২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উপেক্ষিত মানবাধিকার

সেলিনা জাহান

শহরে অস্থায়ীভাবে বসবাস করা ঠিকানাবিহীন মানুষগুলোর নাম কে ভাসমান দিয়েছে, তা জানা কঠিন। তবে নামটা বেশ কাব্যিক সন্দেহ নেই। নামের সঙ্গে ঢেউয়ের মতো ছন্দও খুঁজে পাওয়া যায়। তাছাড়া এসব মানুষকে গরিব-দুঃখী মিসকিন, কাঙ্গাল, দিন-মজুর, অভাবী না বলে ভাসমান মানুষ বললে ভদ্রতাও রক্ষা পায়। বাতাসের ভিতর যেমন ধুলোবালি ভেসে বেড়ায়, ঢাকা শহরেও তেমনি বেশ কিছু মানুষ প্রতিনিয়ত ভেসে বেড়াচ্ছে। যতদূর জানা যায় এই শহরের প্রায় চার ভাগের এক ভাগ মানুষই স্ত্রী-সন্তান, আত্মীয়স্বজন নিয়ে ভেসে ভেসে বেড়ায়। এরা আসলে এক ধরনের যাবাবর। এদের শিশু-কিশোর জনগোষ্ঠীকে অনেকে আদর করে ডাকে পথকলি, যদিও ফুলের কলির মতো এদের জীবন সুন্দর নয়। শহরের মানুষ এ সমস্ত ভাসমান লোকজনকে পছন্দ করে, তা নয়। তেমনি এই ভাসমান লোকজনও যে শহরের অচেনা অজানা বিরূপ পরিবেশে থাকতে পছন্দ করে তাও নয়। তাদের মন পড়ে থাকে নিভৃত পল্লীর ছায়াঘেরা সেই সবুজ শান্ত পরিবেশে যেখানে ছিল তাদের শান্তির নীড়, কিন্তু প্রকৃতির নিয়ম বড় নির্মম। বেশিরভাগ সময়ই এই সমস্ত নিরীহ গরিব মানুষের ওপর তার রুদ্ররূপ প্রকাশ করার খেয়াল চাপে। আর নিমেষে ছিন্নভিন্ন করে দেয় তাদের সাজানো সংসার। গৃহস্থ হয়ে যায় সর্বস্বান্ত। ঢাকা শহরে এই যে ভাসমান মানুষের স্রোত দিনকে দিন বেড়ে চলেছে তা নিয়ে আমাদের সবারই সামগ্রিকভাবে চিন্তা-ভাবনা করা উচিত। শুধু সরকারের দিকে তাকিয়ে থাকলে চলবে না। অপরিকল্পিতভাবে যেখানে সেখানে গড়ে উঠছে বস্তি, পুষ্টিহীনতায় ভুগছে এখানকার বৃদ্ধ, শিশু, নারী তথা সব বয়সেরই মানুষ, বর্জ্য নিষ্কাশনের ব্যবস্থা বেশিরভাগ জায়গাতেই ভাল নয় বলে রোগব্যাধি বাড়ছে হু হু করে। অভাবের তাড়নায় বাড়ছে চুরি, ডাকাতি, মাদক ব্যবসা ও নারী শিশু পাচার। রাস্তাঘাটে বেড়েই চলেছে যানজট, কিশোরী মেয়েরা গভীর রাতে ফুলের মালা ফেরি করে বেড়ায়। যে দেশে সদ্য হাঁটতে শেখা মেয়ে শিশু রক্ষা পায় না কিছু বিকৃত মানুষের লোভ-লালসার কাছে সেখানে প্রতিরাতে কি থাকে এদের ভাগ্যে, তা সহজেই অনুমেয়। উপেক্ষিতই থাকে এদের মানবাধিকার।

চোখ বন্ধ করে রাখলেই তো সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে না বা সরকারের একার উপর সব দায় চাপিয়ে দিলেও হবে না। এ সমস্যার সমাধান সবাই মিলে করতে হবে। তবে দিকনির্দেশনা আসতে হবে সরকারের কাছ থেকে। সবাই মিলে চেষ্টা করলে যে কোন কাজে সাফল্য নিশ্চয়ই আসবে। মহাখালী, ঢাকা থেকে

নির্বাচিত সংবাদ