২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তিন দিনব্যাপী ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো শুরু ১০ ডিসেম্বর

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আগামী ১০ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে ৩ দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো-২০১৫।’ রাজধানীর কাকরাইলে অবস্থিত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে এ মেলা চলবে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮ পর্যন্ত মেলা চলবে।

এতে অংশগ্রহণ করছে বিভিন্ন ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক, এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি, ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি, ট্রাস্টি, অডিট ফার্ম, কাস্টোডিয়ান, তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানি। এই অনলাইন পত্রিকা এ মেলার আয়োজন করছে।

মেলা আয়োজক জিয়াউর রহমান বলেন, পুঁজিবাজারে যোগ্য নেতৃত্বের অভাব রয়েছে। ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক, এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠান যোগ্য নেতার অভাবে ভুগছে। এই শূন্যস্থান পূরণ করার লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মের মধ্যে নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে হবে। আর যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যকে সামনে রেখে মেলার আয়োজন করেছে অর্থসূচক। নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে মেলায় ২১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাদের কাছে পুঁজিবাজারের মৌলিক বিষয়াদিসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরা হবে। পুঁজিবাজার নিয়ে মানুষের নেতিবাচক মনোভাব দূর করা ও অর্থনীতিতে পুঁজিবাজারের গুরুত্ব সম্পর্কে অবহিত করাও মেলার অন্যতম উদ্দেশ্য বলে জানান তিনি। মেলার প্রথম দিন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, দ্বিতীয় দিন অর্থ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. আব্দুর রাজ্জাক ও তৃতীয় দিন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

জানা গেছে, এ জন্য মেলায় থাকছে প্রায় ৮০টি স্টল। ইতোমধ্যে অধিকাংশ স্টল বুকিং হয়ে গেছে। তবে পুঁজিবাজারের স্বার্থে কিছু স্টল বিনামূল্যেও দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দ্য ইনস্টিটিউট অব কস্ট এ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট এ্যাকাউন্টেন্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি), দ্য চার্টার্ড এ্যাকাউন্টেন্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএবি)। এছাড়া দ্য ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড সেক্রেটারিজ অব বাংলাদেশ (আইসিএসবি) ও বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতিও বিনামূল্যে স্টল বরাদ্দ পাচ্ছে মেলায়। মেলায় ৩ দিনই দর্শণার্থীদের জন্য বিনামূল্যে কুপনের ব্যবস্থা থাকছে। প্রতিদিন ২১ জন বিভিন্ন পুরস্কার পাবেন। এর মধ্যে ঢাকা টু মালয়েশিয়া টু ঢাকা, ঢাকা টু কক্সবাজার টু ঢাকা ভ্রমণের সুযোগসহ অন্যান্য পুরস্কারের ব্যবস্থা রয়েছে।