২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লীগ কাপের সেমিতে ম্যানসিটি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দাপুটে জয়ে ইংলিশ লীগ কাপ (ক্যাপিটাল ওয়ান কাপ) ফুটবলের সেমিফাইনালে উঠেছে ম্যানচেস্টার সিটি। মঙ্গলবার রাতে পঞ্চম পর্ব অর্থাৎ কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে ম্যানসিটি ৪-১ গোলে পরাজিত করে দ্বিতীয় বিভাগের দল হাল সিটিকে। নিজেদের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে সিটির হয়ে জোড়া গোল করেন কেভিন ডি ব্রুইনে। একটি করে গোল করেন আইভরিকোস্ট স্ট্রাইকার উইলফ্রেড বোনি ও নাইজিরিয়ার স্ট্রাইকার কেলেচি ইহেয়ানাচো। হাল সিটির হয়ে সান্ত¡নার একমাত্র গোলটি করেন অ্যান্ড্রু রবার্টসন।

সিটির সঙ্গে সেমিফাইনালে নোঙর ফেলেছে এভারটন ও স্টোক সিটিও। শেষ আটের অন্যান্য ম্যাচে এভারটন ২-০ গোলে মিডলসবার্গকে ও স্টোক সিটি একই ব্যবধানে হারায় শেফিল্ড ওয়েডনেসডেকে। বুধবার রাতে সাউদাম্পটন ও লিভারপুলের মধ্যকার বিজয়ী শেষ দল হিসেবে সেমিতে জায়গা করে নেবে। এর আগে শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছে তিন পরাশক্তি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, চেলসি ও আর্সেনাল।

গত সাত মৌসুমে এই নিয়ে চতুর্থবার লীগ কাপের সেমিতে জায়গা করে নিয়েছে ম্যানসিটি। পরশুর ম্যাচের সবটুকু আলো ছিল শেষ দশ মিনিটে। এই সময়ে ম্যাচের পাঁচটি গোলের চারটিই হয়। উইলফ্রেড বোনির গোলে ম্যাচের ১২ মিনিটে এগিয়ে যায় ২০১৪ সালে লীগ কাপের শিরোপা জেতা সিটি। এরপর লম্বা সময় আর গোল হয়নি। ৮০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন স্ট্রাইকার কেলেচি ইহেয়ানাচো। ডি ব্রুইনে গোল দু’টি করেন ৮২ ও ৮৭ মিনিটে। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে (৯২ মিনিট) হাল সিটির ব্যবধান কমানো গোলটি করেন রবার্টসন। ম্যাচ শেষে দলের পারফর্মেন্সে সন্তোষ জানান সিটি কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি। তিনি বলেন, এই ফলাফল খুবই ইতিবাচক। দল অনেক ভাল খেলেছে। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই আমাদের লক্ষ্য। আমাদের লক্ষ্য একটাই, শিরোপা।

আরেক ম্যাচে শেফিল্ড ওয়েডনেসডেকে ২-০ গোলে হারিয়ে ১৯৭২ সালে শিরোপা জয়ের পর এই প্রথমবারের মতো লীগ কাপের সেমিফাইনালে উঠেছে স্টোক সিটি। তারাও ফাইনালে খেলার স্বপ্ন বুনছে। এর আগে চেলসি ও আর্সেনালের মতো লীগ কাপ থেকে বিদায় নেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও। চতুর্থ পর্বের ম্যাচে মিডলসবার্গের কাছে পেনাল্টি শূটআউটে ৩-১ গোলে হার মানে রেড ডেভিলসরা। নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ের খেলা গোলশূন্য অমীমাংসিত ছিল। গত ২৮ অক্টোবর ম্যানইউ বিদায় নিলেও কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে ম্যানচেস্টার সিটি ও লিভারপুল। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যানসিটি ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করে ক্রিস্টাল প্যালেসকে। তবে শেষ আটের টিকেট পেতে ঘাম ঝরাতে হয় দ্য রেডসদের। ঘরের মাঠ এ্যানফিল্ডে তারা ১-০ গোলে হারায় বোর্নমাউথকে। দাপুটে যাত্রা অব্যাহত রেখে এবার সেরা চারও নিশ্চিত করেছে সিটি।

শেষ ষোলোতে ক্রিস্টাল প্যালেসকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে প্রিমিয়ার লীগের শীর্ষে থাকা সিটি। ওই ম্যাচের ২২ মিনিটে আলেক্সান্ডার কোলোরোভের কর্নার থেকে হেড দিয়ে সিটিকে এগিয়ে দেন উইলফ্রেড বোনি। বিরতির ঠিক আগে কেভিন ডি ব্রুইনে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। হাঁটুর ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে জাবালেটা দ্বিতীয়ার্ধে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হলে তার স্থানে খেলতে নামেন বাকারে সাগনা। দ্বিতীয়ার্ধে ইয়েনাচো, ইয়াইয়া তোরের পেনাল্টি ও বদলি হিসেবে খেলতে নামা ১৭ বছর বয়সী মানু গার্সিয়ার গোলে ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দলের বড় জয় নিশ্চিত হয়। ৮৯ মিনিটে ড্যামিয়ের ডিলানি ক্রিস্টালের পক্ষে সান্ত¡নাসূচক একমাত্র গোলটি করেন। পরশু কোয়ার্টার ফাইনালেও সিটির হয়ে মাঠ মাতান ব্রুইনে ও বোনি। দলটির কোচ পেলেগ্রিনির বিশ্বাস, পরের দুই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও এ দু’জন আলো ছড়াবেন। পাশপাশি গোটা দলই শিরোপার লক্ষ্যে খেলবে বলে তার বিশ্বাস। এক মৌসুম পর এবার লীগ কাপের শিরোপা সিটি পুনরুদ্ধার করতে পারে কিনা সেটাই দেখার।