাজার এবং ভারতের আসাম ও করিমগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসকসহ উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

শনিবার দুপুর পৌনে ২টায় ভারতীয় প্রতিনিধি দল সিলেটের বিয়ানীবাজারের শেওলা সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এ সময় মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান, সিলেটের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, সিলেটের এডিএম সৌয়দ মোঃ আমিনুর রহমান, বিজিবি-৫২’র সিও মেজর আবদুল্লাহ আল মাহমুদ তাদের স্বাগত জানান। বিয়ানীবাজারে যাত্রাবিরতি করে শ্রীমঙ্গলে রওয়ানা দেন অতিথিরা। এ সময় বাংলাদেশের উষ্ণ আতিথেয়তায় মুগ্ধতা প্রকাশ করেন ভারতীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

ভারতীয় প্রতিনিধি দলের সদস্য হয়ে বাংলাদেশে এসেছেন করিমগঞ্জের ডেপুটি কমিশনার সঞ্জীব কুমার বড়ুয়া, জেলা প্রশাসক কবির দাশ চৌধুরী, কাচাড়ের পুলিশ সুপার রাজিভর সিংহ, কমান্ডেন্ট অফিসার সঞ্জীব যোশি, কাচাড়ের ডেপুটি কমিশনার জে. বিশ্বাস, করিমগঞ্জের পুলিশ কমিশনার প্রদীপ রঞ্জন কর, শিলচরের এডিসি এনকে দাশ প্রমুখ।