২১ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রোনাল্ডো, মেসি ও নেইমার সেরা তিনে

  • ফিফা ব্যালন ডি’অর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বর্তমান বর্ষসেরা খেলোয়াড় ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও সাবেক রেকর্ড টানা চারবারের সেরা লিওনেল মেসির নাম থাকাটা অনুমিতই ছিল। তবে সেরা তিনের আরেকজন কে হবেন তা নিয়ে ছিল ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা। এক্ষেত্রে আলোচনায় ছিলেন দুই বার্সিলোনা সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ ও নেইমার। তবে ব্রাজিলিয়ান ভক্তদের জন্য সুসংবাদ সেরা তিনে জায়গা হয়নি উরুগুয়ের সুয়ারেজের। সুযোগ পেয়েছেন সময়ের অন্যতম সেরা তারকা নেইমার।

বলা হচ্ছে, ফিফা ব্যালন ডি’অর প্রসঙ্গে। সোমবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ফিফার দপ্তরে ২০১৫ সালের ব্যালন ডি’অর বিজয়ী নির্বাচনের জন্য তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সেখানে রোনাল্ডো ও মেসির সঙ্গে প্রথমবারের মতো জায়গা পেয়েছেন নেইমার। এর আগে ২৩ জনের তালিকা প্রকাশ করেছিল ফিফা। সেখান থেকে ২০ জনকে বাদ দিয়ে সেরা তিনজনের নাম ঘোষণা করা হল। ২০১৬ সালের ১১ জানুয়ারি সুইজারল্যান্ডের জুরিখে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

এর আগে ২০১৫ সালের ফিফা ব্যালন ডি’অরের জন্য ৫৯ জনের প্রাথমিক তালিকা ঘোষণা করা হয়েছিল। সেখান থেকে কাটছাঁট করে তালিকাটা ২৩ জনে নামিয়ে আনা হয়। এবার সেখান থেকে তালিকাটা এসে থেমেছে তিন জনে। ব্যালন ডি’অর পুরস্কারের জন্য ফিফার ২০৯টি সদস্য দেশের জাতীয় দলের অধিনায়ক, কোচ ও একজন ক্রীড়া সাংবাদিক ভোট দিয়ে থাকেন। ফিফা ফুটবল কমিটির সদস্যবৃন্দ এবং ফ্রান্স ফুটবলের একটি বিশেষজ্ঞ দল যৌথভাবে ২৩ জন পুরুষ খেলোয়াড়ের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা করেন। সেখান থেকে ভোটাররা তাদের শীর্ষ তিনজনকে বাছাই করে ভোট দেন। প্রত্যেক ফিফা সদস্য রাষ্ট্র থেকে তিনজন ভোটার থাকবেন। একজন সাংবাদিক, জাতীয় পুরুষ দলের কোচ ও অধিনায়ক। প্রত্যেক ভোটার নিজের প্রথম (৫ পয়েন্ট), দ্বিতীয় (৩ পয়েন্ট) ও তৃতীয় (১ পয়েন্ট) পছন্দের খেলেয়াড়কে ভোট দেন।

এবারও কি লিওনেল মেসি না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর একজন? না অন্য কেউ। সব কৌতূহলের অবসান ঘটবে আগামী জানুয়ারিতে। তবে এবার সেরা তিনে নেইমার জায়গা পাওয়ায় অনেকেই স্বপ্ন দেখছেন, মেসি ও রোনাল্ডোর একক আধিপত্যের অবসান ঘটবে। সেই ২০০৭ সালে কাকার পর আর কেউ ফিফা সেরা হতে পারেননি। এর পরের সাতবার হয়ত রোনাল্ডো না হয় মেসি জিতেছেন বর্ষসেরার মুকুট। এবার আরেক ব্রাজিলিয়ান কি পারবেন বৃত্ত ভাঙ্গতে?

ব্যালন ডি’অরের প্রবর্তন ১৯৫৬ সাল থেকে। ২০০৯ সাল পর্যন্ত এ পুরস্কার দেয়া হয়। আর ফিফা বর্ষসেরা পুরষ্কারের প্রবর্তন ১৯৯১ সাল থেকে। ২০১০ সাল থেকে এ দু’টি পুরস্কারকে একীভূত করা হয়। যার নাম দেয়া হয়েছে ফিফা ব্যালন ডি’অর। ২০০৯ সালে সর্বশেষ ব্যালন ডি’অর জয় করেন মেসি। ওই বছর ফিফা বর্ষসেরাও হন বার্সিলোনা ডায়মন্ড। ২০১০ সাল থেকে প্রচলিত ফিফা ব্যালন ডি’অরের এবার ষষ্ঠ পালা। প্রথম তিনবার গৌরবময় এ পুরস্কার বাজিমাত করেন মেসি। পরের দুইবার রোনাল্ডো। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত চারবার ফিফা সেরা হয়েছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। তিনবার করে ব্যালন ডি’অর জয়ের রেকর্ড রয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (২০০৮, ২০১৩, ২০১৪), হল্যান্ডের জোহান ক্রুয়েফ (১৯৭১, ১৯৭৩, ১৯৭৪), ফ্রান্সের মিশেল প্লাতিনি (১৯৮৩, ১৯৮৪, ১৯৮৫) ও হল্যান্ডের মার্কো ভ্যান বাস্তেইনের (১৯৮৮, ১৯৮৯, ১৯৯২)। ফিফা বর্ষসেরা তিনবার করে জয়ের রেকর্ড রয়েছে ব্রাজিলের কিংবদন্তি রোনাল্ডো ও ফ্রান্সের জিনেদিন জিদানের। রোনাল্ডো সেরার মুকুট পরেন ১৯৯৬, ১৯৯৭, ২০০২ সালে। জিদান সবার সেরা হন ১৯৯৮, ২০০০, ২০০৩ সালে। এছাড়া ব্রাজিলের আরেক সুপারস্টার রোনাল্ডিনহো দু’বার ফিফা বর্ষসেরা হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

নির্বাচিত সংবাদ