২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দিনাজপুরে প্রার্থিতা নিয়ে হামলা ভাংচুর

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ জেলার বীরগঞ্জ পৌরসভায় প্রার্থিতা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ঠেকাতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সোমবার রাতে মেয়র মনোনয়ন প্রত্যাশী বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া জাকা ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন বাবুল সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন সমর্থকরা উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ঢুকে সভাপতি জাকার শার্টের কলাট ধরে লাঞ্ছিত করার চেষ্টা করে। তাৎক্ষণিক জাকার সমর্থকরা তাদের বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও চেয়ার-টেবিল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রহমত আলী ও সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন আহত হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফটিকছড়িসহ চার পৌরসভায় নির্বাচন হচ্ছে না

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফটিকছড়ি, ১ ডিসেম্বর ॥ চট্টগ্রামের উত্তর ও দক্ষিণে ১৪টি পৌরসভার মধ্যে নবগঠিত তিনটি পৌরসভা এবং ফটিকছড়ি পৌরসভা নির্বাচনের মেয়াদ আরও দুই বছর বাকি থাকায় এখানে নির্বাচন হচ্ছে না। উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারী, নাজিরহাট এবং দক্ষিণ চট্টগ্রামের বোয়ালখালী পৌরসভা নতুনভাবে গঠিত হওয়ায় নির্বাচনের তালিকায় এ তিন পৌরসভার নাম নেই। সীমানা বিরোধ, মামলা ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন না হওয়ায় হাটহাজারী, নাজিরহাট ও বোয়ালখালি পৌরসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক হয়নি। ফলে এ তিন পৌরবাসীর মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হয়েছে।

সম্ভাব্য নির্বাচনের আশায় বিশেষ করে নাজিরহাট ও হাটহাজারীতে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনী আমেজ নিয়ে প্রচারণা চালালেও শেষতক ঝিমিয়ে পড়েছে।

২০১২ সালের ৮ সেপ্টেম্বর হাটহাজারী পৌরসভা এবং ২০১৪ সালের ১৫ ডিসেম্বর নাজিরহাট পৌরসভার কার্যক্রম শুরু হয়।

নওগাঁয় প্রার্থী চূড়ান্তে চলছে নানান বিশ্লেষণ

বিশ্বজিৎ মনি, নওগাঁ ॥ নওগাঁর দুটি পৌরসভায় শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রচার। পৌরসভা দুটি হলো, নওগাঁ পৌরসভা ও পতœীতলা উপজেলার নজিপুর পৌরসভা। পৌরসভা দুটিতে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের জোর লবিং আর দৌড়ঝাঁপ চলছেই। নওগাঁ পৌরসভার মেয়রপ্রার্থী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান ছেকার আহমেদ শিষানকে স্থানীয়ভাবে মৌখিক সমর্থন দেয়ায় তার সমর্থকরা ইতোমধ্যেই মাঠে নেমেছে। তবে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত না আসায় বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত নয় বলে দাবি করেছেন রাজনৈতিক নেতারা। এদিকে দুটি পৌরসভায় কোন রাজনৈতিক দল থেকে কে মনোনয়ন পাচ্ছেন, কে কেমন মানুষ, কে সন্ত্রাসীদের গডফাদার, কে টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, উন্নয়নের নামে কে সরকারী অর্থ লুটপাট করে, বিপুল অর্থ বরাদ্দের পরেও রাস্তাঘাট ও ড্রেনের বেহাল দশা কেন, কারা উন্নয়ন কর্মকা-ের বরাদ্দকৃত অর্থ কাজ শুরুর আগেই ভাগবাটোয়ারা করে খায়, কে বদমেজাজী, কে মানুষের সঙ্গে একটু হেসে কথা বলতে জানে না, কার পারিবারিক অবস্থা আগে কেমন ছিল আর এখন কেমন, এমন অনেক চুলচেরা বিশ্লেষণ এখন আলোচনার মুখ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে সাধারণ ভোটারদের মাঝে।