২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রুবেলের ছোঁয়ায় ভাগ্য খুলবে সিলেটের?

রুবেলের ছোঁয়ায় ভাগ্য খুলবে সিলেটের?

স্পোর্টস রিপোর্টার চট্টগ্রাম থেকে ॥ বিপিএলের চট্টগ্রাম ধাপে দু’টি দলের দিকেই বেশি নজর থাকবে। একটি ঘরের দল চিটাগাং ভাইকিংস, আরেকটি দল সিলেট সুপার স্টারস। যে দলটির আজ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ম্যাচ রয়েছে। চিটাগাংয়ের দিকে নজর থাকবে, দলটি ঘরের মাটিতে কতটা ভাল করতে পারে এ জন্য। আর সিলেটের দিকে দৃষ্টি থাকার একটিই কারণ, টানা চার ম্যাচ হারে যে পয়েন্ট তালিকার তলানিতে আছে দলটি, তা থেকে উতরাতে পারে কিনা। জয়ে ফিরতে পারে কিনা। এ ফেরার মিশনে চট্টগ্রামে আজ দলের হয়ে খেলবেন পেসার রুবেল হোসেনও। এখন দেখা যাক রুবেলের ছোঁয়ায় বদলাতে পারে কিনা সিলেট।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে রবিবার দুপুরে দুইঘণ্টা অনুশীলন করেছেন সিলেটের ক্রিকেটাররা। সেখানে ইনজুরি থেকে মুক্ত হওয়া রুবেলও থাকেন। অনুশীলনের মাঝে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাও বলেন রুবেল। শুরুতেই ফিটনেস নিয়ে জানান, ‘এখন অবস্থা আল্লাহর রহমতে ভাল। আজ (কাল) বোলিং করলাম। কালও (শনিবার) বোলিং করেছি। এখন অবস্থা বেশ ভাল।’ বোলিং করলেও ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে খেলতে গিয়ে সেপ্টেম্বরে যে ইনজুরিতে পড়েছেন, পুরো ছন্দে কি আর বোলিং করতে পারছেন? রুবেল বলেন, ‘হ্যাঁ বোলিং শুরু করে দিয়েছি। আমি আমার শতভাগ দিয়েই বোলিং করছি।’

রুবেল আজ খেলবেন। তবে এই খেলার আগে দুই মাস খেলার মধ্যে ছিলেন না এ পেসার। পুরনো ধারাবাহিকতাও কি থাকবে? রুবেল জানালেন, ‘হ্যাঁ গ্যাপ হয়েছে। কালকের (আজকের) ম্যাচ ইনশাল্লাহ আমি খেলব। এটা নিয়ে আসলে ওই রকম কিছু নেই। ম্যাচটা জেতা দরকার।’ বোঝাই যাচ্ছে, সিলেটের আর কোন উপায় নেই, দলের সেরা ক্রিকেটারদের নামাতেই হবে; তা ইনজুরি পুরোপুরি মুক্ত না থাকুক ক্রিকেটার। তা না হলে যে জেতা কঠিন। বিপিএলের শুরু থেকে খেলতে পারেননি রুবেল। দলে ছিলেন না। দল চারটা ম্যাচ হেরেও গেছে। এই সময়ে ফেরাটা কতটা কঠিন? রুবেল বললেন, ‘খেলায় হারজিত থাকেই। আমরা চার ম্যাচ ইতিমধ্যে হেরে গেছি। আরও ছয়টা ম্যাচ আছে। ভাল ক্রিকেট খেললে অবশ্যই অনেক কিছু করা সম্ভব।’

টানা চার ম্যাচ হারের পর কি কোন দলের অবস্থা ভাল থাকার কথা? কখনোই না। ড্রেসিংরুমের অবস্থাও খারাপই হওয়ার কথা। রুবেল বললেন, ‘না আসলে তেমন কিছুই নয়। ম্যাচ হারলে সবার মন স্বাভাবিকভাবে খারাপ থাকে। আর পরবর্তী ম্যাচ কাল (আজ)। এই ম্যাচে ইনশাল্লাহ ভাল কিছু হবে।’

ঢাকায় টানা হেরে এখন চট্টগ্রামে খেলতে নামবে সিলেট। এখানে খেলবে দু’টি ম্যাচ। নতুন ভেন্যুতে কি নতুন উদ্যমে শুরু করা যাবে? রুবেল বললেন, ‘হ্যাঁ অবশ্যই। কারণ আমরা এখানে অনেক ম্যাচ খেলেছি। এখানে ঢাকার মতো উইকেট হবে না। কালকের (আজকের) ম্যাচটা আমরা হয়তো অন্যভাবে শুরু করব।’

উইকেট নিয়ে রুবেল যতদূর জানালেন বোঝা গেল ব্যাটিং নির্ভরই হবে। তামিম জানিয়েছেন উইকেটে রান হওয়ার কথা। রুবেলও তাই বললেন। তাহলে তো বোলারদের জন্য উইকেটটি অনেক চ্যালেঞ্জের হবে? রুবেল বললেন, ‘উইকেট ভাল হবে। আমার কাছে মনে হয়েছে উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য সহায়ক হবে। বাংলাদেশে এমন উইকেটে আমাদের সব সময় বোলিং করতে হয়। ওটা নিয়ে আমি চিন্তা করি না কখনও।’

আপনি ও আব্দুর রাজ্জাক ইনজুরিতে, শহীদ আফ্রিদিও আসবেন। আপনাদের বাইরে রেখে চার ম্যাচ খেলে চারটাই হার। কোন আফসোস? রুবেল বললেন, ‘না এ ধরনের কোন কিছুই নয়। কারণ আমাদের দল কিন্তু বোলিংয়ে ভালই করেছে। কিছু কিছু জায়গায় হয়তো আমরা ভুল করেছি। এখনও ছয়টা ম্যাচ আছে। হয়তো এখনও ফেরার সুযোগ আছে। বাড়তি কোন চাপ কিছুই না। আমার কাছে ওই রকম কোন কিছুই মনে হয় না। আমাদের আগে ম্যাচ জিততে হবে। কারণ আমরা চারটা ম্যাচ হেরে গেছি। একটা ম্যাচ জিতলে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।’