২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শীতে কম্বলের খোঁজখবর মাহবুব শরীফ

শীতের সম্বল লেপ-কাঁথা-কম্বল। এই শীতে আপনি প্রস্তুত তো? পুরনো লেপ-কাঁথা-কম্বল ও গরম কাপড়গুলো ভালভাবে রোদে শুকিয়ে নিন। প্রয়োজনীয় গরম কাপড়গুলো ঝটপট কিনে ফেলুন। আর কম্বলের কথা ভাবছেন! যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কিনে ফেলুন। কারণ প্রচুর শীতে কম্বলের চাহিদা ও দাম দুটোই বেড়ে যায়। আবার প্রচুর চাহিদার সময় আপনি ভাল জিনিসটি বেছে নিতে পারবেন না। আপনার আগে হয়ত কেউ ভাল জিনিসটি বেছে নিয়ে যাবে। রাজধানীতে অনেক ব্র্যান্ডের কম্বল পাবেন, শোরুম ও প্রায় সব জায়গাতেই আছে। দেশী-বিদেশী বিভিন্ন ব্র্যান্ডের কম্বলও মিলবে রাজধানীতে। জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের মধ্যে রয়েছে কিংস্টার, স্পেন ওয়াইল, ড্রাগন ও ম্যাক্রস। আপনি ইচ্ছা করলেই দেশের তৈরি কম্বলও কিনতে পারেন। শিশুদের জন্য ছোট আকরের রং-বেরঙের কম্বল পাবেন এই শোরুমগুলোতে। এই শোরুমগুলো বছরে ৩-৪ মাস কম্বলের ব্যবসা করে। বাকি সময় অর্থাৎ গরমে ইলেক্ট্রিক ফ্যান বিক্রি করে আবার বর্ষায় ছাতাও বিক্রি করে তারা। তার মানে হলোÑ ‘শীতে কাঁথা, গরমে ফ্যান, বর্ষায় ছাতা।’ যাদের এ্যালার্জি সমস্যা আছে তারা কম্বল ব্যবহারে সর্তক থাকুন, কারণ কম্বল এ্যালার্জি বাড়িয়ে দেয়। তবুও যদি ব্যবহার করে থাকেন তাহলে অবশ্যই কম্বলে কাভার ব্যবহার করুন। খালি গায়ে কম্বল গায়ে দেবেন না মানে পাতলা গেঞ্জি বা টিশার্ট পরুন, যাতে কম্বলটি কেনার পর বদল করার ঝামেলায় না জড়ানো লাগে। এ বছর কম্বলের সরবরাহ পর্যাপ্ত থাকায় কম্বল কেনা যাবে প্রায় সহনীয় দামেই। উন্নতমানের দেশীয় তৈরি কম্বলের দাম হবে দেড় হাজার থেকে শুরু করে সাড়ে তিন হাজার টাকা। দামের পার্থক্য হবে কম্বলের পুরুত্ব ও সিঙ্গেল ও ডবলের ওপর। আমদানিকৃত বিদেশী কম্বলের কোয়ালিটি একটু উন্নত এবং দামও একটু বেশি। বিদেশী একটি সিঙ্গেল কম্বলের দাম হবে এক হাজার ৮শ’ থেকে চার হাজার ২শ’ টাকার মধ্যে। আর ডবল কম্বলের দাম হবে তিন হাজার ৫শ’ থেকে শুরু করে ছয় হাজার টাকার মধ্যে। বাচ্চাদের জন্য বিশেষ সাইজের কম্বলের দাম হবে ৭শ’ থেকে দুই হাজার টাকার মধ্যে। বাংলাদেশে যত কম্বলের মার্কেট রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী ও বিক্রয় মার্কেট হলো ‘ঢাকা নিউমার্কেট’। সব ধরনের কম্বল পাবেন জনপ্রিয় এই মার্কেটে। আর পাবেন বঙ্গবাজার, গাউছিয়া মার্কেট, ইসলামপুরসহ অনেক মার্কেটগুলোতে।